×

খেলা

দলের খারাপ সময়ে বেতন বাড়ছে বাবরদের

Icon

প্রকাশ: ১৩ জুন ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

কাগজ ডেস্ক : বিশ্বকাপের প্রথম দুই ম্যাচে হেরে বিদায়ের শঙ্কায় আছে পাকিস্তান। ভেতরে-বাইরের সমালোচনা নিয়ে বেশ অস্বস্তিতে আছে খেলোয়াড়েরা। তবে এই অস্বস্তির মধ্যে বেতন বৃদ্ধির সুখবর দেয়া হয়েছে পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের । এই বিষয়টি নিশ্চিত করেছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। বিশ্বকাপের অনেক আগেই পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের বেতন বৃদ্ধির সুখরব দিয়েছিল পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। তবে কত পরিমাণ বাড়ানো হয়েছে, সেটি জানায়নি দেশটির ক্রিকেট বোর্ড। অবশেষে বাবর আজম ও মোহাম্মদ রিজওয়ানরা জানতে পারলেন, কত শতাংশ বেড়েছে তাদের বেতন। ক্রিকেটারদের সঙ্গে কেন্দ্রীয় চুক্তির তথ্য হালনাগাদ করে পিসিবি জানিয়েছে, চার ক্যাটাগরির সবই বেতন বাড়ানো হয়েছে। এক্ষেত্রে সবচেয়ে বাড়ানো হয়েছে ‘এ’ ক্যাটাগরির ক্রিকেটারদের বেতন। বেতন স্কেলে প্রথম ক্যাটাগরিতে থাকা ক্রিকেটারদের বেতন বেড়েছে তিনগুণেরও বেশি। শতকরা হিসেবে যা ২০২ শতাংশ।

সবচেয়ে বেশি বাড়ানো হয়েছে ‘এ’ ক্যাটাগরির ক্রিকেটারদের বেতন। নতুন বেতন স্কেলে প্রথম ক্যাটাগরিতে থাকা ক্রিকেটারদের বেতন শতকরা হিসেবে ২০২ শতাংশ বেড়েছে। এই ক্যাটাগরিতে থাকা অধিনায়ক বাবর আজম, উইকেটরক্ষক ব্যাটার মোহাম্মদ রিজওয়ান ও পেসার শাহিন শাহ আফ্রিদি মাসে ৪৫ লাখ পাকিস্তানি রুপি বেতন পাবেন। ‘বি’ ক্যাটাগরিতে থাকা শাদাব খান, হারিস রউফ, নাসিম শাহ ও ফখর জামানদের বেতন ১৪৪ শতাংশ বেড়ে মাসে ৩০ লাখ পাকিস্তানি রুপি করে বেতন পাবেন। ‘সি’ ও ‘ডি’ ক্যাটাগরিতে থাকা খেলোয়াড়দের বেতন বাড়ানো হয়েছে ১২৭ থেকে ১৩৫ শতাংশ পর্যন্ত। এই ক্যাটাগরিতে খেলা ইমাদ ওয়াসিম, ইফতেখার আহমেদের বেতনের রেঞ্জ হলো ৭ লাখ ৫০ হাজার থেকে শুরু করে ১৫ লাখ রুপি পর্যন্ত। উল্লেখ্য, ক্রিকেটাররা যেন দেশের খেলা বাদ দিয়ে বিদেশি ফ্র্যাঞ্চাইজি খেলায় মনোযোগ কম দেয়, সেজন্য তাদের বেতন এত বেশি করে বাড়ানো হয়েছে। তবে পিসিবির এই উদ্যোগ কতটুকু কার্যকর হয়, সেটিই এখন দেখার। চলমান টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে প্রথম দুই ম্যাচে হেরে বলতে গেলে ছিটকে যাওয়ার শঙ্কায় রয়েছে পাকিস্তান।

আইসিসির সহযোগী সদস্য দেশ যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে সুপার ওভারের রোমাঞ্চে হারের তেতো স্বাদের পর চিরপ্রতিদ্ব›দ্বী ভারতের বিপক্ষেও লো স্কোরিং ম্যাচে অবিশ্বাস্যভাবে হেরে গেছে ২০০৯ আসরের চ্যাম্পিয়নরা। সুপার এইটে বাবর আজমদের খেলার সম্ভাবনা ঝুলছে অনিশ্চয়তার সুতোয়। পরের পর্বের স্বপ্ন বাঁচিয়ে রাখতে কানাডার বিপক্ষে জিততেই হতো পাকিস্তানকে। খর্বশক্তির দলটির বিপক্ষে সেই জয়টা পাকিস্তান পেয়েছে ১৫ বল বাকি রেখে। তাতে আশা বেঁচেছে। তবে নিজেদের শেষ ম্যাচে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষেও বড় ব্যবধানে জিততে হবে, সেই সঙ্গে তাকিয়ে থাকতে হবে অন্যদের দিকেও। এমন জটিল সমীকরণের মুখে পাকিস্তানের চিন্তা বাড়াচ্ছে বৃষ্টি। আগামী ১৪ জুন ফ্লোরিডার লডারহিল স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে যুক্তরাষ্ট্র ও আয়ারল্যান্ড। এই ম্যাচটির ওপরও ভাগ্য অনেকটা নির্ভর করছে পাকিস্তানের।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App