র‌্যাব মহাপরিচালক : নাশকতার তথ্য নেই তবুও সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থায় রয়েছি

আগের সংবাদ

বাংলাদেশের গর্ব, বিশ্বের বিস্ময় : জাতীয়-আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রের জাল ছিন্ন করে যেভাবে ডানা মেলল স্বপ্নের পদ্মা

পরের সংবাদ

সংসদে এমপিদের আহ্বান : সরকার উৎখাতের চক্রান্ত নস্যাৎ করতে হবে

প্রকাশিত: জুন ২৪, ২০২২ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: জুন ২৪, ২০২২ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

কাগজ প্রতিবেদক : ভোটের আগে শেখ হাসিনা সরকারকে উৎখাত করার চক্রান্ত হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও মহাজোটের সংসদ সদস্যরা। গতকাল বৃহস্পতিবার একাদশ জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশনে ২০২২-২৩ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে এমন অভিযোগ করেন তারা। একই সঙ্গে এ চক্রান্ত নস্যাৎ করার আহ্বান জানান তারা।
জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদের সভাপতি হাসানুল হক ইনু বলেছেন, শেখ হাসিনার সরকার দেশের শত্রæ বিএনপি-জামায়াত ও ঘরের শত্রæ দুর্নীতিবাজদের আক্রমণের মুখে। ভোটের আগে সরকারকে উৎখাত করার চক্রান্ত করছে তারা।
অস্বাভাবিক সরকার আনার তাদের এ চক্রান্ত ধূলিসাৎ করে সাংবিধানিক ধারাবাহিকতা রক্ষা করতে হবে। দেশের টাকা পাচারকারীরা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও তার ছোট ভাই প্রয়াত আরাফাত রহমান কোকোর সাক্ষাৎ শিষ্য দাবি করে ইনু বলেন, এরা ডাবল চোর। এরা দেশের ভেতরে একবার চুরি করে, বিদেশে টাকা পাঠানোর জন্য আরেকবার চুরি করে। তিনি বলেন, বিদেশে পাচার করা টাকা আনার জন্য যে প্রস্তাবটা হয়েছে, দেশের আইনের সঙ্গে তা সাংঘর্ষিক।
তিনি বলেন, দেশের স্বাবলম্বী অর্থনীতিকে এগিয়ে নিতে হলে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, খাদ্য নিরাপত্তা, সামাজিক সুরক্ষা ও ইন্টারনেটের ব্যবহারকে মৌলিক অধিকার হিসেবে সংবিধানে অন্তর্ভুক্ত করে একটি স্থায়ী ব্যবস্থা গড়ে তোলা দরকার।
সেজন্য সংবিধান সংশোধন পর্যালোচনা কমিটি গঠন করা দরকার। সামাজিক শান্তি ও সমতা বিধানের জন্য সংখ্যালঘু ও আদিবাসী কমিশন গঠন করা দরকার। সংখ্যালঘু সুরক্ষা আইন দরকার। ইনু বলেন, মূল্যস্ফীতি আটকাতে হবে। গরিবদের কেনার ক্ষমতা থাকতে হবে। এজন্য নিত্যপণ্যের ওপর ভর্তুকি দিতে হবে। শ্রমিকদের রেশন কার্ড দিতে হবে। কম মূল্যে খাদ্য বিক্রি করতে হবে। বাজার সিন্ডিকেট ধ্বংস করতে হবে। দুর্নীতিবাজদের সিন্ডিকেট ধ্বংস করতে হবে।
বীর-উত্তম রফিকুল ইসলাম বলেন, আমরা বড় বাজেট দিয়েছি ঠিকই কিন্তু বাজেটে যে উন্নয়ন প্রকল্প নেয়া হয় তা কার্যকরের সময় ঠিক থাকে না।
বাজেট আমরা ঠিকমতো বাস্তবায়িত করতে পারি না। বাজেট যাতে সময়মতো বাস্তবায়ন সম্ভব হয় সে জন্য মন্ত্রণালয়গুলোকে আরো কার্যকরী পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান জানান তিনি। এডভোকেট কামরুল ইসলাম বলেন, বিএনপি আজ দেশে নানা ধরনের ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। তাদের সব ষড়যন্ত্র নস্যাৎ করে দেয়া হবে।
ওয়ার্কার্স পার্টির এমপি মুস্তফা লুৎফুল্লাহ বাজেটে ল্যাপটপ, প্রিন্টার, ওষুধের দাম কমানোর দাবি জানান। তিনি তামাকের ওপর ৪০ শতাংশ করারোপের দাবি জানান। বীরেন শিকদার বলেন, পদ্মা সেতুর ফলে দেশের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের জেলাগুলোতে প্রভূত উন্নয়ন সম্ভব হবে।
তানভীর ইমাম পদ্মা সেতুকে জাতীয় গর্বের প্রতীক হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ার আহ্বান জানান। সাইমুম সরওয়ার কমল তার বক্তব্যে কক্সবাজারে একটি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা ও লবণ আমদানি নীতিমালা তৈরির দাবি জানান।
শহিদুল ইসলাম বকুল বলেন, পাচারকৃত অর্থ দেশে আনা হলে দুর্নীতিকে প্রশ্রয় দেয়া হবে, এটা বন্ধ করতে হবে।
সংসদ সদস্য মাজহারুল হক প্রধান, মোসলেম উদ্দিন, মোতাহার হোসেন, পারভীন হক সিকদার, নুরুল ইসলাম, সামসুন নাহার, জিন্নাতুল বাকিয়া ও কাজিম উদ্দিন আহমেদ বাজেটের ওপর আলোচনায় অংশ নেন।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়