×

ভিডিও

পানিতে ভেসে গেল জুড়ীর অর্ধলাখ মানুষের ঈদ আনন্দ

Icon

কাগজ ডেস্ক

প্রকাশ: ২১ জুন ২০২৪, ০৭:৪১ পিএম

যে দিকে চোখ যায় শুধু পানি আর পানি। পানিতে তলিয়ে গেছে রাস্তাঘাট, ঘরবাড়িসহ ফসলিজমি। চরম ভোগান্তিতে জনগণ।

ভয়াবহ বন্যার এমন দৃশ্য মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলার। সারাদেশে যখন ব্যাপক উৎসহা উদ্দীপনা নিয়ে পালন করেছে পবিত্র ঈদুল আজহা সেখানে জুড়ীতে দেখা গেছে ভিন্ন চিত্র। বন্যার পানিতে ভেসে গেল উপজেলার অর্ধলাখ মানুষের ঈদ আনন্দ। 

ঈদের দিন ভোর থেকে টানা বৃষ্টিপাতের কারণে এবং উজানের পাহাড়ি ঢলে পানিবন্দি অর্ধলাখের বেশি মানুষ। উপজেলার ৬টি ইউনিয়নের ৬৫ থেকে ৭০টি গ্রাম প্লাবিত। টানা বৃষ্টিপাত ও বন্যার কারণে ভোগান্তিতে পড়েছে মানুষ। অনেকেরই ঠাঁই হয়েছে আশ্রয়কেন্দ্রে। 

কৃষক, শ্রমিক, দিনমজুর খেটে খাওয়া মানুষদের ঘরে এখন আনন্দের পরিবর্তে বিষাদ। বন্যায় তছনছ হয়ে গেছে তাদের জীবন। অনেকের বসতঘর, গোয়ালঘর, গুদামের ধান, ঘরের আসবাবপত্র সবকিছু ভেসে গেছে বন্যার পানিতে। ফলে এবার ঈদুল আযহা বন্যাকবলিত এসব মানুষের ঘরে কোনও আনন্দের বার্তা নিয়ে আসতে পারেনি। অনেক ঈদগাহে পানি উঠে যাওয়ায় ঈদের নামাজ আদায়ে সৃষ্টি হয় ভোগান্তি। পশু কোরবানি দিতে গিয়ে পড়তে হয়েছে বিড়ম্বনায়। 

রাস্তাঘাট পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় বন্ধ হয়ে যায় যান চলাচল। জুড়ী শহরের সাথে বিভিন্ন এলাকার যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

ঈদের দিন থেকে পানিতে তলিয়ে গেছে জুড়ী উপজেলার জায়ফরনগর ইউনিয়নের বেলাগাঁও, জাঙ্গীরাই, নয়াগ্রাম, ইউসুফনগর, শিমুলতলা, শাহাপুর, ভাটি শাহাপুর, নিশ্চিতপুর, ভুয়াই এবং পশ্চিমজুড়ী ইউনিয়নের বাছিরপুর, খাটটেখা, কালনীগর, নয়াবাজার, আমতৈল, হরিরামপুর গ্রাম।

পাশাপাশি ফুলতলা, পূর্বজুড়ী, সাগরনাল ও গোয়ালবাড়ীতে পানি বেড়ে বন্যার সৃষ্টি হয়েছে। বন্যাকবলিত প্রতিটি এলাকায় দেখা দিয়েছে খাবার ও আশ্রয় সংকট। 

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App