টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সফল পাঁচ অধিনায়ক : তাইফ রহমান রাফি

আগের সংবাদ

সড়কে নেই ‘ডিজিটাল’ ছোঁয়া

পরের সংবাদ

ঘরের মাঠে অপ্রতিরোধ্য আর্সেনাল

প্রকাশিত: অক্টোবর ২৪, ২০২১ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: অক্টোবর ২৪, ২০২১ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

কাগজ ডেস্ক : ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে গতকাল অ্যাস্টন ভিলাকে ৩-১ গোলের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে আর্সেনাল। এর মাধ্যমে নিজ ঘরের মাঠে লিগে নিজেদের খেলা শেষ সাতটি ম্যাচের মধ্যে পাঁচটিতেই জয় তুলে নিয়েছে তারা। কিন্তু কয়েক মাস আগেও ঘরের মাঠে ধুঁকছিল গানাররা।
এখন তারা নিজ মাঠে হয়ে গেছে সবচেয়ে অপ্রতিরোধ্য দল। এই জয়ে ৯ ম্যাচ শেষে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের নবমস্থানে উঠে এসেছে আর্সেনাল। অন্যদিকে এ ম্যাচটির আগে অ্যাস্টন ভিলা ছিল পয়েন্ট টেবিলের ১৩তম স্থানে। আর্সেনালের বিপক্ষে হারলেও পয়েন্ট টেবিলে তাদের অবস্থানের কোনো পরিবর্তন হয়নি।
এই কীর্তি গড়ার আগে নিজেদের ঘরের মাঠে পাঁচটি জয় তুলে নিতে তাদের খেলতে হয় ১৬টি ম্যাচ। ম্যাচের পর ম্যাচ ড্র করা বা হারের স্বাদ পেতে হয়েছে তাদের। এখন সেই জায়গা থেকে ঘুরে দাঁড়িয়েছে তারা।
ম্যাচটির প্রথমার্ধেই দুটি গোল করতে সমর্থ হয় আর্সেনাল। ফলে বড় ব্যবধান নিয়েই বিরতিতে যেতে সমর্থ হয় তারা। ম্যাচের প্রথমার্ধের ২৩ মিনিটের সময় থমাস পার্টে গোল করে দলকে প্রথমে এগিয়ে নেন। এরপর প্রথমার্ধের শেষ বাঁশি বাজার ঠিক আগ মুহূর্তে পিয়া-এমরিক অবামেয়াং গোল করেন।
যদিও তিনি প্রথমে পেনাল্টি থেকে গোল করার সুযোগ পান। কিন্তু তার সেই পেনাল্টি ঠেকিয়ে দেন অ্যাস্টন ভিলা গোলরক্ষক এমিলিয়ানো মার্টিনেজ। কিন্তু দলকে শেষ রক্ষা করতে পারেননি তিনি। কারণ অবামেয়াংই মার্টিনেজের ঠেকিয়ে দেয়া বল জালে জড়াতে সমর্থ হন। আর ম্যাচের প্রথমার্ধেই দুটি গোল তুলে নেয়ায়, তখনই শক্ত অবস্থানে পৌঁছে যায় আর্সেনাল। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই এমিলি স্মিথ রোয়ে দলের হয়ে তৃতীয় গোল করেন। ম্যাচের ৮২ মিনিটের সময় অ্যাস্টন ভিলার জ্যাকব রামসে গোল করে ব্যবধানটা একটু কমান আর সমর্থকদের উদযাপন করার একটু সুযোগ করে দেন। শেষ মুহূর্তে একটি গোল শোধ করায় ম্যাচে অ্যাস্টন ভিলার আর ফেরার কোনো সুযোগ ছিল না।
ম্যাচটিতে অবশ্য আর্সেনাল বুকায়ো সাকার মাধ্যমে আরেকটি গোল করতে পারত। ম্যাচের প্রথমার্ধে দুর্দান্ত একটি সুযোগ পান তিনি গোল করার। কিন্তু অ্যাস্টন ভিলার আর্জেন্টাইন গোলরক্ষক এমিলিয়ানো মার্টিনেজ তার করা শট ঠেকিয়ে দেন।
অন্যদিকে স্প্যানিশ লা লিগায় গতকাল ওসাসুনা ও গ্রানাডার ম্যাচটি ড্র হয়। যদিও ম্যাচটিতে জয়ের দিক দিয়ে এগিয়ে ছিল ওসাসুনা। কিন্তু বলতে গেলে তাদের কাছ থেকে জয় ছিনিয়ে নেয় গ্রানাডা। ম্যাচটির প্রথমার্ধের শেষ মুহূর্তে ওসাসুনা গোল করে এগিয়ে যায়। তাদের এগিয়ে নেন ইজিকুয়েল আভিলা।
প্রথমার্ধের শেষ মুহূর্তে গোল হজম করায় ওই সময় গোল শোধ করার কোন চেষ্টা করতে পারেনি গ্রানাডা। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই গ্রানাডা তাদের আক্রমণ বাড়িয়ে দেয়। আর গোল আটকানোর জন্য ওসাসুনাও মরিয়া হয়ে উঠে। তারাও সঙ্গে আরেকটি গোল করার জন্য মরিয়া চেষ্টা চালাতে থাকে। আর এমনটি করতে গিয়ে ম্যাচের ৭৩ মিনিটের সময় জোসে অ্যাঙ্গেল ফাউল করে বসেন। আর তাই তাকে রেফারি সরাসরি লাল কার্ড দেখিয়ে মাঠ থেকে বের করে দেন।
ম্যাচের এমন গুরুত্বপূর্ণ সময়ে একজন খেলোয়াড়কে হারিয়ে ভীষণ চাপে পড়ে যায় ওসাসুনা। তখন তারা গোল আরেকটি দেয়ার চেয়ে ওই এক গোলের ব্যবধান ধরে রাখার দিকেই মনোযোগ দেয়।
ম্যাচের প্রায় শেষ সময় পর্যন্ত এ ব্যবধান ধরে রাখতে সমর্থ হলেও শেষ দিকে গিয়ে গোলটি হজম করে বসে। ম্যাচের ৯০ মিনিটের সময় অ্যাঙ্গেল মন্তোরো গোল করে গ্রানাডাকে সমতায় ফেরান। ওসাসুনা যেহেতু শেষ দিকে গোল আটকানোর দিকে মনোযোগ দেয়।
ফলে তখন বলের নিয়ন্ত্রণ চলে যায় গ্রানাডার কাছে। শেষ পর্যন্ত পুরো ম্যাচটিতে গ্রানাডা ৫৬ ভাগ সময় বল তাদের দখলে রাখতে সমর্থ হয়।
অন্যদিকে ওসাসুনা ৪৪ ভাগ সময় বল তাদের দখলে রাখে। তবে আক্রমণে এগিয়ে ছিল ওসাসুনা। তারা সব মিলিয়ে ছয়বার গ্রানাডার জাল লক্ষ্য করে শট করে। অন্যদিকে গ্রানাডা চারবার ওসাসুনার জাল লক্ষ্য করে শট করে।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়