নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস আজ

আগের সংবাদ

কালো টাকার অবাধ সুযোগ! : বিদেশে পাচার হওয়া অর্থ ফেরাতে বিরল উদ্যোগ, কর দেয়ায় নিরুৎসাহিত হবে সৎ করদাতারা

পরের সংবাদ

সাবেক আইজিপি শহীদুল হক : আমলাদের কারণে পুলিশের সংস্কার হয়নি

প্রকাশিত: মে ২৯, ২০২২ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: মে ২৯, ২০২২ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

কাগজ প্রতিবেদক : পুলিশের সাবেক মহাপরিদর্শক এ কে এম শহীদুল হক বলেছেন, পুলিশের সাবেক মহাপরিদর্শক (আইজিপি) এ কে এম শহীদুল হক বলেছেন, বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে রাজনৈতিক শক্তি ও আমলাতন্ত্র কখনো পুলিশের পরিবর্তন চায় না। সরকারদলীয় লোকজন মনে করে পুলিশ তাদের লোক। তারা যা বলবে পুলিশ তা-ই করবে। সংসদ সদস্য চান, তিনি যা বলবেন, ওসি সেটাই করবেন। এসব চ্যালেঞ্জ ও প্রতিকূলতা মোকাবিলা করে কাজ করা খুবই কঠিন।
গতকাল শনিবার শাহবাগ জাতীয় জাদুঘরের কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে তার ৩২ বছরের কর্মজীবনের অভিজ্ঞতা নিয়ে রচিত ইউনিভার্সিটি প্রেস লিমিটেড (ইউপিএল) প্রকাশিত স্মৃতিকথা ও আত্মজীবনীমূলক বই ‘পুলিশ জীবনের স্মৃতি : স্বৈরাচার পতন থেকে জঙ্গি দমন’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।
বাংলা একাডেমির সভাপতি কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেন বইটির মোড়ক উন্মোচন করেন। অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিকী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের সাবেক অধ্যাপক সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম, পুলিশের সাবেক মহাপরিদর্শক ও সচিব মোহাম্মদ নুরুল হুদা, প্রধানমন্ত্রীর সাবেক মুখ্য সচিব কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী, ইউপিএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাহরুখ মহি উদ্দিন, সম্পাদক রাখাল রাহা।
বইটির পেছনের স্মৃতিকথা তুলে ধরে এ কে এম শহীদুল হক বলেন, পুলিশের কর্মক্ষেত্র বিশাল। জাতীয় সংসদ থেকে শুরু করে বস্তিতে পর্যন্ত পুলিশকে কাজ করতে হয়। কিন্তু পুলিশকে কাজ করতে হয় বৈরী আবহাওয়ায়। আমলারা সরকারের পরিবর্তন চায় না, আর সরকারদলীয় লোকজন মনে করে পুলিশ তাদের লোক। সবাই পুলিশকে তাদের প্রয়োজনে ও স্বার্থে ব্যবহার করতে চায়। কিন্তু আমি কখনো আপস করিনি।
তিনি বলেন, বিচারব্যবস্থার একটি অংশ পুলিশ। তারা নিরপেক্ষভাবে কাজ করতে না পারলে ক্রিমিনাল জাস্টিস সিস্টেম (ফৌজদারি বিচারব্যবস্থা) কখনো কার্যকর হবে না। পুলিশ নিরপেক্ষভাবে কাজ করতে না পারলে সুষ্ঠু তদন্ত সম্ভব নয়। পুলিশকে ঢেলে সাজানোর কথা বলা হয়। তবে এটি রাজনৈতিক কথা। কীভাবে ঢেলে সাজাতে হয়, সেটা আমি জানি না। সাবেক পুলিশপ্রধান বলেন, ‘পুলিশকে স্বাধীনভাবে কাজ করতে হলে আইনের সংস্কার প্রয়োজন। আমি দায়িত্বে থাকাকালে উদ্যোগ নিয়েছিলাম, কিন্তু হয়নি। সেখানে পুলিশ কমিশন গঠনের প্রস্তাব যেমন ছিল তেমনি পুলিশ কমপ্লেইন কমিশন গঠনেরও প্রস্তাব ছিল। পুলিশের বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ থাকলে একটি স্বাধীন স্বতন্ত্র সংস্থা সেটির তদন্ত করবে। কিন্তু আমলাদের কারণে সেটি হয়নি। আর রাজনীতিকরা তো চাইবেই না। রাজনৈতিক ও আমলাদের মানসিকতার পরিবর্তন না ঘটলে সুশাসনের কথাটি শুধু সেøাগানেই থাকবে।
শহীদুল হক বলেন, সবাই পুলিশের সেবা চায়, কিন্তু কেউ পুলিশকে পছন্দ করে না। পুলিশকে ভয় পায়, কিন্তু পুলিশকে ভালো জানে না। আমি বইয়ে লিখেছি, বাতাসের মধ্যে বসবাস করি বলে অক্সিজেনের অভাব অনুভব করি না। তেমনি সমাজে পুলিশ আছে বলে এর প্রয়োজনীয়তা অনুভব করি না। সরকার যদি ঘোষণা দেয়, দুই ঘণ্টার জন্য পুলিশের কোনো কার্যক্রম থাকবে না, তাহলে দেশে কী পরিস্থিতি হবে, সেটি আমরা অনুভব করি না।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়