তথ্যমন্ত্রী : টিআইয়ের রিপোর্ট রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে

আগের সংবাদ

নীরব মহামারি অসংক্রামক রোগ

পরের সংবাদ

ফাইনালে অ্যাশলে বার্টির প্রতিপক্ষ কলিন্স

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২৮, ২০২২ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ২৮, ২০২২ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

কাগজ ডেস্ক : এবার অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে নারী এককের ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার অ্যাশলে বার্টি ও আমেরিকান ড্যানিয়েল কলিন্স। গতকাল প্রথম সেমিফাইনালে কলিন্স ইগা সোয়াটেককে এবং দ্বিতীয় সেমিতে বার্টি ম্যাডিসন কিসকে হারিয়ে ফাইনালের টিকেট নিশ্চিত করেন। আগামীকাল শনিবার ফাইনালে রেকর্ড গড়ার লক্ষ্যে ড্যানিয়েল কলিন্সের বিপক্ষে কোর্টে নামবেন অ্যাশলে বার্টি। কলিন্সের বিপক্ষে জয় ছিনিয়ে নিতে পারলেই ১৯৭৮ সালের পর প্রথম অজি টেনিসার হিসেবে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের শিরোপা জিতবেন টেনিস সুন্দরী অ্যাশলে বার্টি।
অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের সেমিফাইনালে ম্যাডিসন কিসকে হারিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করেছেন অ্যাশলে বার্টি। গতকাল অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের নারী এককের সেমিফাইনালের দ্বিতীয় ম্যাচে ম্যাডিসন কিসকে দাঁড়াতেই দেননি অস্ট্রেলিয়ান নাম্বার ওয়ান নারী টেনিসার অ্যাশলে বার্টি। রড লেভার এরিনাতে সরাসরি দুই সেটে ৬-১ ও ৬-৩ পয়েন্টের ব্যবধানে জয় নিয়ে মাঠ কোর্ট ছেড়েছেন তিনি। ম্যাচের প্রথম সেটে কোনোভাবেই পাত্তা দেননি এই টেনিস সুন্দরী। সেমিফাইনালে প্রথম সেটে ম্যাডিসন কিসকে মাত্র ১ পয়েন্ট দিয়ে ৬-১ পয়েন্টের ব্যবধানে জয় তুলে নেন বার্টি।
দ্বিতীয় সেটে একটু ঘুরে দাঁড়ানো চেষ্টা করলেও বার্টির ৬ পয়েন্টের বিপরীত ৩ এর বেশি করতে পারেননি এই আমেরিকান। ম্যাডিসন কিস হলেন একজন পেশাদার আমেরিকা টেনিসার। তিনি তার টেনিস ক্যারিয়ারে ২০১৬ সালে নারীদের মধ্যে বিশ্বের সেরা ৭ এ পৌঁছাতে পেরেছিলেন। তিনি গ্র্যান্ড স্লাম টুর্নামেন্টের মাত্র একটি ফাইনাল খেলতে পেরেছিলেন। সেটি ছিল ২০১৭ সালের ইউএস ওপেনে। ফাইনাল ম্যাচে তার প্রতিপক্ষ ছিল স্লোয়েন স্টিফেন্স। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে এই প্রথমবার তিনি সেমিফাইনাল পর্যন্ত খেলেছেন। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের এই আসরে অ্যাশলে বার্টির কাছে হেরে গিয়ে গ্রান্ড স্লাম জয়ের পথ থেকে চলে গেলেন কিস।
চলমান অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে নারী এককের শীর্ষ বাছাই হিসেবে টুর্নামেন্ট শুরু করেছিলেন অ্যাশলে বার্টি। সেই ধারাবাহিকতা বজায় রেখে এরই মধ্যে ফাইনালে পৌঁছে গেছেন এই অস্ট্রেলিয়ান। সঙ্গে গড়েছেন ইতিহাসও। এরই মধ্যে ৪২ বছর পর স্বাগতিক দেশের খেলোয়াড় হিসেবে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের ফাইনাল নিশ্চিত করেছে অ্যাশলে বার্টি। আর ফাইনাল জিতলে তা হবে আরো বড় ইতিহাস। গ্র্যান্ড স্লাম জয়ের স্বপ্নে অ্যাশলে বার্টি প্রথম রাউন্ডে সুযোগ না দিয়েই লেসিয়া সুরেনকোকে হারিয়েছেন ৬-০ ও ৬-১ পয়েন্টের ব্যবধানে। দ্বিতীয় রাউন্ডেও একই মেজাজে লুসিয়া ব্রোঞ্জেটিকে হারিয়েছেন ৬-১, ৬-১ ব্যবধানে। তৃতীয় রাউন্ডে ক্যামিলা জিওরগিকে হারিয়েছেন ৬-২ ও ৬-৩ পয়েন্টের ব্যবধানে। চতুর্থ রাউন্ডেও আমান্ডা এনিসিনোভাকে হারিয়েছেন ৬-৪ ও ৬-৩ ব্যবধানে।
