দেশে ২ মাসে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৮৪৬

আগের সংবাদ

ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়ে সেমিতে অস্ট্রেলিয়া

পরের সংবাদ

আওয়ামী লীগের সম্প্রীতি সমাবেশে বক্তারা : মুক্তিযুদ্ধের চেতনার পরিপন্থিরা সাম্প্রদায়িক হামলা করেছে

প্রকাশিত: নভেম্বর ৬, ২০২১ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ৬, ২০২১ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

চট্টগ্রাম অফিস : সারাদেশে সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত সম্প্রীতি সমাবেশে বক্তারা বলেছেন, যারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনার পরিপন্থি, তারাই সারাদেশে সাম্প্রদায়িক হামলা করে স¤প্রীতি নষ্ট করার ষড়যন্ত্র করেছিল। হিন্দু-মুসলমানের স¤প্রীতি নষ্ট করে তারা একটি এজেন্ডা বাস্তবায়ন করতে চেয়েছে। এই অপশক্তিকে প্রতিরোধ করতে হবে। যারা ধর্ম নিয়ে বাড়াবাড়ি করবে, স¤প্রীতি নষ্ট করার চেষ্টা করবে, তাদেরকে কঠোর হাতে দমন করা হবে।
গতকাল শুক্রবার বিকালে নগরীর আন্দরকিল্লা চত্বরে অনুষ্ঠিত সম্প্রীতি সমাবেশে বক্তারা এসব কথা বলেন। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন মহানগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি নঈম উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী, ইব্রাহিম হোসেন চৌধুরী বাবুল, খোরশেদ আলম সুজন, আলতাফ হোসেন চৌধুরী বাচ্চু, উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য সফর আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক নোমান আল মাহমুদ, চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, প্রচার সম্পাদক শফিকুল ইসলাম ফারুক, আইন বিষয়ক সম্পাদক শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী প্রমুখ। সমাবেশে নগরীর ১৫টি থানা এবং ৪৩ সাংগঠনিক ওয়ার্ডের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, আহ্বায়ক, যুগ্ম আহ্বায়করা নিজ নিজ ওয়ার্ডের ব্যানার, ফেস্টুন নিয়ে মিছিলসহকারে সমাবেশে যোগ দেন।
চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতা অর্জনে সব সম্প্রদায় যে অবদান রেখেছে, তা ইতিহাসের অংশ হিসেবে থাকবে। একে কলঙ্কিত করার অপচেষ্টা যারা করছে, তারা ষড়যন্ত্রকারী। সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা সৃষ্টির অপকৌশল মাত্র। আমরা একটি ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে ঐক্যবদ্ধ শক্তি, এই শক্তিকে সুরক্ষা করাই আমাদের পবিত্র দায়িত্ব ও কর্তব্য।
চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, সামাজিক অধিকার এবং ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে মানবাধিকারের মূল নীতিমালা সুরক্ষা করাই একমাত্র লক্ষ্য হতে হবে। সব ধর্মাবলম্বীর সহাবস্থান ঐতিহ্যগতভাবে প্রতিষ্ঠিত। এই ধারাকে সুরক্ষা করতে পারলেই আমাদের রাজনৈতিক অস্তিত্বের ভিত্তি সুদৃঢ় হবে। সম্প্রীতি শুধু সমাবেশ করে নয়, আমাদের অন্তরে ও মনোজগতের ভাবনাগুলোকে পরিবর্তন করতে হবে এবং সামনে নির্বাচন আমাদেরকে প্রত্যেকেরই প্রয়োজন আত্মশুদ্ধি অর্জনের।
সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনায় জড়িতদের বিচার আইনি প্রক্রিয়া নিশ্চিত করতে ক্ষতিগ্রস্ত সনাতনীদের সহযোগিতা করার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, আদালতে প্রত্যক্ষ সাক্ষীরা সাক্ষ্যপ্রমাণ না দিলে এ বিচারকাজ শেষ হবে না। আপনারা নির্ভয়ে আদালতে সাক্ষী দিবেন। আপনাদের পাশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আছেন। আওয়ামী পরিবার রয়েছে।
আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, এ হামলার প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে জড়িতদের বিচারকাজে সহযোগিতা করুন। বাংলাদেশ যেন একটি অসা¤প্রদায়িক দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়