দেশে ২ মাসে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৮৪৬

আগের সংবাদ

ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়ে সেমিতে অস্ট্রেলিয়া

পরের সংবাদ

দুদলের সেমির ভাগ্য নির্ধারণ আজ

প্রকাশিত: নভেম্বর ৬, ২০২১ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ৬, ২০২১ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

ক্রিকেট অনুরাগীরা আজ ২টি হাইভোল্টেজ ম্যাচ উপভোগের সুযোগ পাচ্ছেন। গ্রুপ-১ থেকে বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার বিশ্বকাপ মিশন শেষ হয়েছে। আজ মাঠে নামবে চার দল। বিকাল ৪টায় অস্ট্রেলিয়া বিপক্ষে লড়বে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। রাত ৮টায় ইংল্যান্ডের মোকাবিলা করবে দক্ষিণ আফ্রিকা। ৪ ম্যাচ থেকে ৬ পয়েন্ট নিয়ে সেমিফাইনালের স্বপ্ন বাঁচিয়ে রেখেছে অস্ট্রেলিয়া। অন্যদিকে আজকের ম্যাচে জিতলেও উইন্ডিজ সেমিতে খেলার সুযোগ নেই। অজিদের কাছে এ ম্যাচের গুরুত্ব অনেক। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়া ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যে দেখা হয়েছে পাঁচবার। এর মধ্যে দুবার জয়ের দেখা পেলেও তিনবারই হেরেছে অজিরা। সব মিলিয়ে দুদলের মোট দেখা হয়েছে ১৬ বার। এর মধ্যে অস্ট্রেলিয়ার জয় ৬ ম্যাচে, বাকি ১০ ম্যাচেই জয় তুলে নিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। টি-টোয়েন্টিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ অজিদের বিপক্ষে কতটা শক্তিশালী প্রতিপক্ষ তা এ পরিসংখ্যান থেকেই বোঝা যায়। তবে সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স হিসেব করলে এগিয়ে রয়েছে অস্ট্রেলিয়া। চলতি বিশ্বকাপে ফর্মে নেই ক্যারিবীয় ক্রিকেটাররা। চার ম্যাচের তিন ম্যাচ হেরে ইতোমধ্যেই আসর থেকে তাদের বিদায় নিশ্চিত হয়ে

