তথ্যমন্ত্রী : টিআইয়ের রিপোর্ট রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে

আগের সংবাদ

নীরব মহামারি অসংক্রামক রোগ

পরের সংবাদ

লাইসেন্স ছাড়াই ৭ বছর ট্রাক চালায় জসিম

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২৮, ২০২২ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ২৮, ২০২২ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

কাগজ প্রতিবেদক : দশ বছর ধরে ট্রাক চালিয়ে আসলেও ২০১৮ সালে অর্থাৎ তিন বছর আগে লাইসেন্স করে চালক জসিম উদ্দিন (৩২)। আর রাজধানীর বেইলি রোডে ডিমবোঝাই পরপর দুটি ভ্যানকে ধাক্কা দেয়ার পর মালিকপক্ষই তাকে পালিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেয়। সেই মোতাবেক চট্টগ্রামে বন্ধুর বাসায় আত্মগোপনে যায় জসিম। তবে র‌্যাবের গোয়েন্দা জালে এড়াতে ব্যর্থ হয় সে। গত বুধবার চট্টগ্রামের চাঁদগাঁও এলাকা থেকে ঘাতক ট্রাকচালক জসিম উদ্দিনকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব।
রাজধানীর বেইলি রোডে ট্রাকের ধাক্কায় ভ্যানচালক নূর আলম (৩৩) নিহতের ঘটনায় ঘাতক চালককে গ্রেপ্তারের বিষয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান র‌্যাব মুখপাত্র কমান্ডার খন্দকার আল মঈন। রাজধানীর কারওয়ানবাজারে র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। র‌্যাব লিগ্যাল এন্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেন, গত সোমবার ভোরে রাজধানীর বেইলি রোডে একটি সিমেন্ট কোম্পানির ট্রাক বেপরোয়া গতিতে ডিম বহনকারী দুটি ভ্যানকে পেছন থেকে সজোরে ধাক্কা দেয়।
এতে ভ্যানচালক তুহিন (৩০) রাস্তায় ছিটকে পড়ে আহত হয় ও দ্বিতীয় ভ্যানের চালক নূর আলম ট্রাকের নিচে চাপা পড়ে ঘটনাস্থলে মারা যায়।

নিহত নূর আলম তেজগাঁও রেলস্টেশনের পাশে সপরিবারে ছোট একটি রুম ভাড়া নিয়ে বসবাস করত। তেজগাঁওয়ের আড়ত থেকে ডিম নিয়ে ভ্যানে করে যাত্রাবাড়ী ও জিনজিরায় দোকানে দোকানে সরবরাহ করে জীবিকা নির্বাহ করত সে। ঘটনার দিন আড়ত থেকে ডিম নিয়ে জিনজিরায় যাচ্ছিল সে। এ ঘটনায় করা মামলার পরিপ্রেক্ষিতে র?্যাব-৩ ও র?্যাব-৭ এর যৌথ অভিযানে চট্টগ্রামের চাঁদগাঁও এলাকা থেকে ঘাতক ট্রাকচালক জসিম উদ্দিনকে গ্রেপ্তার করা হয়।
তিনি আরো বলেন, গ্রেপ্তার জসিম প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে র?্যাবকে জানায়, সে প্রায় ১০ বছর ধরে গাবতলীর স্ট্যান্ড থেকে ইট-বালু বহনকারী ট্রাক চালিয়ে আসছিল। চলতি মাসের প্রথম দিকে একটি সিমেন্ট কোম্পানিতে মাসিক ৮ হাজার টাকা বেতনে ট্রাকচালক হিসেবে যোগ দেয়। গত ২৩ জানুয়ারি রাতে সিমেন্ট ভর্তি ট্রাকটি নিয়ে মুন্সীগঞ্জ থেকে উত্তরায় যায় সে। সিমেন্ট নামিয়ে ফেরার পথে ২৪ জানুয়ারি ভোরে বেইলি রোডে দুটি ডিমবোঝাই ভ্যানে সজোরে ধাক্কা দিলে ঘটনাস্থলে নূর আলম মারা যান। দুর্ঘটনার পর ট্রাকটি রেখে পালিয়ে তার সিমেন্ট কোম্পানির সঙ্গে যোগাযোগ করে জসিম। কর্তৃপক্ষের পরামর্শেই সে চট্টগ্রামে পালিয়ে বন্ধুর বাসায় আত্মগোপনে যায়। এক প্রশ্নের জবাবে কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেন, গত ১০ বছর ধরে ট্রাক চালিয়ে আসলেও জসিম ২০১৮ সালে লাইসেন্স করেন। আমরা মামলার ভিত্তিতে ঘাতক ট্রাকচালককে গ্রেপ্তার করেছি। মামলার তদন্তে তদন্ত কর্মকর্তা যদি ওই কোম্পানির সংশ্লিষ্টতা পান তবে তাদের বিরুদ্ধেও নিশ্চয়ই ব্যবস্থা নেবেন।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়