নাসির-তামিমার বিয়েকাণ্ডে মামলা : অভিযোগ গঠনের আদেশ ৯ ফেব্রুয়ারি

আগের সংবাদ

ক্লিনিক্যাল গাইডলাইন চূড়ান্ত : যুক্ত হচ্ছে নতুন নতুন তথ্য, আইসোলেশনের সময়সীমা ৫ দিনের বেশি চান বিশেষজ্ঞরা

পরের সংবাদ

উন্নয়ন প্রকল্পের ধীরগতিতে বিরক্ত প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২৬, ২০২২ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ২৬, ২০২২ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

কাগজ প্রতিবেদক : জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) বৈঠকে উন্নয়ন প্রকল্পে ধীরগতি নিয়ে বিরক্তি প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেই সঙ্গে বারবার প্রকল্প সংশোধন বন্ধ করতেও সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা দিয়েছেন তিনি। গতকাল মঙ্গলবার একনেক পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান।
পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, উন্নয়ন প্রকল্পগুলোর ধীরগতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী একনেক সভায় বিরক্তি প্রকাশ করেছেন। বারবার যেন প্রকল্পগুলো সংশোধনে না আসে সে বিষয়েও নির্দেশনা দেন তিনি। গতকালের একনেক সভায় ১০টি প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়। এর মধ্যে পাঁচটি প্রকল্প সংশোধিত এবং পাঁচটি প্রকল্প নতুন। তাই প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, বারবার কেন প্রকল্পগুলোর সংশোধন করতে হয়। এটা যেন বারবার না হয় সেটা দেখতে হবে। সভায় পাঁচটি সংশোধনী প্রকল্পের মধ্যে একটি তৃতীয় দফায় সংশোধন হয়েছে। নতুন প্রকল্প ও সংশোধিত প্রকল্পের বাড়তি অর্থ মিলে ১০টি প্রকল্পে মোট ব্যয় হবে ৪ হাজার ৬২১ কোটি টাকা।
গতকালের বৈঠকে দেশের বাইরে ইউরিয়া কারখানা স্থাপনেও সম্মতি দিয়েছেন সরকারপ্রধান। মন্ত্রী আরো বলেন, একনেক সভায় দেশে একটি নতুন ইউরিয়া প্ল্যান্ট স্থাপনে ৭২৪ কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এ প্রকল্পে আলোচনাকালে একনেকের সদস্যরা অভিমত দেন, দেশীয় কারখানা স্থাপন করার পাশাপাশি যেসব দেশে কম মূল্যে প্রাকৃতিক গ্যাস পাওয়া যায় সেখানে আমরা গিয়ে ইউরিয়া কারখানা স্থাপন করতে পারি, যা অধিক লাভজনক হতে পারে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, এটা করলে ভালো হয়। অবশ্যই আমরাও করতে পারি, প্রাইভেট সেক্টরও বাইরে কারখানা করতে পারে। তবে তার আগে দেশে পর্যাপ্ত কারখানা লাগবে। কারণ নিজেদের যদি সংস্থান না থাকে, কোনো কারণে তারা যদি কারখানা বন্ধ করে দেয় তখন আমরা পাব কোথায়? বিনিয়োগকারীরা যদি বাইরে যেতে চায় যাক, কারখানা স্থাপন করে ইউরিয়া আনতে চায় আনুক। আমরাও দেশে সার কারখানা তৈরি করব।
বৈঠকে সেতু নির্মাণের ক্ষেত্রে নিচ দিয়ে নৌ চলাচল যাতে নির্বিঘœ থাকে সে বিষয়টি লক্ষ্য রাখতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। হাওরে যেখানে পানির কারণে রাস্তাঘাট করা সম্ভব নয়, সেখানে উড়ালসড়ক করারও নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়