গেছে। বাংলাদেশের বিপক্ষে মাত্র ৩ রানের জয় ছাড়া হেরেছে ইংল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা ও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে। এর মধ্যে ইংলিশদের বিপক্ষে ক্যারিবীয় লাইন আপের ধস হয়েছিল মাত্র ৫৫ রানে, যা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ মিশনে তৃতীয় সর্বনি¤œ রানের লজ্জা।
আজকের ম্যাচে অস্ট্রেলিয়া হট ফেভারিট। বোলিং-ব্যাটিং দুই বিভাগেই উইন্ডিজের চেয়ে এগিয়ে অ্যারন ফিঞ্চরা। বোলিং আক্রমণে লেগ স্পিনার অ্যাডাম জাম্পা, পেস আক্রমণে মিচেল স্টার্ক, জশ হ্যাজেলউডের গতির কাছে উড়ে যেতে পারে ক্যারিবীয়দের শক্ত ব্যাটিং লাইনআপ। ব্যাটিংয়ে অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ ও ডেভিড ওয়ার্নার, ম্যাক্সওয়েল, মিচেল মার্শরা জ¦লে উঠলে পাত্তা পাবে না ক্যারিবিয়ানরা। অস্ট্রেলিয়ার যদি আগে ব্যাট করে ১৫০-১৬০ রান করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সে রান তাড়া করে জিততে পারবে না। উইন্ডিজ দলে ক্রিস গেইল, ডোয়াইন ব্রাভো, কাইরন পোলার্ড, আন্দ্রে রাসেল, হেটমায়ার এবং নিকোলস পুরানের মতো ব্যাটসম্যান থাকলেও ফর্মে নেই অনেকে। নিকোলাস এবং হেটমায়ার ছাড়া অন্যরা সুবিধে করতে পারছেন না।
দিনের অপর ম্যাচে মাঠে নামবে ইংল্যান্ড এবং দক্ষিণ আফ্রিকা। টানা চার ম্যাচ জিতে আগেই সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছে ইয়ান মরগান বাহিনী। আজ প্রোটিয়াদের হারাতে পারলে গ্রুপ সেরা হবে তারা। অন্যদিকে দক্ষিণ আফ্রিকা জিতলে চার জয়ের সুবাদে সেমিফাইনালে প্রবেশের সুযোগ থাকবে তাদের। ওই দিকে অস্ট্রেলিয়া উইন্ডিজকে হারাতে পারলে অজিদের পয়েন্ট হবে ৮। এদিকে দক্ষিণ আফ্রিকা জিতলে তাদের পয়েন্ট হবে ৮। ইংল্যান্ডের পয়েন্ট আগে থেকেই ৮ রয়েছে। এখানে তিন দলের পয়েন্ট ৮ হলে রানরেটের কল্যাণে নির্ধারিত হবে দুই সেমিফাইনালিস্ট।
ইংল্যান্ড-দক্ষিণ আফ্রিকা ম্যাচে ফেভারিট ইয়ান মরগানরা। দক্ষিণ আফ্রিকা ও ইংল্যান্ড টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত পরস্পরের মুখোমুখি হয়েছে পাঁচবার। সে পরিসংখ্যানে অবশ্য এগিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা। পাঁচবারের দেখায় তিনবারই জয় পেয়েছে প্রোটিয়ারা। বাকি দুই দেখায় জয় পেয়েছে ইংলিশরা। বিশ্বকাপ নিয়ে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে দুদলের মধ্যে মোট দেখা হয়েছে ২০ বার। সেখানে অবশ্য এগিয়ে ইংলিশরা। দক্ষিণ আফ্রিকার ৯ জয়ের বিপরীতে ১১ জয় তুলে নিয়েছে ইংল্যান্ড। শেষ পাঁচবারের দেখায় সবকটিতে জয় পেয়েছে ইংলিশরা। এদিকে আইসিসি টি-টোয়েন্টি র‌্যাঙ্কিংয়েও বেশ এগিয়ে মরগানরা। দক্ষিণ আফ্রিকার আইসিসি টি-টোয়েন্টি র‌্যাঙ্কিংয়ে অবস্থান করছে পাঁচে, আর ইংলিশরা আছে শীর্ষস্থানে। তাছাড়া চলতি বিশ্বকাপেও দুর্দান্ত তারা। চার ম্যাচের একটিতেও হারের মুখ দেখেনি মরগানের নেতৃত্বাধীন দলটি। টানা চার ম্যাচে তারা হারিয়েছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ, বাংলাদেশ, অস্ট্রেলিয়া ও শ্রীলঙ্কাকে।
ইংলিশ ব্যাটসম্যান ব্যাট হাতে তুলে যাচ্ছেন ঝড়। জেসন রয়, ডেবিড মালান, জনি বেয়ারস্টো, ইয়ন মরগানরা ব্যাট হাতে ঝড় তুলতে পারেন প্রোটিয়াদের বিপক্ষে। তবে ঝড় থামানোর ভালো মন্ত্র জানেন প্রোটিয়া বোলাররাও। তাবরিজ শামসি, রাবাডাদের বোলিং তোপে ভেস্তে যেতে পারে ইংলিশ ব্যাটিং দুর্গ। তার ওপর প্রোটিয়া ব্যাটসম্যান রাসি ভ্যান ডার ডাসেন, অ্যাইডেন মারকারাম, ডেবিড মিলার, রিজা হ্যাড্রিকস, বাভুমা টেম্বারাও নিতে পারেন বিধ্বংসী রূপ। তবে চলতি বিশ্বকাপে বোলিংয়ের ধার দেখিয়ে যাচ্ছেন ইংলিশ বোলাররাও। আদিল রশিদ ও মইন আলির স্পিন ঘূর্ণিতে দিশাহারা অবস্থায় পড়েছেন বিপক্ষ দলের ক্রিকেটারা। বিশেষ করে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে মাত্র ৫৫ রানে গুঁড়িয়ে দেয়া দিনে বড় ভূমিকা রেখেছিল এই দুই স্পিনার। আদিল রশিদ ম্যাচটিতে মাত্র ২ রানে তুলে নেন ৪ উইকেট। আর মইন আলি ১৭ রানের বিনিময়ে তুলে নেন ২ উইকেট। সংযুক্ত আরব আমিরাতে ইংলিশ ফাস্ট বোলীয় শিবির তো আরো দুর্দান্ত। টাইমাল মিলস, ক্রিস ওকস, মার্ক উড, লিয়াম লিভিংস্টোনের গতিতে উড়ে যাচ্ছে বিপক্ষ দলের ব্যাটিং শিবির।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়