এবার রাজধানীতে গাড়িচাপায় সাইকেল আরোহী নিহত

আগের সংবাদ

প্রতিকারহীন মৃত্যুর মিছিল!

পরের সংবাদ

লড়তে চান বিএনপির কামাল ইসলামী আন্দোলনের মাসুমও : নারায়ণগঞ্জে নেই ভোটের আমেজ, আইভী-শামীম কথা হয়নি

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ৫, ২০২১ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: ডিসেম্বর ৫, ২০২১ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

কামরুজ্জামান খান, ঢাকা ও অন্তু রেজা, নারায়ণগঞ্জ : ঢাকার পাশে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হলেও নির্বাচনী আমেজ নেই সেখানে। নির্বাচন কি আদৌ প্রতিদ্ব›িদ্বতাপূর্ণ হবে নাকি আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী খালি মাঠে গোল দেবেন- এ প্রশ্নের সদুত্তর নেই। ভোটের মাঠে নেই বিএনপি, জাতীয় পার্টিরও তোড়জোড় নেই। বাম দল ও ইসলামী সংগঠনগুলো এখনো নীরব। এরই মধ্যে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ বেছে নিয়েছে তাদের পুরনো মুখ, বর্তমান মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীকে। নারায়ণগঞ্জের রাজনীতিতে আইভীর প্রধান প্রতিপক্ষ সংসদ সদস্য শামীম ওসমান আগামী নির্বাচনকে কীভাবে নিচ্ছেন সেদিকেও তাকিয়ে আছে রাজনৈতিক পর্যবেক্ষক মহল। শুক্রবার রাতে আইভীকে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন দেয়া হলেও এখনো তাদের দুজনের মধ্যে কথা বা দেখা হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি। অবশ্য গতকাল শনিবার বিকালে ২ নং রেলগেট এলাকায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়ে নেতাকর্মীদের নিয়ে মোটর শোভাযাত্রা করে প্রচারণা শুরু করেছেন আইভী।
নাসিক নিয়ে নানান কারণে মানুষের আগ্রহ বেশি। বন্দরনগরীর তৃতীয় মেয়র কে হচ্ছেন- এনিয়ে জল্পনা-কল্পনা থাকলেও দ্বিতীয়বারের মতো দলীয় নৌকা প্রতীক নিশ্চিত করেছেন বর্তমান মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। কে হচ্ছেন তার প্রতিদ্ব›দ্বী- এ নিয়ে চলছে আলোচনা। আওয়ামী লীগের মনোনয়নের দৌড় থেকে ছিটকে পড়া তিনজনের মধ্যে কেউ কি হবেন বিদ্রোহী প্রার্থী- তাও স্থান পেয়েছে আলোচনায়।
এদিকে নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এ টি এম কামাল জানিয়েছেন, দল তাকে মনোনয়ন বা সমর্থন না দিলেও মেয়র পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্ব›িদ্বতা করবেন তিনি। ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মাসুম বিল্লাহ মেয়র পদে প্রচারণায় রয়েছেন। এছাড়া আরো কয়েকজন লড়তে পারেন চূড়ান্ত লড়াইয়ে।
ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, আগামী ১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে মনোনয়নপত্র জমা দেয়া যাবে। মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই চলবে ২০ ডিসেম্বর পর্যন্ত। আর প্রত্যাহারের শেষ সময় ২৭ ডিসেম্বর। ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে ১৬ জানুয়ারি। নাসিকে মোট ভোটার ৪ লাখ ৭৪ হাজার ৯৩১ জন। এর মধ্যে পুরুষ

২ লাখ ৩৯ হাজার ৬২২ জন ও মহিলা ২ লাখ ৩৫ হাজার ২৬৯ জন।
প্রসঙ্গত, ২০১১ সালের ৩০ অক্টোবর নাসিকের প্রথম নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে আইভী মেয়র হিসেবে জয়লাভ করেন। ২৭ নভেম্বর তিনি দেশের প্রথম নারী সিটি করপোরেশনের মেয়র হিসেবে শপথ ও ১ ডিসেম্বর দায়িত্ব নেন। ২০১৬ সালের ২২ ডিসেম্বর দ্বিতীয় নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে পুনরায় নির্বাচিত হন আইভী। ২০১৭ সালের ৫ জানুয়ারি মেয়র হিসেবে দ্বিতীয় মেয়াদে শপথ নেন।
উল্লেখ্য, নাসিকে প্রার্থী হতে আইভী ছাড়াও শামীম ওসমানের ঘনিষ্ঠজন হিসেবে পরিচিত মহানগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি চন্দন শীল, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক খোকন সাহা এবং জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত মো. শহীদ বাদল দলীয় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছিলেন।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়