গ্যালারি কায়া : বাংলাদেশ-ভারতের শিল্পীদের নিয়ে ‘এপিক ১৯৭১’

আগের সংবাদ

স্বস্তির ভোটে আইভীর হ্যাটট্রিক : সব শঙ্কা উড়িয়ে সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ ভোট, শামীম ওসমানের কেন্দ্রে হেরেছে নৌকা

পরের সংবাদ

মরে গেলেও মাঠ ছাড়ব না : তৈমূর

প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৬, ২০২২ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ১৬, ২০২২ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি : লাখের বেশি ভোটের ব্যবধানে জয়ী হবেন বলে দাবি করেছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) নির্বাচনে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী এডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার। তিনি বলেন, আমি মরে গেলেও ভোটের মাঠ ছাড়ব না। আমার কোনো নেতাকর্মীও নির্বাচনী মাঠ ছাড়বে না। গতকাল শনিবার নগরীর মাসদাইরের নিজ বাসভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি।
তৈমূর বলেন, আমি প্রচার করছি না, সংবাদ সম্মেলন করছি। আমি কারো কাছে ভোট চাইনি। আমার ঘরে আগুন লাগিয়ে দিলে আমি কিছু বলব না? আমার লোকজন গ্রেপ্তার হচ্ছে, আমার গলায় আপনি ফাঁসি লাগিয়ে দেবেন আমি কথা বলতে পারব না, সেটা তো হবে না। এটা কোনো আচরণবিধি লঙ্ঘন নয়। মানুষের ওপর যত অত্যাচার হয় ভোটাররা তত ঐক্যবদ্ধ হয়। প্রশাসনকে বলব, জনগণের সেবা করা আপনাদের দায়িত্ব। বহুবার অনুরোধ করেছি। এখন বিবেকের কাছে ছেড়ে দিলাম। আগামীকালের ভোট যাই হোক, আমরা মাঠে থাকব। গ্রেপ্তার হলে হব- কিন্তু নির্বাচন চালিয়ে যাব।
এই স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী বলেন, আমার মূল দাবি হলো- নির্বাচনটা যেন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হয়। আমাদের যেসব নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে তাদের মুক্তি দিতে হবে। প্রত্যেক কেন্দ্রে আমি সিসি ক্যামেরা চাই। পুলিশ ও প্রশাসনের নিরপেক্ষ আচরণ চাই। ভোটারদের উদ্দেশে তৈমূর বলেন, সব ভোটার নির্বিঘেœ ভোট দিতে কেন্দ্রে যাবেন। তিনি বলেন, সিটি করপোরেশনের ১৩ নং ওয়ার্ডটি আমাদের এলাকা। পার্শ্ববর্তী ১২টি নম্বর ওয়ার্ডটি হলো সরকারি দলের এমপির এলাকা। সরকারি দলের এমপির এলাকাটি তাদের নিজেদের এলাকা। যদি নিজেদের এলাকাই তারা ঝুঁকিপূর্ণ মনে করেন তাহলে আমাদের করার কি আছে? তিনি বলেন, আমি কোনো কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ মনে করি না। পুলিশ, প্রশাসনের আচরণকে আমি ঝুঁকি মনে করি।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়