×
Icon এইমাত্র
কমপ্লিট শাটডাউন কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে কোটা আন্দোলনকারীরা বাংলাদেশ টেলিভিশনের মূল ভবনে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। বিটিভির সম্প্রচার বন্ধ। কোটা সংস্কার আন্দোলনে সারা দেশে এখন পর্যন্ত ১৯ জন নিহত কোটা ইস্যুতে আপিল বিভাগে শুনানি রবিবার: চেম্বার আদালতের আদেশ ছাত্রলীগের ওয়েবসাইট হ্যাক ‘লাশ-রক্ত মাড়িয়ে’ সংলাপে বসতে রাজি নন আন্দোলনকারীরা

অর্থনীতি

অর্থনীতি সমিতির ১২ লাখ কোটি টাকার বিকল্প বাজেট প্রস্তাব

Icon

কাগজ প্রতিবেদক

প্রকাশ: ০৩ জুন ২০২৪, ০৭:২১ পিএম

অর্থনীতি সমিতির ১২ লাখ কোটি টাকার বিকল্প বাজেট প্রস্তাব

ছবি: ভোরের কাগজ

২০৩৪ সালের মধ্যে বাংলাদেশের সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষকে (৭০%—৮০%) একটি আলোকিত, শক্তিশালী, টেকসই মধ্য-মধ্যবিত্ত শ্রেণিতে রূপান্তর করার লক্ষ্যে বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতি আসন্ন ২০২৪-২৫ অর্থবছরের ১১ লাখ ৯৫ হাজার ৪৮৬ কোটি টাকার বিকল্প বাজেট প্রস্তাব করা হয়েছে। যা চলমান ২০২৩-২৪ অর্থবছরের সরকারের বাজেটের তুলনায় ১ দশমিক ৫৭ গুণ বেশি।

সোমবার (৩ জুন) রাজধানীর নিউ ইস্কাটনে অর্থনীতি সমিতির মিলনায়তনে সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. আইনুল ইসলাম বিকল্প বাজেট উপস্থাপন করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- সমিতির সভাপতি ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ, সাবেক সভাপতি ড. আবুল বারকাত ও ড. জামাল উদ্দিন।

প্রস্তাবিত বিকল্প বাজেটে সরকারের রাজস্ব আয় থেকে আসবে ১০ লাখ ২৪ হাজার ৭৬৭ কোটি টাকা। অর্থাৎ মোট বাজেট বরাদ্দের ৯২ দশমিক ১৩ শতাংশের জোগান দেবে সরকারের রাজস্ব আয়। আর বাজেটের বাকি ৭ দশমিক ৮৭ শতাংশ অর্থাৎ ১ লাখ ৭০ হাজার ৭১৯ কোটি টাকার ঘাটতি অর্থায়ন জোগান দেবে সম্মিলিতভাবে বন্ড বাজার ৯৫ হাজার ৭১৯ কোটি টাকা, সঞ্চয়পত্র বিক্রয় থেকে ঋণ ২৫ হাজার কোটি টাকা এবং সরকারি-বেসরকারি যৌথ অংশীদারত্ব থেকে মোট ৫০ হাজার কোটি টাকা।

আইনুল ইসলাম বলেন, বিকল্প বাজেটে ঘাটতি অর্থায়নে বৈদেশিক ঋণ নিটের কোনো ভূমিকা থাকবে না, যা চলতি অর্থবছরের সরকারি বাজেটে ঘাটতি পূরণে ৩৯ দশমিক ৫ শতাংশ। আমরা বাজেট ঘাটতি পূরণের জন্য বৈদেশিক ঋণের দ্বারস্থ হতে চাই না।

আরো পড়ুন: কুরবানির পশুর চামড়ার দাম নির্ধারণ

আগামী ১০ বছরে ৭টি লক্ষ্য অর্জনের জন্য এ বিকল্প বাজেট প্রস্তাব দেয়া হয়েছে বলে জানান আইনুল ইসলাম। এগুলো হলো- ৭০-৮০ শতাংশ মানুষকে মধ্যবিত্ত শ্রেণিতে উন্নীত করা, বৈষম্য সর্বনিম্ন পর্যায়ে নামিয়ে আনা, ধনীর সম্পদ দরিদ্র ও নিম্ন আয়ের মানুষের মধ্যে বণ্টন, উন্নয়নে দেশজ অর্থনীতিকে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব, মানুষকে বিজ্ঞানমনস্ক ও আলোকিত করার সুযোগ তৈরি এবং শোভন কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করা।

বিকল্প বাজেট অর্থায়নে সরকারের আয়ের ২৭টি নতুন উৎস প্রস্তাব তুলে ধরে অর্থনীতি সমিতি। এগুলো হলো- (১) কালো টাকা উদ্ধার থেকে প্রাপ্তি, (২) অর্থ পাচার উদ্ধার থেকে প্রাপ্তি, (৩) সম্পদ কর, (৪) অতিরিক্ত মুনাফার ওপর কর (অনলাইন ব্যবসা-বাণিজ্যসহ), (৫) বিলাসী দ্রব্য বা পণ্যের ওপর কর, (৬)  সংসদ সদস্যসহ গাড়ির ওপর শুল্ক মওকুফ বাতিল থেকে কর, (৭) বিদেশি নাগরিকদের ওপর কর, (৮) সেবা থেকে প্রাপ্ত কর, (৯) বিমান পরিবহন ও ভ্রমণ কর, (১০) পণ্যের ওপর রয়্যালটি ও সম্পদ থেকে আয়, (১১) প্রতিরক্ষা বাবদ প্রাপ্তি, (১২) রেলপথ, (১৩) ডাক বিভাগ, (১৪) সরকারের সম্পদ বিক্রয়, (১৫) সেচ বাবদ প্রাপ্তি, (১৬) তার ও টেলিফোন বোর্ড, (১৭) টেলিকম রেগুলেটরি কমিশন, (১৮) এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন, (১৯) ইনস্যুরেন্স রেগুলেটরি কমিশন, (২০) সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন, (২১) বিআইডাব্লিউটিএ, (২২) পৌর হোল্ডিং কর, (২৩) ডিজি হেলথ: বেসরকারি হাসপাতাল-ক্লিনিক-ডায়াগনস্টিক সেন্টার অনুমতি ও নবায়ন ফি (২৪) ডিজি ড্রাগস: ওষুধ প্রস্তুতকারী কোম্পানি লাইসেন্স এবং নবায়ন ফিস, (২৫) বিউটিপার্লার সেবালব্ধ কর, (২৬) আবাসিক হোটেল/গেস্ট হাউস ক্যাপাসিটি কর এবং (২৭) বিদেশি পরামর্শ ফি।

টাইমলাইন: বাজেট ২০২৪-২৫

আরো পড়ুন

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App