র‌্যাব মহাপরিচালক : নাশকতার তথ্য নেই তবুও সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থায় রয়েছি

আগের সংবাদ

বাংলাদেশের গর্ব, বিশ্বের বিস্ময় : জাতীয়-আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রের জাল ছিন্ন করে যেভাবে ডানা মেলল স্বপ্নের পদ্মা

পরের সংবাদ

পাথরঘাটা : হরিণের মাংস মাথা ও চামড়া উদ্ধার

প্রকাশিত: জুন ২৪, ২০২২ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: জুন ২৪, ২০২২ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

পাথরঘাটা (বরগুনা) প্রতিনিধি : পাথরঘাটা সদর ইউনিয়নের হরিণবাড়িয়া এলাকা থেকে হরিণের ১৫ কেজি মাংস, ২টি মাথা, ৮টি পা, ভুড়ি জব্দ করা হয়েছে। জানা গেছে, চরলাঠিমারা গ্রামের নুর আলম তার মাছের ঘেরে পাহারা দেয়ার সময় দেখতে পান ৩ জন লোক একটি বস্তা নিয়ে মোটরবাইকযোগে দ্রুত পালিয়ে যাচ্ছে। তিনি সামনে এগিয়ে গেলে একটু পরে দেখতে পান আরো একজন লোক বস্তার মুখের কাছে তিনটি সুপারির চারা বেঁধে মোটরসাইকেলে ওঠার জন্য দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে। কাছে গেলে একই এলাকার সোনা মিস্ত্রির ছেলে বেলাল (৩০) কে দেখতে পান তিনি। এ ঘটনায় অভিযুক্তকে আটক করা করা হয়েছে।
নুর আলম জানান, ডাক চিৎকার শুনে মৃত আব্দুর রহমানের ছেলে শাহিন, প্রতিবেশী মজিবর মোল্লার স্ত্রী, বেল্লাল কাজির স্ত্রী ও মাসহ বেশ কজন প্রতিবেশী ছুটে এসে বিষয়টি দেখতে পান। সবার সামনে বস্তা খুলে দেখা যায় প্রায় ১৫ কেজি হরিণের মাংস, ৮টি পা, দুটি মাথা ও ভুঁড়ি। সংবাদ পেয়ে হরিণঘাটা বন বিভাগের বিট কর্মকর্তা আলামিন ঘটনাস্থলে এসে মাংস চামড়া মাথা জব্দ করেন। নুর আলম জানান, এ ঘটনা বন বিভাগ ও পুলিশকে জানিয়েছেন তিনি। এ বিষয়ে পাথরঘাটা রেঞ্জ অফিসের রেঞ্জ কর্মকর্তা মো. আবুল কালাম আজাদ বলেন, এ ঘটনায় আরো কারা জড়িত তা খুঁজে বের করব।

এদিকে একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র থেকে বলা হচ্ছে দীর্ঘদিন ধরে এই বেল্লাল সুন্দরবন থেকে হরিণ পাচার করে এনে হরিণবাড়িয়া এলাকা সংলগ্ন তার শ্বশুর হাবিব কাজীর বাড়িতে জবাই করে বিভিন্ন গোপন রুটে পাচার করে আসছিল। ওই চক্রের সঙ্গে বেল্লাল ছাড়াও জড়িত রয়েছে হাফিজুল, খলিল, সাদেকুরসহ বেশ কয়েকজন।
পাথরঘাটা বন বিভাগের রেঞ্জ কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ বলেন, জড়িতদের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়