নৌপুলিশের অভিযান : ৩৫ লাখ মিটার জাল জব্দ

আগের সংবাদ

পঞ্চম দফায়ও সারাদেশে ব্যাপক সহিংসতা > ভোটে ঝরল আরো ১১ প্রাণ : পুলিশের গাড়িতে আগুন, আহত শতাধিক, আটক অর্ধশত

পরের সংবাদ

রোনালদোর হারের রাতে এমবাপ্পের হ্যাটট্রিক

প্রকাশিত: জানুয়ারি ৫, ২০২২ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ৫, ২০২২ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

কাগজ ডেস্ক : নতুন বছরের প্রথম ম্যাচেই হোঁচট খেয়েছে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। অন্যদিকে মেসি এবং নেইমারকে ছাড়াই জয়ে বছর শুরু করেছে এমবাপ্পের পিএসজি। গতকাল রাতে ভেনের মাঠে ৪-০ গোলে জিতেছে পিএসজি। সেরা তারকা লিওনেল মেসি করোনায় আক্রান্ত হয়ে মাঠের বাইরে। নেই আরেক সুপারস্টার নেইমারও। তবে তাদের ছাড়াও যে অপ্রতিরোধ্য প্যারিস সেন্ট জার্মেই (পিএসজি)। কিলিয়ান এমবাপ্পে একাই একশো তা ফের প্রমাণ করেছেন ভেনের বিপক্ষে হ্যাটট্রিক করে। এ দুর্দান্ত জয়ের পর পিএসজিকে ফরাসি কাপের শেষ ষোলোয় পৌঁছে দেন এই ফরাসি।
মাউরিসিও পচেত্তিনোর দলের হয়ে অপর গোলটি করেন প্রিসনেল কিম্পেম্বে। চতুর্থ স্তরের দলটির বিপক্ষে প্রথমার্ধে অবশ্য তেমন চেনা যায়নি পিএসজিকে। ক্রিসমাস আর নতুন বছরের ছুটি শেষে মাঠে ফিরেই মুদ্রার অন্য পিঠ দেখেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের রোনালদো। গতকাল রাতে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে নিজেদেরই মাঠে উলভারহ্যাম্পটনের বিপক্ষে বড্ড অচেনা মনে হয়েছে তাকে। নতুন বছরে ১-০ গোলের হার দিয়ে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে পয়েন্ট টেবিলের আট নম্বরে থাকা দলটির বছর শুরু হয়েছে। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে ১৪ বছর পর ইউনাইটেড অধিনায়ক হয়ে গতকাল মাঠে নেমেছিলেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। ম্যাচটা হেরে বসায় মাঠ ছাড়তে হয় পানসে মুখে। তার সামনেই স্মরণীয় এক জয় উদযাপন করেছে উলভস।
১৯৮০ সালের পর গতকাল প্রথমবার ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে লিগ ম্যাচে জয়ের দেখা পেয়েছে উলভারহ্যাম্পটন। ম্যাচটা মনে রাখার মতো ছিল হোয়াও মুতিনহোর। খেলার ৮২তম মিনিটে গোল করে নিজেকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যান তিনি। ৩৫ বছর ১১৭ দিনে বয়সে গোল। মুতিনহো সবচেয়ে বয়সি ফুটবলার হিসেবে গোল করলেন ম্যানইউর মাঠে। এই হারে ১৯ ম্যাচে ৩১ পয়েন্ট তালিকায় সাত নম্বরে থাকল রেড ডেভিলরা। ১৯ ম্যাচে উলভসের পয়েন্ট ২৮।
পয়েন্টে পিছিয়ে থাকলেও ম্যাচটা অনেক দিন মনে থাকবে উলভসের সমর্থকদের। আর মুতিনহো তো উড়ছেন আকাশে। ম্যাচ শেষে হাসিমুখে বলছিলেন, এই মাঠে এসে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের মতো বড় দলকে হারানোতে বিশেষ একটা তৃপ্তি আছে। যোগ্য দল হিসেবেই জিতেছি আমরা। সঙ্গে নিজের গোলটার জন্যও বেশ লাগছে।
অবশ্য ড্র হতে পারত ম্যাচটি। ৬৮তম মিনিটে অফসাইডে থাকার কারণে বাতিল হয় রোনালদোর গোল। আবার ব্রুনো ফের্নান্দেসের শট প্রতিপক্ষের গোলকিপারকে হারালেও পোস্টে লেগে ফিরে আসে। তারপরও তোপের মুখে এখন ম্যানইউ।
