নৌপুলিশের অভিযান : ৩৫ লাখ মিটার জাল জব্দ

আগের সংবাদ

পঞ্চম দফায়ও সারাদেশে ব্যাপক সহিংসতা > ভোটে ঝরল আরো ১১ প্রাণ : পুলিশের গাড়িতে আগুন, আহত শতাধিক, আটক অর্ধশত

পরের সংবাদ

বাণিজ্যমেলা জমে উঠবে প্রত্যাশা ব্যবসায়ীদের

প্রকাশিত: জানুয়ারি ৫, ২০২২ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ৫, ২০২২ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

কাগজ প্রতিবেদক : স্থায়ী ঠিকানা রাজধানীর পূর্বাচলে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা (ডিআইটিএফ)। মেলার চতুর্থ দিন গতকাল মঙ্গলবার মেলা প্রাঙ্গণ ঘুরে দেখা গেছে, ক্রেতা-দর্শনার্থীরা এখনো কম। অবশ্য বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে মানুষের সমাগমও বাড়তে থাকে। তবে কিছুদিনের মধ্যে মেলা জমে উঠবে, এমনটাই প্রত্যাশা ব্যবসায়ীদের।
করোনা ভাইরাসের কারণে এবারের বাণিজ্যমেলায় স্টলের সংখ্যা কমেছে। মেলায় রয়েছে ১১টি প্রতিষ্ঠানের বিদেশি স্টল। ভারত, পাকিস্তান, থাইল্যান্ড, ইরান, তুরস্কসহ আশপাশের দেশগুলো থেকে আসবেন ব্যবসায়ীরা। সব মিলিয়ে থাকছে প্রায় ২২৫টি স্টল। এদিকে দূরত্বের কারণে মেলার শুরু থেকে দর্শনার্থীর সংখ্যা কম বলে জানিয়েছেন অংশগ্রহণকারীরা। তারা জানান, রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের মতো মেলার শুরু থেকে তেমন লোকসমাগম নেই। মেলার প্রথম দিকে রূপগঞ্জ ও আশপাশের এলাকার দর্শনার্থীরা বেশি আসছেন।
গতকাল মেলা ঘুরে দেখা যায়, এখনো অনেক স্টলে শেষ মুহূর্তের কাজ চলছে। অনেক স্টল পুরোপুরি সাজানো হয়নি। তারা জানান, দুয়েক দিনের মধ্যে সব স্টল চালু হবে। বরাবরের মতো এবারো মেলায় বঙ্গবন্ধু প্যাভিলিয়ন বানানো হয়েছে। মুজিববর্ষ, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণ ইত্যাদি বিষয়কে তুলে ধরে এবারের বঙ্গবন্ধু প্যাভিলিয়ন নান্দনিকভাবে তৈরি করা হয়েছে।
আয়োজক সংস্থা ইপিবি জানিয়েছে, এ প্যাভিলিয়নের মাধ্যমে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস, স্বাধিকার আন্দোলন ও স্বাধীনতা সংগ্রামে বঙ্গবন্ধুর অবদান এবং তার বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবন তুলে ধরা হবে। যুদ্ধবিধ্বস্ত বাংলাদেশকে উন্নয়নের ধারায় এগিয়ে নেয়ার প্রকৃত ইতিহাসও নতুন প্রজন্মের মাঝে তুলে ধরার প্রয়াস নেয়া হয়েছে।
বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সূত্র জানিয়েছে, এবারই প্রথমবারের মতো ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে বাংলাদেশ-চায়না ফ্রেন্ডশিপ এক্সিবিশন সেন্টারে। কুড়িল ফ্লাইওভার থেকে মেলা প্রাঙ্গণ পর্যন্ত তিনশ ফিট সড়কটির প্রায় ১০ কিলোমিটার সড়ক চার লেনে যান চলাচলের জন্য প্রস্তুত করা হয়েছে। চালু হয়েছে বিআরটিসির ডাবল ডেকার ৩০টি লাল বাস। নতুন জায়গায় বাণিজ্যমেলা আয়োজনে নানা প্রতিবন্ধকতায় পড়তে হয়েছে ইপিবিকে।
ইপিবি জানিয়েছে, কেন্দ্রের ভেতর মোট ৩০৯টি স্টল আছে। তবে প্রথমবার নতুন ভেন্যু এবং করোনাকাল বিবেচনায় বসছে দেশি-বিদেশি ২২৫টি স্টল।
ইপিবি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, মেলা কেন্দ্রের লেআউটে কিছুটা সংশোধন করা হয়েছে। কেন্দ্রের ভেতরে-বাইরে মিলে আপাতত ২২৫টি স্টল করা হয়েছে। এর মধ্যে ভেতরে ১৫৪টি, বাইরে ৭১টি স্টল। ধারণক্ষমতা বেশি থাকলেও করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে পর্যাপ্ত জায়গা ফাঁকা রাখা হয়েছে। এর মধ্যে ২৪টি প্রিমিয়াম স্টল রাখা হয়েছে।
এদিকে বাণিজ্যমেলায় আগতদের গাড়ি রাখার জন্য বৃহৎ পরিসরে পার্কিং সুবিধা রয়েছে। পার্কিংয়ের জন্য রাজউকের পানির প্ল্যান্ট ভাড়া নেয়া হয়েছে। সেখানে রাখা যাবে ১ হাজার গাড়ি। সেন্টারের দোতলা পার্কিং বিল্ডিংয়ের মোট পার্কিং স্পেস ৭ হাজার ৯১২ বর্গমিটার। সেখানে ৫০০টি গাড়ি রাখা যাবে। এক্সিবিশন বিল্ডিংয়ের সামনের খোলা জায়গায় রাখা যাবে আরো এক হাজার।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়