পাসপোর্ট ডিজির সঙ্গে ব্রাজিল রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ

আগের সংবাদ

ই-কমার্স গ্রাহকের টাকার কী হবে

পরের সংবাদ

না প্রবেশ, না প্রস্থান

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ৩, ২০২১ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: ডিসেম্বর ৩, ২০২১ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

হালকা শীতের দিন
বিছানার পাশে গাছগুলো শিখে গেছে
দীর্ঘ দুঃখের সাথে সমঝোতা।
প্রাণ আছে কি নেই,
নীরব।

ছালের ওপর বয়সের কাটা দাগ, এই শরীরেও অমন দাগ পড়েছে কী?
ভেবে দেখিনি।
মাঝেমাঝে পিঙ্গল হৃৎপিণ্ড হতে উঠে আসে জিহ্বায় তেতো স্বাদ,
অবশ্য আমি এতদিনে শিখে নিয়েছি গিলে নিতে কটু আস্বাদনগুলো।
কণ্ঠনালির নিচে তোমরা যে কণ্ঠস্বর খুঁজতে যাও
জেনো তোমাদের শীতার্ত হৃদয়ের সাথে আমার গলাও ভেঙে গেছে,
এই কণ্ঠ এখন বিক্ষিপ্ত আর এলোমেলো।
অমসৃণ খসখসে আমাকে তোমরা তদন্ত করতে বসে যাও।

আমি একদিন কাঁটাওয়ালা ঝোঁপেও খুঁজেছি সুগন্ধ,
ভাঙা ইট তুলে সারাতে চেয়েছি, বানাতে গিয়েছি সহজ রাস্তা।
তোমরা এসেছো আর ছোট ছোট চাবুকগুলো রেখে গেছো ডানে বামে
যেন আমি দেখতে পাই। স্মরণ করিয়ে দিতে চাও, কেবল তোমরাই সত্য!

আমি যথেষ্ট কারণ খুঁজেছি তারা এমন কেন,
কেন ওরা শুধু আশাপূর্ণের কড়ি গুনতে থাকে,
ভুল জুতা পরে আমি কিনা তাদের বাগান মাড়াতে চেয়েছি!
ঠোঁটের ওপর যে গোলাপ দেখি, জানি না ওদের আয়ু এত সংক্ষিপ্ত কেন!

উত্তেজিত হই না আর। বুঝে গেছি আমার শীতার্ততায় অনেকেই স্বস্তি পাও।
যা আনন্দিত করে তোমাদের, তেমন কোনো চেহারা আমায় দিতে পারো।
অনেক চরিত্রের মাঝে আমি কোথাও প্রবেশও করি না, প্রস্থানও না।
আত্মার শৈত্যের নিচে আমি এখন কেবলই এক গুজব।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়