×

ভিডিও

রোগীর পেট থেকে বের হলো লোহার সুঁচ, বাঁশের কাঠি, প্লাস্টিকের বেল্ট

Icon

কাগজ ডেস্ক

প্রকাশ: ০৮ জুন ২০২৪, ০৭:০২ পিএম

সিরাজগঞ্জের সেই মোতালেব কথা রাখেননি। পেট থেকে এবারও বের করা হলো তাঁতের কাজে ব্যবহৃত তিনটি লোহার লম্বা সুচ, একটি লম্বা বাঁশের কাঠি, একটি প্লাস্টিকের বেল্ট ও একটি কলম। ৩ জুন সোমবার ও ৪ জুন মঙ্গলবার দুই দফায় এন্ডোস্কপিক সার্জারির মাধ্যমে তাঁর পেট থেকে বের করা হয় এসব।

গত বছর এই মোতালেবের পেট থেকে দুই দফা এন্ডোস্কপিক সার্জারির মাধ্যমে বের করা হয়েছিল ২৩টি কলম। তখন তিনি অঙ্গীকার করেছিলেন আর কখনও কলম খাবেন না।

কিন্তু সে কথা রাখেননি তিনি। এবার কলমতো খেয়েছেনই, সেইসঙ্গে খেয়েছেন তাঁতের কাজে ব্যবহৃত তিনটি লোহার লম্বা সুচ, একটি লম্বা বাঁশের কাঠি, একটি প্লাস্টিকের বেল্টও। এত ধারালো বস্তু কীভাবে গিলেছেন মোতালেব! তা নিয়ে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন চিকিৎসক।

চিকিৎসকের মতে পিকা সিনড্রোম নামে মানসিক রোগে আক্রান্ত মোতালেব। যে কারণে তিনি রাস্তায় কুড়িয়ে পাওয়া কলম, লোহার সুচসহ যা পাচ্ছেন গিলে খাচ্ছেন। 

সিরাজগঞ্জের বেলকুচি উপজেলার দৌলতপুর মহল্লার মৃত আব্দুর রহিমের ছেলে আব্দুল মোতালেব। গত বছরের মে মাসে পেটের তীব্র ব্যথা নিয়ে সিরাজগঞ্জের শহীদ এম মনসুর আলী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। সার্জারি বিভাগের চিকিৎসকরা এন্ডোস্কপি করে পেটের ভেতরে বেশ কয়েকটি কলম শনাক্ত করেন।

পরে  মেডিকেল কলেজের আন্তরিক প্রচেষ্টায় দুই দফা এন্ডোস্কপিক সার্জারির মাধ্যমে পেটের ভেতর থেকে একে একে বের করা হয় ২৩টি কলম। যা ছিল রীতিমতো বিস্ময়কর। তবে এবার তাঁর অবস্থা ছিল আরও ভয়াবহ।

এক বছরের ব্যবধানে চলতি বছরের মে মাসের ১৩ তারিখে আবারও পেটের তীব্র ব্যথা শুরু হয় মোতালেবের। মা লায়লি খাতুন আবারও তাঁকে নিয়ে আসেন হাসপাতালে। বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে চিকিৎসক বুঝতে পারেন মোতালেব আবারও কলম খেয়েছেন। কিন্তু এবার কলম ছাড়াও আরও ধারালো বস্তুর খোঁজ পাওয়া যায় তাঁর পেটে।

চিকিৎসক জানান তাকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। চিকিৎসা শেষ হলে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসবেন মোতালেব।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App