কোয়ার্টার ফাইনালে জেসিকা পেগুলাকে হারিয়েছেন ৬-২ ও ৬-০ পয়েন্টে। সেমিফাইনালে ম্যাডিসন কিসকে হারিয়ে পৌঁছে গেলেন ফাইনালে। গ্রান্ড স্লাম জয়ের আর একটি ধাপ মাত্র বাকি। শেষ এই বাধা জয় করতে পারলেই নতুন এক রেকর্ড গড়বেন এই অজি টেনিসার। অন্যদিকে সেমিফাইনালের প্রথম ম্যাচে ইগা সোয়াটেককে হারিয়েও ফাইনাল নিশ্চিত করেছেন ড্যানিয়েল কলিন্স।
রড লেভার এরিনাতে গতকাল সেমিফাইনালের প্রথম ম্যাচে সরাসরি দুই সেটে ৬-৪ ও ৬-১ পয়েন্টের ব্যবধানে হারিয়েছেন তিনি। প্রথম সেটে পোলিশ টেনিসার ইগা সোয়াটেক একটু লড়াই করতে পারলেও দ্বিতীয় সেটে একেবারেই পেরে ওঠেননি। প্রথম সেটে কলিন্সের ৬ পয়েন্টের বিপরীতে ইগা সোয়াটেকের ছিল ৪ পয়েন্ট। কিন্তু দ্বিতীয় সেটে বার্টির ৬ পয়েন্টের ব্যবধানে ইগা সোয়াটেক নিতে পেরেছিল মাত্র ১ পয়েন্ট। তাই আমেরিকান টেনিসার ড্যানিয়েল কলিন্সের কাছে পরপর দুই সেটে পরাজিত হয়ে সেমিফাইনাল থেকে বিদায় নিতে হয়েছে এই পোলিশ টেনিসারের।
ড্যানিয়েল কলিন্স হলেন আমেরিকার একজন পেশাদার টেনিসার। বর্তমানে তিনি নারী টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ে ৩০তম স্থানে অবস্থান করছেন। এই আসরের আগে গ্রান্ড স্লাম টুর্নামেন্টে ২০২১ সালে ইউএস ওপেনের তৃতীয় রাউন্ড, ২০২০ সালে ফ্রেঞ্চ ওপেনে কোয়ার্টার ফাইনাল এবং ২০১৯ এ উইম্বলডন টেনিসে তৃতীয় রাউন্ড পর্যন্ত নিশ্চিত করতে পেরেছিলেন। এবারের আসরে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে ফাইনালে অজি তারকা অ্যামলে বার্টির সঙ্গে জয়ী হতে পারলেই ক্যারিয়ারের প্রথম গ্রান্ড স্লামের অধিকারী হবেন তিনি।
অন্যদিকে পুরুষ এককের কোয়ার্টার ফাইনালে ফেলিক্স আগার আলিয়াসিমের সঙ্গে দীর্ঘক্ষণের টেনিস লড়াইয়ে জয়ী হয়েছেন ড্যানিয়েল মেদভেদেভ। পাঁচ সেটের ম্যাচে প্রথমে পিছিয়ে পড়েছিল রাশিয়ান টেনিসার মেদভেদেভ। প্রথম দুই সেটেই কানাডিয়ান টেনিসার ফেলিক্স আগার আলিয়াসিমে নিজের আধিপত্য বিস্তার করেছেন।
প্রথম সেটে কিছুটা কষ্টে ৭-৬ পয়েন্টের ব্যবধানে জয়ী হলেও দ্বিতীয় সেটে মেদভেদেভকে অনায়াসে পরাজিত করেছিল আলিয়াসিমে। দ্বিতীয় সেটে কানাডিয়ান টেনিসারের ৬ পয়েন্টের বিপরীতে মেদভেদেভ নিতে পেরেছিল মাত্র ৩ পয়েন্ট। কিন্তু তার পরের সেট থেকেই মেদভেদেভ ম্যাচে ফিরে আসে। পরবর্তী তিন সেটে মেদভেদেভ তার একক আধিপত্য ধরে রেখেছিল। পরপর দুই সেটে পরাজিত হয়ে তৃতীয় সেটে আলিয়াসিমের ৬ পয়েন্টের বিপরীতে মেদভেদেভ ৭ পয়েন্ট নিয়ে কোর্ট ছেড়েছে।
চতুর্থ সেটেও ধারবাহিকতা বজায় রেখে নিজের ৭ পয়েন্টের বিপরীতে আলিয়াসিমেকে নিতে দিয়েছে মাত্র ৫ পয়েন্ট। ম্যাচ নির্ধারণী পঞ্চম সেটও নিজের করে নিয়েছিলেন মেদভেদেভ।
শেষ সেটে ৬-৪ পয়েন্টের জয় নিয়ে সেমি ফাইনাল নিশ্চিত করেছেন এই রুশ টেনিসার। শেষ পর্যন্ত ৬-৭, ৩-৬, ৭-৬, ৭-৫ এবং ৬-৪ পয়েন্টের ব্যবধানে জয়ী হয়েছে ড্যানিয়েল মেদভেদেভ। আজ দুপুর ২টা ৩০ মিনিটে স্টেফানোস সিটসিপাসের সঙ্গে সেমিফাইনালের কোর্টে নামবে ড্যানিয়েল মেদভেদেভ।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়