দেশে ২ মাসে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৮৪৬

আগের সংবাদ

ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়ে সেমিতে অস্ট্রেলিয়া

পরের সংবাদ

নবাবগঞ্জে নিজ ঘরে পড়েছিল স্বামী-স্ত্রীর হাত-পা বাঁধা লাশ

প্রকাশিত: নভেম্বর ৬, ২০২১ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ৬, ২০২১ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

ছানা উল্যাহ, নবাবগঞ্জ (দিনাজপুর) থেকে : নবাবগঞ্জ উপজেলার পল্লীতে নিজ বাড়ি থেকে হাফিজুল ইসলাম (৭০) ও তার স্ত্রী ফেন্সিয়ারা বেগম (৫৫) নামে স্বামী-স্ত্রীর হাত-পা বাঁধা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল শুক্রবার দুপুর ১২টার দিকে উপজেলার ভাদুরিয়া ইউনিয়নের নির্শা কাজল দীঘি গ্রামে নিজ বাড়ি থেকে লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত ব্যক্তি ওই গ্রামের মৃত আহাদ আলীর ছেলে। নবাবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ফেরদৌস ওয়াহিদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
স্থানীরা জানান, নিহত হাফিজুল ইসলামের ছেলে-মেয়ে বিয়ে ও চাকরির সুবাদে অন্য জায়গায় থাকেন। বাড়িতে দুজনই থাকেন। সকাল সাড়ে ১০টার সময় পাশের গ্রামের এক ব্যক্তি ওই বাড়িতে গরুর মাংস দিতে আসেন। এ সময় সে তাদের ডাকাডাকি করলেও কোনো সাড়া না পেয়ে জানালা দিয়ে হাফিজুর রহমানের মরদেহ দেখে প্রতিবেশীদের ডেকে আনেন। পরে প্রতিবেশীরা এসে খবর দিলে পুলিশ এসে তাদের মরদেহ উদ্ধার করে। বিকালে দিনাজপুর সিআইডি, সিবিআই ও নবাবগঞ্জ থানা পুলিশের একটি দল লাশের সুরতহাল সম্পন্ন করে সন্ধ্যায় দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। সুরতহালের বিষয়ে নবাবগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) জানান, লাশের শরীরে কোনো আঘাতের চিহ্ন নেই। তবে শ্বাসরোধে তাদের হত্যা করা হয়েছে বলে সন্দেহ করা হচ্ছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত নবাবগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়েরে প্রস্তুতি চলছিল।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়