সাবেক মহাতারকা মাইকেল ওয়েন তো বলেই দিলেন, দেখুন, ম্যাচে হার-জিত থাকতেই পারে। কিন্তু দুর্ভাগ্যের বিষয় হলো- ওরা এখনো বুঝতেই পারছে না, তাদের কী প্রয়োজন এই পরিস্থিতি থেকে বেরিয়ে আসার জন্য। তাদের খেলা দেখে নিশ্চিত করেই ভক্তরা হতাশ।’
প্রিমিয়ার লিগে নতুন বছরের শুরুতে ২১ ম্যাচে ৫৩ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে রয়েছে ম্যানচেস্টার সিটি। সমান ম্যাচে ৪৩ পয়েন্ট নিয়ে এরপরই আছে চেলসি। ২০ ম্যাচে ৪২ পয়েন্ট তিনে লিভারপুল।
ভেনের বিপক্ষে ১৮ মিনিটের ব্যবধানে তিন-তিনটা গোল, ২০২২ সালকে এর চেয়ে ভালোভাবে হয়তো স্বাগত জানাতে পারতেন না এমবাপ্পে! বছরের প্রথম ম্যাচে চতুর্থ বিভাগের দলের বিপক্ষে ফরাসি কাপে মুখোমুখি হয় পিএসজি। ম্যাচে জয় ছাড়া অন্য কোনো ফল হলেই বরং চমকের বিষয় হতো। সেটা হয়নি। বলা ভালো, এমবাপ্পেই সেটা হতে দেননি। এমবাপ্পের হ্যাটট্রিকে ৪-০ গোলে হারিয়েছে পিএসজি। দুর্দান্ত হ্যাটট্রিকে মাত্র ২৩ বছর বয়সেই ক্যারিয়ারে দুই শতাধিক গোল করে ফেললেন এমবাপ্পে।
মেসির করোনা, নেইমার চোটে। পিএসজির বিখ্যাত ত্রিমূর্তির মধ্যে শুধু এমবাপ্পেই নেমেছিলেন। আনহেল দি মারিয়া বা মাউরো ইকার্দির মতো খেলোয়াড়দের নামানোই হয়নি এই ম্যাচে।
এমবাপ্পের পাশে পিএসজির আক্রমণভাগে খেলেছেন বার্সেলোনা থেকে আসা প্রতিভাবান তরুণ জাভি সিমোন্স আর মিডফিল্ডার জর্জিনিও ভাইনালডম। ম্যাচের ২৮ মিনিটে পর্তুগিজ লেফটব্যাক নুনো মেন্দেসের কর্নার থেকে দুর্দান্ত হেড করে দলকে এগিয়ে দেন কিমপেম্বে।
প্রথমার্ধে ভানেসের রক্ষণভাগ কোনোভাবে এমবাপ্পেকে আটকে রাখতে পারলেও পরের অর্ধে আর পারেনি। ৫৯ মিনিটে শুরু হয় এমবাপ্পের তাণ্ডব। রক্ষণভাগ থেকে কিমপেম্বের বাড়ানো এক বলে দৌড়ে নিজের প্রথম গোল করেন এই ফরাসি ফরোয়ার্ড।
৭১ মিনিটে সিমোন্সের পাসে দ্বিতীয় আর ৭৭ মিনিটে এরিক এবিম্বের সহায়তায় তৃতীয়। এ নিয়ে চলতি মৌসুমে ২৫ ম্যাচে ১৮ গোল করলেন এমবাপ্পে।
বার্নলির বিপক্ষে জেতা ম্যাচের দলে মাত্র একটি পরিবর্তন নিয়ে উলভারহ্যাম্পটনের বিপক্ষে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড কোচ রালফ রাংনিক। চোট পাওয়া হ্যারি ম্যাগুয়ারের জায়গায় গতকাল মাঠে নামেন ফিল জোন্স। হাঁটুর চোটের কারণে এ ডিফেন্ডার ইউনাইটেডের মূল দলে সর্বশেষ খেলেছেন প্রায় দুই বছর আগে। একাদশে তার ফিরতে লাগল ৭০৮ দিন। ফিটনেস ফিরে পেতে মাঝের এ দিনগুলোয় লড়েছেন জোন্স। খেলেছেন বয়সভিত্তিক দলের সঙ্গেও। রাংনিকের ডাক পেতেই মাঠে নেমে নিজেকে নিংড়েও দিলেন। কিন্তু নিয়তিতে দুর্ভাগ্য লেখা থাকলে ঠেকায় কে!
ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ম্যাচের তখন ৮২ মিনিট। বল ক্লিয়ার করতে জোন্সের হেড গিয়ে পড়ে জোয়াও মুতিনহোর পায়ে। উলভারহ্যাম্পটনের এই পর্তুগিজ মিডফিল্ডার প্রায় এক বছর ধরে গোল না পেলেও এ যাত্রায় তাঁর শট জাল খুঁজে পেল। গোল!
শেষ পর্যন্ত এই ১-০ ব্যবধানেই ঘরের মাঠে উলভসের কাছে হেরে বসে ইউনাইটেড।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়