ক্ষমা চেয়েছেন চীনা নাগরিক, টাকা চাননি সার্জেন্ট

আগের সংবাদ

জাতীয় পুরুষ বেসবল শুরু

পরের সংবাদ

যাত্রাবাড়ীতে নিহত ৩ : নিরাপদ সড়কের দাবিতে বিক্ষোভ শিক্ষার্থীদের

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২২, ২০২২ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ২২, ২০২২ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

কাগজ প্রতিবেদক : রাজধানীর যাত্রাবাড়ী থানার মাতুয়াইলে গতকাল শুক্রবার সকাল ৭টার দিকে বাসের ধাক্কায় অটোরিকশায় থাকা একই পরিবারের তিনজন নিহত হয়েছেন। নিহতরা হলেন- আব্দুর রহমান (৬৫), শারমিন (৩৮) ও রিয়াজুল ইসলাম (৪৫)। আহত সিএনজি চালকের নাম রফিক (৫০)। এ ছাড়া শাকিরা (৫) নামে এক শিশুও আহত হয়েছে।
এ দুর্ঘটনার প্রায় তিন ঘণ্টা পর নিরাপদ সড়কের দাবিতে আবারো রাস্তায় নেমে আসে শিক্ষার্থীরা। রামপুরা ব্রিজে বেলা ১২টা পর্যন্ত চলা এ বিক্ষোভ কর্মসূচিতে আশপাশের বিভিন্ন স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা অংশ নেয়। এতে নেতৃত্ব¡ দেন খিলগাঁও মডেল কলেজের উচ্চ মাধ্যমিকের শিক্ষার্থী ও কর্মসূচির মুখপাত্র সোহাগী সামিহা।
কর্মসূচির শুরুতে শিক্ষার্থীরা রামপুরা ব্রিজের হাতিরঝিল অংশের এক পাশে দাঁড়িয়ে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করেন। এ সময় নিরাপদ সড়কের দাবিতে বিভিন্ন পোস্টার তাদের হাতে শোভা পাচ্ছিল। কর্মসূচি শেষে নিরাপদ সড়কের দাবি জানিয়ে স্লোগান দিতে দিতে শিক্ষার্থীরা সেখান থেকে চলে যান।
কর্মসূচিতে অংশগ্রহণকারীরা বলেন, নিরাপদ সড়ক প্রতিষ্ঠাসহ ১১ দফা দাবি গত ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে বাস্তবায়নের আলটিমেটাম দেয়া ছিল। কিন্তু দাবিগুলো বাস্তবায়ন করা হয়নি। তাই আমরা আবার সড়কে নেমেছি। শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, প্রতিদিনই সড়কে প্রাণ ঝরছে। গত বৃহস্পতিবারও মগবাজারে দুই বাসের মাঝে চাপা পড়ে এক কিশোর হকার প্রাণ হারিয়েছে। এভাবে রাস্তায় আর কত প্রাণ ঝরবে? যতদিন দাবি বাস্তবায়ন করা না হবে, ততদিন এ কর্মসূচি চলবে। প্রয়োজনে আরো কঠোর হওয়ার কথাও জানান আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।
কর্মসূচির মুখপাত্র সোহাগী সামিহা বলেন, আমরা ২০ দিনের বেশি সময় দেয়ার পরও প্রশাসনের কোনো উদ্যোগ দেখিনি। সড়কে সাংবাদিকরাও মারা যাচ্ছেন। দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছেন শিক্ষার্থীরা, ছোট ছোট শিশুরা, সড়কে দেশের মেধাবী সম্পদ পিষে মারা যাচ্ছে। সড়কে দেশের মেধাবী সম্পদ পিষে মারা যাচ্ছেন। শ্রমজীবীরা মারা যাচ্ছেন। এভাবে আমরা আর বসে থাকতে পারি না। তাই যতদিন আমাদের দাবি বাস্তবায়ন না হবে ততদিন আমরা কর্মসূচি চালিয়ে যাব। পরবর্তী কর্মসূচি হিসেবে আমরা আলোকচিত্র প্রদর্শনীসহ বিভিন্ন ধারাবাহিক কর্মসূচি পালন করব। কর্মসূচিতে অংশ নেয়া বেসরকারি ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থী মোহাম্মদ আলী বলেন, একের পর এক সড়কে মৃত্যুর মিছিল চলছেই। সবকিছু নিয়ন্ত্রণের বাইরে, প্রশাসন কোনোভাবেই সড়কে শৃঙ্খলা আনতে পারছে না। তাই আমরা আবার সিদ্ধান্ত নিয়ে নিরাপদ সড়কের দাবিতে এসেছি।
এ বিষয়ে রামপুরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম বলেছেন, সকাল সাড়ে ১০টার দিকে আট থেকে ১০ জনের মতো শিক্ষার্থী রামপুরা ব্রিজের দক্ষিণ-পশ্চিম পাশে জড়ো হয়। পরে তাদের সঙ্গে আরো কিছু শিক্ষার্থী যোগ দেয়। এরপর তারা পোস্টার হাতে বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকে। সেখানে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচিও পালন করে শিক্ষার্থীরা। বেলা ১২টার দিকে তারা স্লোগান দিতে দিতে চলে যায়।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়