নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস আজ

আগের সংবাদ

কালো টাকার অবাধ সুযোগ! : বিদেশে পাচার হওয়া অর্থ ফেরাতে বিরল উদ্যোগ, কর দেয়ায় নিরুৎসাহিত হবে সৎ করদাতারা

পরের সংবাদ

জামালরা ১৪ বছরের আক্ষেপ ঘোচাতে চায়

প্রকাশিত: মে ২৯, ২০২২ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: মে ২৯, ২০২২ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

কাগজ ডেস্ক : এশিয়ান কাপ বাছাইয়ের আগে ১ জুন ইন্দোনেশিয়ার বিপক্ষে একটি প্রীতি ম্যাচের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ ফুটবল দল। এরপর সেখান থেকে মালয়েশিয়া এশিয়ান কাপ বাছাইয়ে অংশ নিতে যাচ্ছেন লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। ইতোমধ্যে গত শুক্রবার ইন্দোনেশিয়া পৌঁছে গেছে জামলরা। এশিয়ান কাপের বাছাইপর্বের জন্য নিজেদের ঝালিয়ে নেয়ার এই প্রীতি ম্যাচ দিয়েই জয়ের ধারায় ফিরতে চায় বাংলাদেশ।
বাংলাদেশ শেষ জয় পেয়েছে ২০২১ সালের নভেম্বরে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে। এরপর আরো পাঁচটি ম্যাচ খেললেও আর একটিতেও জয় পায়নি জামালরা। তিনটি ম্যাচে ড্র করেছে এবং দুটি ম্যাচে হেরেছে। সবশেষ ঘরের মাঠে মঙ্গোলিয়ার বিপক্ষে ০-০ গোলে ড্র করেছে। এবার সেই জয়খড়া কাটাতেই ইন্দোনেশিয়ার বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। তবে ইন্দোনেশিয়ার বিপক্ষে জয় পাওয়াটা কঠিনই হবে জামালদের। ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশের (১৮৮) চেয়ে ২৯ ধাপ এগিয়ে ইন্দোনেশিয়া (১৫৯)।
এর আগে আন্তর্জাতিক ফুটবলে ইন্দোনেশিয়ার বিপক্ষে ৬ বার মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদেশ। যার চারটিতেই জয় পেয়েছে ইন্দোনেশিয়া, একবার বাংলাদেশ এবং একটি ম্যাচ ড্র। দুই দেশ প্রথম মুখোমুখি হয় ১৯৭৫ সালে মালয়েশিয়ায় মারদেকা কাপে। ম্যাচটি ইন্দোনেশিয়া জিতেছিল ৪-০ গোলে। ১৯৮৪ সালে ইন্দোনেশিয়ায় এশিয়ান কাপ বাছাইয়ের ম্যাচে বাংলাদেশ হেরেছিল ২-১ গোলে। এরপর ১৯৮৫ সালে ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইয়ের দুই ম্যাচের একটি হেরেছিল বাংলাদেশ, একটি জিতেছিল। জাকার্তার ম্যাচে বাংলাদেশ হেরেছিল ২-০ গোলে। ঢাকার ম্যাচে জিতেছিল ২-১ গোলে। বাংলাদেশের গোল করেছিলেন কায়সার হামিদ ও আশরাফ উদ্দিন আহমেদ চুন্নু। একই বছর এপ্রিলে পাকিস্তানে অনুষ্ঠিত কায়েদ-ই আযম টুর্নামেন্টে দুই দলের ম্যাচ ১-১ গোলে ড্র হয়েছিল। বাংলাদেশ ও ইন্দোনেশিয়ার সর্বশেষ দেখা হয়েছিল ২০০৮ সালে মিয়ানমারে গ্র্যান্ড রয়েল চ্যালেঞ্জ কাপে। ওই ম্যাচে বাংলাদেশকে ২-০ গোলে হারিয়েছিল ইন্দোনেশিয়া। এই ম্যাচের পর আর দেখা হয়নি দুদশের। দীর্ঘ ১৪ বছর পর ১ জুন মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ ও ইন্দোনেশিয়া।
এশিয়ান কাপ বাছাইয়ে বাংলাদেশ ‘ই’ গ্রুপে। বাকি তিন প্রতিপক্ষই ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশের থেকে এগিয়ে। বর্তমানে বাংলাদেশ ১৮৮তম অবস্থানে; বাহরাইন ৮৯তম, তুর্কমেনিস্তান ১৩৪তম ও স্বাগতিক মালয়েশিয়া ১৫৪তম। বাছাইয়ে ৮ জুন বাহরাইনের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে মাঠে নামবে ক্যাবরেরার শিষ্যরা। এরপর ১১ জুন দ্বিতীয় ম্যাচে তুর্কমেনিস্থানের বিপক্ষে এবং শেষ ম্যাচে ১৪ জুন বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ মালেশিয়া।

এই চারটি ম্যাচকে ঘিরে ১৬ মে ক্যাম্প শুরু করে শিষ্যদের ৮ সেশন অনুশীলন করিয়েছেন জাতীয় ফুটবল দলের স্প্যানিশ কোচ হ্যাভিয়ের ক্যাবরেরা। তবে ইনজুরির কারণে সেরা দল নিয়ে না যেতে পারাটা তার কাছে আক্ষেপের। গোলরক্ষক শহীদুল ইসলাম, হেমন্ত ভিনসেন্ট বিশ্বাস, সাদ উদ্দিন, মতিন মিয়া, সুমন রেজা, মাশুক মিয়া জনি ও কাজী তারিক রায়হান ইনজুরির কারণে দলের সঙ্গে নেই। ফরোয়ার্ড নাবিব নেওয়াজ জীবন বাদ পড়েছেন শৃঙ্খলাজনিত কারণে।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়