অস্কার নিয়ে নতুন করে ভাবছে অ্যাকাডেমি

আগের সংবাদ

বিওতে বোনাস লভ্যাংশ পাঠিয়েছে তালিকাভুক্ত তিন কোম্পানি

পরের সংবাদ

আন্তর্জাতিক ফিল্ম ফেস্টিভালের জুরিবোর্ডে তরুণ বাংলাদেশী নির্মাতা

প্রকাশিত হয়েছে: আগস্ট ৯, ২০১৮ , ২:৫৭ অপরাহ্ণ | আপডেট: আগস্ট ৯, ২০১৮, ২:৫৭ অপরাহ্ণ

২০১৭ শেষের দিকে কানাডার ভাঙ্কুভারে Reel Youth Film Festival ২০১৭-২০১৮ আসরে চলচ্চিত্র জমা নেয়ার পাশাপাশি সারাবিশ্ব থেকে আহবান জানায় জুরি হতে আগ্রহী তরুন চলচ্চিত্র নির্মাতা বোদ্ধাদের। এ আহবানে সাড়া দিয়ে উৎসবে প্রায় তিন হাজারেরও বেশী আবেদন জমা পরে। সে সব মেইলের মধ্য থেকে বিভিন্ন যাচাই বাছাই প্রক্রিয়ার মাধ্যমে পরবর্তীতে ১৬ টি দেশ থেকে মোট ৯৩ জন তরুনকে ফেস্টিভালের জুরি হিসেবে চূড়ান্তভাবে নির্বাচন করা হয়। সবাইকে অবাক করে দিয়ে সে উৎসবে বাংলাদেশী হিসেবে ফরিদুল আহসান সৌরভ নামের এক স্বপ্নবাজ -তরুন চলচ্চিত্র নির্মাতাও নির্বাচিত হন। যিনি ইতিমধ্যে ভিন্নধর্মী শর্ট ফিল্ম দিয়ে জিতে নিয়েছেন বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সম্মাননা। স্বল্পদৈর্ঘ্যের মধ্যে ‘চেস’, ‘ডেড সার্কাস’, ‘স্ট্যান্ডপয়েন্ট’, ‘প্রতিভাস’, ‘ক্যামোফ্লাজ; উল্লেখযোগ্য। নর্থসাউথ ইউনিভার্সিটির সিনে অ্যান্ড ড্রামা ক্লাব আয়োজিত ইন্টার ইউনিভার্সিটি শর্টফিল্ম ফেস্টিভ্যাল ২০১৬-তে সেরা নির্বাচিত হয় সৌরভের নন-ফিকশন এক্সপেরিমেন্টাল ফিল্ম ‘স্ট্যান্ডপয়েন্ট’। রোমানিয়ার টুয়েলভ মান্থ ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের জুলাই এডিশনে ৬৮টি দেশের ২৫৬টি ফিল্মের মধ্যে এক্সপেরিমেন্টাল ক্যাটাগরিতে প্রথম স্থান পায় এ ফিল্মটি। এ ছাড়া পুয়েবলা, মেপিকোর বিশ্ববিদ্যালয় ভিত্তিক ফেস্টিভ্যাল নিওফেস্টে অংশ নেয় স্ট্যান্ডপয়েন্ট। কানাডার ইন্ডিউইস ফিল্ম ফেস্ট ২০১৬-তে ডকু ফিকশন ক্যাটাগরিতে ফাইনালিস্ট ফিল্ম হয় সৌরভের আরেকটি ফিল্ম ‘ডেড সার্কাস’। ডেড সার্কাস ঐ বছরেই পাঠশালার আয়োজনে দৃক গ্যালারীতে আয়োজিত ছায়াছবি মেলাতে প্রদর্শনীর পর বেশ প্রশংসিত হয়।

বর্তমানে এই তরুন চলচ্চিত্র নির্মাতা স্নাতকোত্তরে পড়াশোনা করছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা ইন্সটিটিউটে। সেখানে তিনি তাদের বিভাগের “আই.ই.আর সিনে ক্লাব”র সভাপতির দায়িত্বে আছেন। তার সর্বশেষ নির্মিত স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র “প্রতিভাস” এ বছরের ফেব্রুয়ারিতে জয়পুরের পিগিব্যাঙ্ক ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভাল, গতবছরের শেষেরদিকে আসামের সর্ববৃহৎ চলচ্চিত্র উৎসব এনপিএস ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভাল, ইতালির সিফালো ফিল্ম ফেস্টিভাল ২০১৭ এবং যুক্তরাজ্যের কার্ডিফ ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভালে দর্শক গ্রহণযোগ্যতা পায়। আন্তর্জাতিক উৎসবগুলোতে সৌরভের আরেকটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র “চেস” ব্যাপক সমাদৃত হয়। বর্ণবাদ এবং শ্রেণি বৈষম্যের বিরুদ্ধে করা প্রতীকী এই চলচ্চিত্রটি বাংলাদেশে ১০ম চিলড্রেনস ফিল্ম ফেস্টিভাল, ক্রিএটিভ ইন্টারন্যাশনাল ওপেন ফিল্ম ফেস্টিভাল, বুলগেরিয়ার আর্লিবার্ড ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভাল এবং ভারতের অল লাইটস ইন্ডিয়া ফিল্ম ফেস্টিভাল সহ মোট ১২ টি দেশের ১৯ টি আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে প্রদর্শিত হয়। তার পাঁচটি স্বল্পদৈর্ঘ্য এবং একটি প্রামাণ্য চলচ্চিত্রমুভিয়ানা ফিল্ম সোসাইটির “নতুন চলচ্চিত্র নতুন নির্মাতা” প্লাটফর্মে শিল্পকলায় প্রদর্শিত হয়।
স্বপ্নবাজ এই তরুন একাডেমিক পড়াশোনা শেষ করে ভবিষ্যতে একজন নিরীক্ষনধর্মী চলচ্চিত্র নির্মাতা হতে চান। স্বল্পদৈর্ঘ্যের পাশাপাশি নির্মাণ করতে চান ফিচার ফিকশন এবং ডকুমেন্টারি। তিনি ভিন্ন ভিন্ন জনরা নিয়ে সিনেমায় নানা রকমের মৌলিক এক্সপেরিমেন্টেশন করতে আগ্রহী। গতানুগতিক ধারার বাইরে নিজের মত করে ভিন্নধর্মী কাজ করতে চান। সেই সাথে সৌরভ সিনেমা নিয়ে দেশের বাইরেও পড়াশোনা করতে ইচ্ছুক।