নৌপুলিশের অভিযান : ৩৫ লাখ মিটার জাল জব্দ

আগের সংবাদ

পঞ্চম দফায়ও সারাদেশে ব্যাপক সহিংসতা > ভোটে ঝরল আরো ১১ প্রাণ : পুলিশের গাড়িতে আগুন, আহত শতাধিক, আটক অর্ধশত

পরের সংবাদ

২০ বছরের সমৃদ্ধির অগ্রযাত্রা ব্র্যাক ব্যাংকের

প্রকাশিত: জানুয়ারি ৫, ২০২২ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ৫, ২০২২ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

দেশের উন্নয়নে আরো অবদান রাখার দৃঢ় অঙ্গীকারের মাধ্যমে সমৃদ্ধির ২০ বছর উপযাপন করেছে ব্র্যাক ব্যাংক। অদম্য মনোবলে অসীম সম্ভাবনার দিকে দৃপ্ত পায়ে সামনে এগিয়ে চলছে বাংলাদেশ। শিল্পায়নের ফলে ধারাবাহিকতা বজায় রেখে জাতীয় প্রবৃদ্ধি অর্জিত হচ্ছে। মাথাপিছু আয়ও বৃদ্ধি পাচ্ছে। গত দুই দশক ধরে ব্যক্তি ও উদ্যোক্তা পর্যায়ে উৎকর্ষ ব্যাংকিং সেবা ও সহজ অর্থায়ন সুবিধা প্রদানের মাধ্যমে তাদের সমৃদ্ধির সঙ্গে আছে ব্র্যাক ব্যাংক। এভাবে দেশের উন্নয়নের অংশীদার হিসেবে কাজ করে যাচ্ছে ব্র্যাক ব্যাংক।
ব্র্যাক ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা স্যার ফজলে হাসান আবেদ, কেসিএমজির ভিশনকে ধারণ করে প্রত্যন্ত অঞ্চলের ক্ষুদ্র ও মাঝারি খাতের (এসএমই) উদ্যোক্তাদের জন্য বাংলাদেশে প্রথম জামানতবিহীন এসএমই ঋণ প্রবর্তন করে ব্র্যাক ব্যাংক। এ সহজ ঋণের ফলে তৃণমূল পর্যায়ের এসএমই উদ্যোক্তা ব্যবসা সম্প্রসারণ করতে ও দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে পেরেছে। ব্র্যাক ব্যাংক বর্তমানে ক্ষুদ্র ও মাঝারি খাতের উদ্যোক্তাদের জামানতবিহীন ঋণ প্রদানে শীর্ষ অবস্থানে আছে। ব্যাংকের এসএমই ঋণের বিশেষত্ব হচ্ছে ৭০ শতাংশের বেশি ঋণ যাচ্ছে প্রত্যন্ত গ্রামীণ এলাকায়, যার মাধ্যমে গ্রামীণ অর্থনীতি চাঙ্গা হচ্ছে আর সৃষ্টি হচ্ছে কর্মসংস্থান।
দেশের মানুষকে তাদের জীবনের লক্ষ্যপূরণে ও সমৃদ্ধি অর্জনে সহায়কের ভূমিকা পালন করছে ব্র্যাক ব্যাংক। ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের অমিত সম্ভাবনা পূরণে সাহায্য করে আসছে। জাতিসংঘের সাসটেন্যাবল ডেভেলপমেন্ট গোলের (এসডিজি) সঙ্গে সঙ্গতি রেখে ব্যবসা পরিচালনা করে এ কাজ সম্পন্ন করেছে। এর ফলে সব মানুষের জন্য টেকসই পৃথিবী নিশ্চিত হচ্ছে। মানুষের স্বপ্ন বাস্তবায়নে আগামী দিনেও কাজ করে যাবে ব্র্যাক ব্যাংক। ছাড়িয়ে যাবে সীমানা।
ব্র্যাক ব্যাংক ইতোমধ্যেই বাংলাদেশের আর্থিক খাতে অগ্রগামী প্রতিষ্ঠান হিসেবে দৃঢ় ও মজবুত ভিতের ওপর প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। সবচেয়ে বেশি মার্কেট ক্যাপিটালাইজেশন ও ব্যাংকিং খাতের মধ্যে সর্বোচ্চ আন্তর্জাতিক বিনিয়োগকারীদের শেয়ারহোল্ডিং এবং আন্তর্জাতিক ক্রেডিট রেটিং সংস্থা- এসএন্ডপি ও মুডি’জ থেকে প্রাপ্ত দেশের সব ব্যাংক থেকে উৎকৃষ্ট ক্রেডিট রেটিং ব্র্যাক ব্যাংকের উচ্চমানের ব্যবস্থাপনা ও কর্মদক্ষতার প্রতিফলন বহন করে। প্রায় সব আর্থিক সূচকে ব্র্যাক ব্যাংক ব্যাংকিং ইন্ডাস্ট্রিতে এগিয়ে আছে। এছাড়া সুশাসন ও মূল্যবোধ ভিত্তিক ব্যাংকিংয়ে একটি অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। বাংলাদেশ চলতি দশকের মধ্যেই মধ্যম আয়ের দেশে ও ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশে পরিণত হওয়ার লক্ষ্য নিয়ে এগোচ্ছে। অন্তর্ভুক্তিমূলক ব্যাংকিং ও উদ্যোক্তা সৃষ্টির মাধ্যমে রাষ্ট্রের এ অগ্রযাত্রায় সহায়কের ভূমিকা পালন করতে চায় ব্র্যাক ব্যাংক।
বিশ বছরের সমৃদ্ধির পথচলা সম্পর্কে ব্র্যাক ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সেলিম আর এফ হোসেন বলেন, উন্নত প্রোডাক্ট ও সার্ভিস, ধারাবাহিক আর্থিক ফলাফল, করপোরেট সুশাসন, নিয়মানুবর্তিতা, নৈতিকতা ও স্বচ্ছতার সাহায্যে ব্র্যাক ব্যাংক ইতোমধ্যেই ব্যাংকিং খাতে অনন্য স্থান অর্জন করেছে। ব্র্যাক ব্যাংকের মেধাবী ও নিবেদিতপ্রাণ কর্মকর্তা ও নতুন উদ্ভাবনী প্রযুক্তির ওপর নির্ভর করে সম্মিলিত প্রচেষ্টায় আমরা ব্যাংককে মার্কেট শেয়ারে সুউচ্চতর স্থানে নিয়ে যেতে সংকল্পবদ্ধ। একই সঙ্গে আমাদের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান স্যার ফজলে হাসান আবেদ, কেসিএমজির আর্থিক অন্তর্ভুক্তি ও মূল্যবোধ ভিত্তিক উন্নয়ন কার্যক্রমের লালিত স্বপ্ন ধারণ ও পালন করে এগিয়ে নিতে যেতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ।
তিনি আরো বলেন, এই শুভক্ষণে আমাদের প্রতি আস্থা রাখার জন্য সম্মানিত গ্রাহক ও শেয়ারহোল্ডারদের এবং দিকনির্দেশনা প্রদানের জন্য পরিচালনা পর্ষদ ও নিয়ন্ত্রক সংস্থার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করি। সর্বোপরি ব্যাংকের সর্বস্তরের কর্মকর্তাদের আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই। সবার আস্থা ও সমর্থনের কারণেই আমরা আজ এ পর্যায়ে আসতে পেরেছি। বিজ্ঞপ্তি।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়