নতুন রাজনৈতিক দল নিবন্ধনের গণবিজ্ঞপ্তি

আগের সংবাদ

অনুমোদনহীন ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার : অভিযানে বন্ধ অনেক প্রতিষ্ঠান

পরের সংবাদ

বরিশাল বিসিক সড়কের বেহাল দশা, জনদুর্ভোগ

প্রকাশিত: মে ২৮, ২০২২ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: মে ২৮, ২০২২ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

এম কে রানা, বরিশাল থেকে : দীর্ঘ ১০ বছরেও উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি বরিশাল নগরীর ১নং ওয়ার্ডের কাউনিয়া বিসিক রোডে। বরিশাল বিসিক শিল্পনগরীতে যাতায়াতের প্রধান এ সড়কটিতে অসংখ্য খানাখন্দ। আর ইটপাথর উঠে যাওয়ায় এটি চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। এতে চরম দুর্ভোগে পড়েছে শিল্প মালিক ও সাধারণ মানুষ।
দীর্ঘদিন এ অবস্থায় থাকলেও সড়কটি উন্নয়নে কোনো উদ্যোগ গ্রহণ করেনি কর্তৃপক্ষ। আর জনপ্রতিনিধিরা বলছেন, বরাদ্দ না থাকায় সড়কের উন্নয়ন কাজ হচ্ছে না। জানা গেছে, দীর্ঘদিন পর বরিশাল বিসিক শিল্পনগরীতে উন্নয়নের ছোঁয়া লেগেছে। বিসিকের ভেতরের সড়ক ও ড্রেনেজ ব্যবস্থার উন্নয়ন হয়েছে। ফলে নতুন নতুন শিল্প কারখানা গড়ে উঠছে। এসব শিল্প কারখানার কাঁচামাল ও উৎপাদিত পণ্য দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আনানেয়া করা হয়। এছাড়া এক কিলোমিটারেরও কম দীর্ঘ এ সড়ক দিয়ে প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ যাতায়াত করে। অপরদিকে এ সড়ক দিয়ে একাধিক সরকারি বেসরকারি স্কুলে যাতায়াত করে কোমলমতি শিশু শিক্ষার্থীরা।
গত রবিবার শহীদ আরজুমনি স্কুলগামী শিক্ষার্থী নিয়ে একটি অটো সড়কে উল্টে পড়ে। এতে বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী আহত হয়। সড়কটি ভাঙাচোরা ও অসংখ্য খানাখন্দ থাকায় দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে সবাইকে। এমনকি স্থানীয় কেউ অসুস্থ হলে তাকে অনেক কষ্ট করে চিকিৎসা কেন্দ্রে নিতে হয়। এদিকে মাঝে মধ্যেই এ সড়কে চলাচলরত ছোট-বড় যানবাহন খানাখন্দে উল্টে গিয়ে দুর্ঘটনার শিকার হয়। এর প্রতিকার চেয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রতিনিয়তই বিভিন্ন পোস্ট দেয়া হয়। যাতে ভুক্তভোগীরা জনপ্রতিনিধিদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছেন। আমিনুর রহমান নামে একজন লিখেছেন ‘রাস্তাটি খুব জরুরি ভিত্তিতে মেরামত করা দরকার। মানুষের অবর্ণনীয় ভোগান্তি লাঘব করার জন্য যথাযথ কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।’ আনিস রহমান নামে একজন লিখেছেন, ‘আসছে বর্ষায় দুর্ঘটনার হার আরো বাড়বে’। নজরুল ইসলাম খান নামে একজন লিখেছেন, ‘আমি প্রায়শই এই রাস্তা দিয়ে যাওয়া আসা করি এবং যারপরনাই কষ্ট অনুভব করি আর মনে মনে প্রশ্ন করি, এই জায়গাটি দেখার মতো কি কেউ নেই?’
বরিশাল সিটি করপোরেশনের মেয়রকে উদ্দেশ করে এসএম জাহিদ নামে একজন ফেসবুকে লিখেছেন, ‘কার জন্য আমাদের এত কষ্ট দিচ্ছেন নগরপিতা? তিনি আরো লিখেছেন, কোনো মায়ের বুক খালি হওয়ার আগে বিসিক রোড সংস্কার করুন। প্লিজ আমাদের কথা ভাবুন আমরা আপনার নাগরিক।
স্থানীয় বাসিন্দা আলম তালুকদার বলেন, এ সড়কটি সংস্কার করা এখন সময়ের দাবি। সামান্য বৃষ্টি হলেই রাস্তা দিয়ে যানবাহন তো দূরের কথা হেঁটেও চলাচল করা যায় না। সড়কটির জন্য আমাদের কষ্টের শেষ নেই।
বিসিক শিল্পনগরীর ব্যবসায়ীরা জানান, ভারী যানবাহন চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ায় তাদের পণ্য আনানেয়ার খরচ বেড়ে যায়। তাছাড়া সময়মতো পণ্য উৎপাদনও ব্যাহত হচ্ছে।
স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর আমির হোসেন বিশ্বাস বলেন, বরাদ্দ না পাওয়ায় সড়কটি সংস্কার করা যাচ্ছে না। বরাদ্দ পেলেই সড়ক সংস্কার করা হবে।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়