ডেঙ্গুতে ৯১ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত সাড়ে ২৩ হাজার

আগের সংবাদ

তৃণমূলে সংঘাত থামছেই না : সংঘর্ষে জড়িতদের তালিকা করছে আ.লীগ, অভ্যন্তরীণ সংঘর্ষে এক মাসে নিহত ৮, নির্বাচনী সংঘর্ষে ৩৮ নিহত

পরের সংবাদ

শেষটি রাঙিয়ে বিদায় নিলেন আসগর আফগান

প্রকাশিত: নভেম্বর ১, ২০২১ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ১, ২০২১ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

কাগজ ডেস্ক : হঠাৎ করে গত পরশু দিন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়ে দেয়ার ঘোষণা দেন আফগানিস্তানের সাবেক অধিনায়ক আসগর আফগান। তিনি বলেন, সুপার টুয়েলভে নামিবিয়ার বিপক্ষে ম্যাচটিই হবে তার শেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ। তার এমন হঠাৎ সিদ্ধান্তে অবাক হয়ে যান। ঠিক কেন বিশ্বকাপের মাঝপথে তিনি এমন সিদ্ধান্ত নিলেন তা অনেকের কাছে বোধগম্য ছিল না। তবে নিজের শেষ ম্যাচটি রাঙাতে ভুল করেননি আসগর আফগান। গতকাল বিশ্বকাপে নামিবিয়ার বিপক্ষে ২৩ বল খেলে ৩১ রান করেন তিনি।
শোনা গেছে আসগর আফগান অনেকটা ক্ষোভ থেকে হঠাৎ করে অবসর নেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। আফগানিস্তান তাদের প্রথম ম্যাচে খেলতে নামে পাকিস্তানের বিপক্ষে। সেই ম্যাচটিতে জয়ের খুব কাছে ছিল তারা। ওই ম্যাচে শেষ দুই ওভারে পাকিস্তানের প্রয়োজন ছিল ২৪ রান। ম্যাচটিতে ১৯তম ওভারটি করেন করিম জানাত। আর ওই ওভারেই চারটি ছক্কা মেরে ম্যাচ জিতিয়ে দেন আসিফ আলী।
করিম জানাত হলো আসগর আফগানের ছোট ভাই। আফগান সমর্থকরা দাবি করেন যে, আসগর আফগান নিজের ক্ষমতা দেখিয়ে করিম জানাতকে দলে নিয়েছেন। আর এমন কথা শোনার পরই নাকি আসগর অবসর নেয়ার সিদ্ধান্ত নেন।
২০০৯ সালের এপ্রিলে বেনোনির উইলোমুর পার্কে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে ম্যাচ দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পথচলা শুরু করেন আসগর। অভিষেকের পর অর্ধেকেরও বেশি সময় অধিনায়ক ছিলেন তিনি। জাতীয় দলের হয়ে ৪ টেস্ট, ৫৯ ওয়ানডে ও ৫২ টি-টোয়েন্টি মিলিয়ে মোট ১১৫ ম্যাচ অধিনায়কত্ব করেছেন আসগর।
আফগানিস্তানের ইতিহাসের প্রথম টেস্ট ম্যাচেও অধিনায়ক ছিলেন আসগর। ২০১৮ সালের ১৪ জুন ব্যাঙ্গালুরুতে ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে ক্রিকেটের রাজকীয় সংস্করণে অভিষেক হয় আফগানিস্তানের। আসগরের নেতৃত্বে আফগানিস্তান চারটি টেস্ট খেলে দুটি করে জয় ও পরাজয় দেখেছে।
যেখানে পুরো টেস্ট ক্যারিয়ারের গড় ৪৪, অধিনায়ক হিসেবে সেখানে গড় ৪৯! টেস্টের একমাত্র সেঞ্চুরিও করেছেন অধিনায়ক হিসেবে। টি-টোয়েন্টিতে এখন পর্যন্ত ৭৪ ম্যাচে ১১০.৩৭ স্ট্রাইক রেট ও ২৩.৭২ গড়ে আসগরের রান ১ হাজার ৩৫১।
কোনো সেঞ্চুরি না থাকলেও এ ফরম্যাটে চারটি হাফসেঞ্চুরি করেছেন সাবেক আফগান অধিনায়ক। চারটিই করেছেন অধিনায়ক হিসেবে। ওয়ানডে ক্যারিয়ারের একমাত্র সেঞ্চুরিটিও অধিনায়ক হিসেবে খেলে করেছে আসগর। অধিনায়কত্বের চাপ যে পারফরম্যান্সের ওপর তেমন একটা প্রভাব ফেলেনি তার প্রমাণ মেলে এসব পরিসংখ্যানেই।
টি-টোয়েন্টিতে সফল অধিনায়ক হিসেবে সবার উপরে আছেন আসগর আফগান। তার নামের সঙ্গে যুক্ত আছেন ভারতের সাবেক অধিনায়ক মাহেন্দ্র সিং ধোনি ও ইংল্যান্ডের বর্তমান অধিনায়ক ইয়ন মরগান। তারা প্রত্যেকে অধিনায়ক হিসেবে ৪২টি করে ম্যাচ জয় করেছেন।
টি-টোয়েন্টিতে মাহেন্দ্র সিং ধোনির সর্বোচ্চ জয়ের রেকর্ড ভেঙে তিনি ইতিহাস গড়েছিলেন। কিন্তু এরপরই অধিনায়কত্ব হারান তিনি। যদি তাকে অধিনায়কের পদ থেকে না সরিয়ে দেয়া হতো তাহলে তার জয়ের পরিমাণটা আরো বেশি হত। ধোনি ক্রিকেট ছেড়েছেন অনেক আগে। আসগর ছাড়লেন গতকাল। এখন তাই ২০ ওভারের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বোচ্চ জয়ের রেকর্ডটা যাবে ইংল্যান্ডের অধিনায়ক ইয়ন মরগানের দখলে।
এদিকে গতকাল আসগর আফগান যখন ব্যাট শেষে মাঠ থেকে বেরিয়ে যান তখন তাকে গার্ড অব অনার দেয় সতীর্থ খেলোয়াড়রা। এরপর আফগানিস্তান ফিল্ডিং করার আগে মাঠে নামার আগে কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি। ফলে তিনি মাঠে নামেন খানিক বাদে। তার এ কান্নার দৃশ্য স্টেডিয়ামের বড় পর্দায় দেখানো হলে স্টেডিয়ামে উপস্থিত থাকা দর্শকরাও কিছুটা আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন।
আসগর আফগান নিজের শেষ ম্যাচটিতে যেমন সমর্থকদের হতাশ করেননি, পুরো দলও তার বিদায় বেলায় তাকে হতাশ করেনি। নামিবিয়ার বিপক্ষে প্রথমে ব্যাট করে আফগানিস্তান ১৬০ রান করে। আফ্রিকার দেশটির বিপক্ষে এই রান তাড়া করা নামিবিয়ার পক্ষে অসম্ভবই ছিল। ফলে প্রথম ইনিংস শেষেই বলতে গেলে আফগানিস্তানের জয় নিশ্চিত হয়ে যায়। তবুও অফিসিয়ালি তো আর জয় নিশ্চিত হয়ে যায়নি। কিন্তু এ বিষয়টিও পরবর্তী সময় বোলাররা সেরে দেন খুব সুন্দর করে। ফলে আফগানিস্তান শেষ পর্যন্ত হেসে খেলে জয় তুলে নেয় আর তাদের সাবেক অধিনায়ক আসগর আফগানকে জয় উপহার দিয়ে তবেই বিদায় জানায়।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়