লজিক প্রকল্প : রৌমারীতে সোলার পাম্প স্থাপন শুরু

আগের সংবাদ

চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় কী প্রস্তুতি : বিভিন্ন দেশের সঙ্গে অগ্রাধিকার ও মুক্তবাণিজ্য চুক্তি হবে > ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হবে

পরের সংবাদ

পুলিশের স্থাপনায় হামলার ঘটনায় মামলা : আসামি অজ্ঞাত কয়েক হাজার

প্রকাশিত: নভেম্বর ২৬, ২০২১ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ২৬, ২০২১ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

কাগজ প্রতিবেদক : গার্মেন্টস শ্রমিকের মৃত্যুর গুজবে রাজধানীর মিরপুরে পুলিশের স্থাপনায় হামলার ঘটনায় মামলা করেছে পুলিশ। গত বুধবার রাতে ট্রাফিক সার্জেন্ট আসিফ বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। মামলায় অজ্ঞাত কয়েক হাজার ব্যক্তিকে আসামি করা হয়েছে। এর আগে এক শ্রমিকের মৃত্যুর খবরে বুধবার পল্লবীর ট্রাফিক জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনারের কার্যালয় ও একটি পুলিশ বক্সে ভাঙচুর চালানো হয়। পরে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়, কোনো শ্রমিক নিহত হননি।
মিরপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান জানান, শ্রমিক মারা গেছে এমন গুজব শ্রমিকদের মধ্যে ছড়িয়ে পরিস্থিতি অস্থিতিশীল করা হয়। মৃত্যুর খবরটি গুজব। এই গুজব রাজনৈতিক ইন্ধনে ছড়ানো হয়েছে বলে মনে করছেন পুলিশ কর্মকর্তা হাফিজুর। তিনি বলেন, গুজব ছড়িয়ে পরিস্থিতি অস্থিতিশীল করার চেষ্টা চলছে। গার্মেন্টেসের শ্রমিক নয় এমন অনেক লোক লাঠিসোটা নিয়ে রাস্তায় নামতে দেখা গেছে। পুলিশের স্থাপনায় হামলার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবার বিষয়ে বিস্তারিত খতিয়ে দেখা হচ্ছে। মিরপুর-১০ নম্বর মোড়ে পল্লবীর সহকারী কমিশনারের কার্যালয় ভাঙচুর করা হয়। আগুনে পুড়িয়ে দেয় দুটি মোটরসাইকেল। কাফরুল থানায়ও হামলা করে তারা। হামলাকারীদের বিরুদ্ধে মামলা হলেও কাউকে গ্রেপ্তার করা যায়নি বলে জানান ওসি মোস্তাফিজুর রহমান।
গত মঙ্গলবার মিরপুর ১৩ নম্বর সেক্টরে পোশাক শ্রমিকদের বেতন ভাতার দাবিতে আন্দোলন চলাকালে একদল ‘ভাড়াটে সন্ত্রাসী’ তাদের মারধর করে। এতে ছয়জন আহত হন। তবে শ্রমিকদের কাছে খবর যায় একজন শ্রমিক মারা গেছেন। কিন্তু পুলিশ বলছে, দুজন আহত হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন। তারা কেউ মারা যাননি। এরপর বুধবার সকালে শ্রমিক মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে শ্রমিকরা বিক্ষুব্ধ হয়ে বিভিন্ন স্থাপনায় হামলা চালান। তবে শ্রমিক মৃত্যুর খবরটি রাজনৈতিক ইন্ধনে ছড়ানো হয়েছে বলে দাবি পুলিশের।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়