×
Icon এইমাত্র
কমপ্লিট শাটডাউন কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে কোটা আন্দোলনকারীরা বাংলাদেশ টেলিভিশনের মূল ভবনে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। বিটিভির সম্প্রচার বন্ধ। কোটা সংস্কার আন্দোলনে সারা দেশে এখন পর্যন্ত ১৯ জন নিহত কোটা ইস্যুতে আপিল বিভাগে শুনানি রবিবার: চেম্বার আদালতের আদেশ ছাত্রলীগের ওয়েবসাইট হ্যাক ‘লাশ-রক্ত মাড়িয়ে’ সংলাপে বসতে রাজি নন আন্দোলনকারীরা

বিনোদন

হোটেলে অগ্নিকাণ্ডের ভয়াবহতা নিয়ে যা বললেন চঞ্চল

Icon

কাগজ ডেস্ক

প্রকাশ: ০৯ জুলাই ২০২৪, ০২:৩৫ পিএম

হোটেলে অগ্নিকাণ্ডের ভয়াবহতা নিয়ে যা বললেন চঞ্চল

চঞ্চল চৌধুরী

আমেরিকার শিকোগোতে একটি পাঁচ তারকা হোটেলে গভীরে ঘুমে তলিয়ে টালিউডের একঝাঁক তারকা। ছিলেন চঞ্চল চৌধুরীও। সকালের স্নিগ্ধ আলোয় ঘুম ভাঙার কথা থাকলেও রাত ভোরে বেরসিক অ্যালার্ম বেজে ওঠে কর্কশ শব্দে। এর অর্থ, ‘জায়গাটি নিরাপদ নয়। হোটেলের কোনো একটি কক্ষে আগুন লেগেছে। প্রাণ বাঁচাতে পালাও।’

হুড়মুড়িয়ে উঠে বসেন স্বস্তিকা, শ্রাবন্তী, চঞ্চলরা। প্রাণ বাঁচাতে দৌড়ান সবাই। লক্ষ্য একটাই। হোটেল থেকে বের হওয়া। অধিকাংশ শিল্পী রাতপোশাকে সিঁড়ি ভেঙে ছুটছিলেন নীচে। শঙ্কিত কণ্ঠে একটাই প্রশ্ন, ‘প্রাণে বাঁচব তো?’

এবার চঞ্চল চৌধুরী সংবাদমাধ্যমকে জানালেন ভয়াবহ সে অভিজ্ঞতার কথা। তিনি বলেন, ‘ভোরবেলা হোটেলের প্রতিটি রুমের অ্যালার্ম বেজে গেল। কেউ হয়তো রুমে সিগারেট খেয়েছিল। ওইটা নিয়ে। কলকাতা ও ঢাকা থেকে একটা বিশাল টিম আসছি। সবাই শুধু পাসপোর্ট নিয়ে বের হতে পারলেই বেঁচে যায়। লাগেজ রেখে নিচে নেমে পড়ি। লিফট বন্ধ হয়ে গেল। পরে সিঁড়ি দিয়ে নামতে হয়। এই অ্যালার্ম ২০ মিনিটের মতো বাজতে থাকল। তারপর থামল। এর মধ্যে সবাই লবিতে জড়ো হলো। পরে অ্যালার্ম যখন থামল, তখন সবাই আবার সিঁড়ি বেয়ে যার যার রুমে যায়।’

চঞ্চল আরও বলেন, ‘পরে জানতে পেরেছি, এটা কারিগরি ত্রুটি ছিল, কোনো একটা কারণে বেজে ওঠে। সাধারণত হোটেলে ধূমপান করলে এভাবে বেজে ওঠে। পুরোপুরি টেকনিক্যাল সমস্যা। অত রাতে রিসিপশনেও কাউকে পেলাম না। যখন অ্যালার্ম বন্ধ হয়ে গেল, যার যার মতো করে যার যার রুমে চলে গেলাম আরকি।’

প্রসঙ্গত, আমেরিকার শিকাগোতে হয়ে গেল নর্থ আমেরিকান বেঙ্গলি কনফারেন্সের আয়োজনে ফিল্মফেয়ার অনুষ্ঠান। সেখানে যোগ দিতেই শিকাগোতে উড়ে গিয়েছিলেন চঞ্চল। সবকিছু ভালোয় ভালোয় শেষ হলেও ভোর রাতের অগ্নিকাণ্ডের অ্যালার্ম হাড় হিম করে দিয়েছিল সবার। তবে সবাই এখন সুস্থ স্বাভাবিক আছেন।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App