×

ভিডিও

ভুল চিকিৎসায় প্রাণ গেল মাদরাসা ছাত্রের, চিকিৎসকের বিচারের দাবিতে উত্তাল ফেনী

Icon

কাগজ ডেস্ক

প্রকাশ: ০৪ জুন ২০২৪, ১১:২০ পিএম

১৩ বছর বয়সী আতিকুল ইসলাম নিশান। গলায় টনসিল দেখা দিলে গেল ২৬ মে ফেনী সেবারহাট মেডিকেল সেন্টারে নোয়াখালী মেডিকেল কলেজের সহকারী অধ্যাপক ডাঃ কিশোর কুমার হাওলাদারের চেম্বারে নিয়ে যান তার বাবা। প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর ফেনীর ওয়ান স্টোপস মেটারনিটি ক্লিনিকে অপারেশনের পরামর্শ দেন চিকিৎসক। 

এরপর ৩ জুন পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর রাত ১০টার দিকে অ্যানেস্থেসিয়া দেন ডাঃ নাজমুল হক ভুঞা। এসময় টনসিল ইকোটমি অপারেশন করেন তিনি। পরিবারের দাবি, অপারেশনের ৬ ঘণ্টা পর নিশানের পরিস্থিতি খারাপ হলে দ্রুত আইসিইউতে নেয়ার পরামর্শ দেয় ডাঃ নাজমুল।

এরপর তাকে দ্রুত কুমিল্লা মডার্ণ হসপিটালে নিয়ে আসা হলে সেখানকার আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ ইয়াসিন আরাফাত জানান, আইসিইউতে ভর্তির আগেই ভুল চিকিৎসায় নিশানের মৃত্যু হয়েছে।

নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার দক্ষিণ মোহাম্মদপুর গ্রামের প্রবাসী শহীদুল্যাহর সন্তান আতিকুল ইসলাম নিশান। স্থানীয় ভুঞা দিঘি হাফেজিয়া মাদরাসায় হেফজ বিভাগ থেকে পবিত্র কোরআনের ৮ পারা মুখস্থ করেছিলেন। সন্তানকে হারিয়ে এখন দিশেহারা তার পরিবার। বিচারের দাবি করছেন হাসপাতাল ও চিকিৎসকের বিরুদ্ধে। নিশানের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে ক্লিনিক ঘেরাও করে তার স্বজন ও এলাকাবাসী। 

তাদের দাবি , নিশান হেটে ক্লিনিকে আসে। টনসিলের সমস্যা ছাড়া তার আর কোনও সমস্যা নেই। এনেস্থিসিয়ার উপর ডাক্তার নাজমুলের কোনও ডিগ্রী নেই বলেও অভিযোগ পরিবারের। তবে এনেস্থিসিয়ার উপর কোনও ডিগ্রি আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দেখাতে পারেননি। তবে ক্যামেরা দেখে পালিয়ে যান ডাক্তার কিশোর কুমার।

ফেনী মডেল থানার ওসি শহীদুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, নিহতের পরিবারের সাথে কথা হয়েছে। তারা লিখিত অভিযোগ দিলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App