মাহমুদুর রহমান মান্না : খালেদা জিয়া এখন তিলে তিলে মৃত্যুর দিকে যাচ্ছেন

আগের সংবাদ

ওমিক্রন ঠেকাতে চার সুপারিশ

পরের সংবাদ

শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ : ৯ দফা না মানলে লাগাতার কর্মসূচি

প্রকাশিত: নভেম্বর ২৮, ২০২১ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ২৮, ২০২১ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

কাগজ প্রতিবেদক : নিরাপদ সড়ক ও গণপরিবহনের হাফ ভাড়ার দাবিতে তৃতীয় দিনের মতো রাজধানীর

বিভিন্ন এলাকায় বিক্ষোভ করেছেন শিক্ষার্থীরা। গতকাল ধানমন্ডি ২৭ নম্বর মোড়ে বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে ৯ দফা দাবি তুলে ধরেছেন তারা। আগামী মঙ্গলবারের মধ্যে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে এ দাবিগুলো মানা না হলে সারাদেশে কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলারও আল্টিমেটাম দিয়েছেন আন্দোলনকারীরা। একই সঙ্গে মঙ্গলবারের আগে রবি ও সোমবারও আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেয়া হয়েছে। পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের জন্য হাফ পাস কার্যকর করা না হলে বিআরটিএর অফিস ঘেরাও করার হুঁশিয়ারি দেয়া হয়েছে। এছাড়া দুর্ঘটনায় নিহত হওয়ার ঘটনায় দায়ের করা মামলা দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে পাঠানোর দাবি জানানো হয়েছে।
সরজমিন দেখা যায়, গতকাল দুপুর সাড়ে ১২টায় ধানমন্ডি ২৭ নম্বরে মিরপুর রোড অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করেন শিক্ষার্থীরা। প্রথমে ধানমন্ডি বয়েজের শিক্ষার্থীরা সড়কে বসে পড়েন। এরপর তাদের সঙ্গে যোগ দেন আইডিয়াল কমার্স কলেজ, মোহাম্মদপুর প্রিপারেটরি স্কুল ও কলেজ, দুয়ারীপাড়া মহাবিদ্যালয়, মুন্সী আব্দুর রউফ স্কুল এন্ড কলেজ এবং রেসিডেন্সিয়াল স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষার্থীরা। এ সময় ‘উই ওয়ান্ট জাস্টিজ’, ‘আমার ভাইয়ের রক্তের বিচার চাই’, ‘হাফ পাস ছাড়া বাস চলতে দিব না’সহ বিভিন্ন সেøাগান দিতে থাকেন তারা। একই সঙ্গে পূর্বের মতো সব ধরনের গাড়ির কাগজপত্র চেক করতে দেখা যায় আন্দোলনকারীদের। তাদের অবরোধের কারণে ধানমন্ডি ও আসাদগেটের বিভিন্ন সড়কে তীব্র যানজট দেখা দেয়। দুর্ভোগে পড়েন হাজারো মানুষ। পরে পুলিশের হস্তক্ষেপে দুপুর ২টার দিকে বিক্ষোভ শেষ করে সড়ক ছেড়ে দেন শিক্ষার্থীরা।
বিক্ষোভ চলাকালে শিক্ষার্থীদের তুলে ধরা ৯ দফা দাবিগুলো হলো- সড়ক দুর্ঘটনার মামলার বিচার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে করার পাশাপাশি নটর ডেম কলেজের শিক্ষার্থী নাঈমসহ সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত সব শিক্ষার্থীর পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। সড়ক দুর্ঘটনায় আহত সব যাত্রী ও পরিবহন শ্রমিকদের ক্ষতিপূরণ ও পুনর্বাসন নিশ্চিত করতে হবে। সড়ক, নৌ ও রেলপথে শিক্ষার্থীদের হাফ পাস নিশ্চিত করে প্রজ্ঞাপন জারি করতে হবে। বৈধ-অবৈধ যানবাহন চালকদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে বৈধতার আওতায় আনতে হবে। বিআরটিএর সব কার্যক্রমে নজরদারি ও জবাবদিহি নিশ্চিত করতে হবে। সারাদেশে ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা স্বয়ংক্রিয় আধুনিকায়ন এবং পরিকল্পিত নগরায়ণ সুনিশ্চিত করতে হবে। গণপরিবহনে নারীর প্রতি যৌন হয়রানি ও সহিংসতা বন্ধ করে নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। পরিকল্পিত বাস স্টপেজ ও পার্কিং স্পেস নির্মাণ এবং এর যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে।
ঘটনাস্থলে উপস্থিত ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) উপকমিশনার (ডিসি) বিপ্লব কুমার সরকার বলেন, নিরাপদ সড়কের দাবিতে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ করে শান্তিপূর্ণভাবেই আন্দোলন করতে থাকেন। পরে তাদের বুঝিয়ে সড়ক থেকে সরিয়ে দেয়া হয়।
এদিকে বাস ভাড়ায় হাফ পাসের দাবিতে রাজধানীর পুরান ঢাকায় বিক্ষোভ মিছিল করেছেন কবি নজরুল সরকারি কলেজ ও সরকারি শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজের শিক্ষার্থীরা। গতকাল শনিবার বেলা ১১টায় পুরান ঢাকার ল²ীবাজার থেকে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে শাঁখারীবাজার মোড় হয়ে রায়সাহেব বাজার মোড়ে গিয়ে অবস্থান নেন শিক্ষার্থীরা। এরপর প্রায় আধঘণ্টা ওই মোড় ব্লক করে সেøাগান দেন শিক্ষার্থীরা। এতে আশপাশের সড়কে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। বিক্ষোভ চলাকালে শিক্ষার্থীরা পুলিশের গাড়ি, সদরঘাটগামী বাসগুলোর লাইসেন্স চেক করেন।
বিক্ষোভকালে শিক্ষার্থীরা বলেন, শুধু বিআরটিসি বাসে হাফ পাস করা হচ্ছে। এতে আমাদের কোনো লাভ হয় নেই। কারণ সদরঘাটে বিআরটিসির কোনো বাস আসে না। তাই উন্নত দেশগুলোর মতো সব ধরনের বাসে শিক্ষার্থীদের জন্য হাফ পাস নিশ্চিত করতে হবে। তারা আরো বলেন, সরকারের কাছে আমাদের দাবি- আমাদের জন্য হাফ পাস নিশ্চিত করতে হবে। আমাদের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করা হয়, মেয়ে শিক্ষার্থীদের লাঞ্ছিত করা হয়, আমাদের দেখলে বাসের দরজা বন্ধ করে দেয়া হয়। এগুলো অতিসত্বর বন্ধ করতে হবে। এছাড়া শিক্ষার্থীরা নিরাপদ সড়ক নিশ্চিতকরণ ও নটর ডেম কলেজ ছাত্র নাইমসহ সড়কে শিক্ষার্থী মৃত্যুর দ্রুত বিচারের দাবি জানান। এছাড়া একই দাবিতে শান্তিনগর ও উত্তরা হাউজ বিল্ডিং এলাকাতেও বিক্ষোভ করেছেন একদল শিক্ষার্থী।
আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা গণমাধ্যমকে বলেন, তারা কোনো ধরনের ভাঙচুর করার জন্য সড়কে নামেননি। ২০১৮ সালের আন্দোলনের সময়ও ৯ দফা দাবি তুলেছিলেন তারা। সরকার বলেছিল, দাবিগুলো মানা হয়েছে। কিন্তু একটি দফাও এখন পর্যন্ত বাস্তবায়িত হয়নি। এবার ৯ দফা মানা না হলে আগামী মঙ্গলবার থেকে আরো কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়