নানা আয়োজনে প্রবারণা পূর্ণিমা উদযাপন

আগের সংবাদ

লো স্কোরিংয়ের রোমাঞ্চকর ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার জয়

পরের সংবাদ

বিশ্বকাপের টাই ম্যাচগুলো

প্রকাশিত: অক্টোবর ২৩, ২০২১ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: অক্টোবর ২৩, ২০২১ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

টি-টোয়েন্টি ম্যাচ মানেই উত্তেজনা। ৩ ঘণ্টার মধ্যে একটি ম্যাচ শেষ হয় বলে ওয়ানডে ও টেস্টকে পেছনে ফেলে দ্রুততম সময়ে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট সবচেয়ে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। ১৭ অক্টোবর পর্দা উঠেছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের। বিশ্বের সেরা ১৬টি দেশ নিয়ে শুরু হয়েছে শিরোপার লড়াই। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ সর্বশেষ হয় ২০১৬ সালে। সে হিসাবে দীর্ঘ পাঁচ বছর পর বিশ্বকাপ হচ্ছে। এ কারণে এখন মানুষের মধ্যে বিশ্বকাপ নিয়ে আগ্রহের পরিমাণটা বেশি। এখন থেকেই ক্রিকেটভক্তরা ভাবতে শুরু করেছেন, তাদের দেশ কেমন খেলবে।
টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের একটি নতুন আসর মানেই নতুন নতুন ঘটনার জন্ম হওয়া। আশা করা যাচ্ছে এবারো এর ব্যতিক্রম হবে না। এখন পর্যন্ত ২০ ওভারের ছয়টি বিশ্বকাপ হয়েছে। এসব বিশ্বকাপে ঘটেছে মনে রাখার মতো কিছু ঘটনা। এর মধ্যে অন্যতম হলো টাই হওয়া ম্যাচ। এখন পর্যন্ত হওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ছয়টি আসরে তিনবার দেখা গেছে টাই ম্যাচ।
বিশ্বকাপে প্রথম টাই ম্যাচটি হয় ২০০৭ সালের প্রথম বিশ্বকাপেই। আবার সেটি হয় দুই চিরপ্রতিদ্ব›দ্বী ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে গ্রুপ পর্বের ম্যাচে।
১৪ সেপ্টেম্বর ২০০৭ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার ডারবানে গ্রুপ পর্বের ম্যাচে খেলতে নামে ভারত ও পাকিস্তান। ওই ম্যাচে ভারত প্রথমে ব্যাট করে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৪১ রান করে। জবাবে পাকিস্তান পুরো ২০ ওভার খেলে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৪১ রানই করতে সমর্থ হয়। সে সময় টাই হলে নিয়ম ছিল বল আউটের মাধ্যমে জয়ী দল নির্বাচন করা হবে। প্রতি দল ছয়টি করে বল করবে। যে দল স্টাম্পে সবচেয়ে বেশি বল লাগাতে পারবে, সেই জিতবে। আর ওই নিয়মে তখন পাকিস্তানকে হারিয়ে ম্যাচটি জিতে নেয় ভারত। ওই ম্যাচের কথা দীর্ঘদিন দর্শকদের মনে গেঁথে থাকে।
বিশ্বকাপে দ্বিতীয় টাইয়ের দেখা মেলে ২০১২ সালে। সেবার টি-টোয়েন্টির বিশ্ব আসর বসে শ্রীলঙ্কায়। আর টাই ম্যাচের সাক্ষীও হয় শ্রীলঙ্কাই। গ্রুপ পর্বের ১০ নম্বর ম্যাচে পাল্লেকেলেতে নিউজিল্যান্ডের মুখোমুখি হয় তারা। সে ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৭৪ রান করে নিউজিল্যান্ড। জবাবে শ্রীলঙ্কা ৬ উইকেট হারিয়ে ১৭৪ রানই করে। ফলে ম্যাচ গড়ায় সুপার ওভারে।
নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সুপার ওভারে ব্যাট করে শ্রীলঙ্কা ১ উইকেট হারিয়ে ১৩ রান করে। জবাবে কিউইরা মাত্র ৭ রান করতে সমর্থ হয়। ফলে শ্রীলঙ্কা ঐতিহাসিক এক জয় তুলে নেয়। বিশ্বকাপের তৃতীয় টাই ম্যাচের দেখা মেলে ২০১২ সালেই। আর কাকতালীয়ভাবে এ ম্যাচেও ছিল নিউজিল্যান্ড। তাদের প্রতিপক্ষ ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ম্যাচটি ছিল গ্রুপ পর্বের। এ ম্যাচটিও হয়েছিল পাল্লেকেলেতে।
ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১৯ ওভার ৩ বল খেলে ১৩৯ রান করতে সমর্থ হয়। জবাবে নিউজিল্যান্ড ৭ উইকেট হারিয়ে একই রান করে। তাদের হাতে উইকেট থাকলেও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বোলারদের কারিশমায় তারা এ রান টপকাতে পারেনি। ফলে ম্যাচটি গড়ায় সুপার ওভারে। আর এই দ্বিতীয়বারও কপালটা খারাপ হয় নিউজিল্যান্ডের। তারা সুপার ওভারে গিয়ে হেরে যায়। সুপার ওভারে প্রথমে ব্যাট করে নিউজিল্যান্ড ১৭ রান করলেও ক্রিস গেইল দুটি ছক্কা হাঁকিয়ে ক্যারিবীয়দের জয় এনে দেন।
-আবু সুফিয়ান

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়