×

ভিডিও

ঢাকায় নতুন মার্কিন রাষ্ট্রদূতের পরিচয়

Icon

কাগজ ডেস্ক

প্রকাশ: ১১ মে ২০২৪, ১২:৪৩ পিএম

বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের নতুন রাষ্ট্রদূত হিসেবে ডেভিড স্লেটন মিলের নাম মনোনয়ন দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। গত ৯ এপ্রিল হোয়াইট হাউস এ তথ্য জানায়। হোয়াইট হাউসের ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, মিলের নাম অনুমোদনের জন্য সিনেটে পাঠানো হয়েছে। আর সিনেটে অনুমোদন পেলে পিটার হাসের স্থলাভিষিক্ত হবেন মিল।

যুক্তরাষ্ট্রের নিয়মানুসারে, প্রেসিডেন্ট কূটনীতিকের নামের মনোনয়ন ঘোষণা করেন। এরপর এটি দেশটির পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষ সিনেটে পাঠানো হয়। সেখানে শুনানির পর যোগ্য মনে হলে তাকে রাষ্ট্রদূত হিসেবে সেই দেশে পাঠানো হয়।

প্রেসিডেন্টের মনোনীত এ কূটনীতিক এর আগেও ঢাকায় কাজ করেছেন। হোয়াইট হাউসের তথ্য বলছে, ডেভিড মিল প্রায় ১০ বছর আগে ঢাকায় মার্কিন মিশনের উপপ্রধান ছিলেন। অর্থাৎ তার ঝুলিতে ঢাকার অভিজ্ঞতা আগে থেকেই রয়েছে।

ডেভিড মিল বর্তমানে চীনে কর্মরত। সেখানকার রাজধানী বেইজিংয়ের মার্কিন দূতাবাসের অন্তর্বর্তীকালীন চার্জ ডি অ্যাফেয়ার্স হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। ২০২২ সালের ২৬ মার্চ থেকে এই পদে নিয়োজিত রয়েছেন তিনি।

২০১৮ সালে মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের অর্থনৈতিক ও ব্যবসাবিষয়ক ব্যুরোর বাণিজ্য নীতিবিষয়ক ডেপুটি অ্যাসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি হন ডেভিড মিল। এর আগে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা নীতি ও বাস্তবায়ন বিষয়ক পরিচালক ছিলেন।

ডেভিড মিল ওয়াশিংটন ডিসির ফরেন সার্ভিস ইনস্টিটিউটের লিডারশিপ অ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট স্কুলের সহযোগী ডিন। তিনি ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভে মার্কিন দূতাবাসের অর্থনীতিবিষয়ক পরামর্শদাতা। এছাড়া অর্থনৈতিক ব্যুরোর আর্থিক বিষয়ক অফিসের উপপরিচালকেরও দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি।

একাধিক দেশে কূটনীতিক হিসেবে দায়িত্ব পালনের ভূমিকা রয়েছে তার। হোয়াইট হাউসের তথ্যানুসারে, তিনি চীন, হংকং, তাইওয়ান, গিনি এবং ওয়াশিংটনে কূটনৈতিক দায়িত্বর পালন করেছেন। ১৯৯২ সালে তিনি ফরেন সার্ভিসে যোগ দেন এবং মিনিস্টার-কাউন্সিলর পদে অধিষ্ঠিত হন।

ফরেন সার্ভিসের আগে তিনি মার্কিন টেলিকমিউনিকেশন কোম্পানি স্প্রিন্ট টেলিকমিউনিকেশনর কর্পোরেট ফাইন্যান্স পদে ছিলেন। তিনি ন্যাশনাল ডিফেন্স ইউনিভার্সিটির আইজেনহাওয়ার স্কুল থেকে এমএস করেন। আর টুলেন ইউনিভার্সিটি থেকে এমবিএ এবং ডেলাওয়্যার বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিএ করেছেন।

তিনি ডেপুটি চিফ অফ মিশন হিসেবে অসামান্য অবদানের জন্য বেকার-উইলকিন্স পুরস্কার পেয়েছেন। ইংরেজির বাইরে তার চীনা, ইউক্রেনীয় এবং ফ্রেঞ্চ ভাষায় দক্ষতা রয়েছে।


সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App