×

খেলা

উগান্ডাকে উড়িয়ে দুর্দান্ত শুরু আফগানদের

Icon

প্রকাশ: ০৫ জুন ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

উগান্ডাকে উড়িয়ে দুর্দান্ত শুরু আফগানদের

কাগজ ডেস্ক : আগেই অনুমিত ছিল কী ঘটতে যাচ্ছে আফগানিস্তান-উগান্ডার ম্যাচে। তবু টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ বলে কথা তাই শেষ পর্যন্ত না দেখে কিছু বলা মুশকিল। তবে শেষ পর্যন্ত হলোও তা, বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে উগান্ডাকে ১২৫ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে জয় তুলে নিয়েছে আফগানিস্তান। তাতে বিশ্বকাপের এবারের যাত্রায় সূচনাটা দারুণ করেছে আফগানরা। দলটির পেসার ফজল হক ফারুকি ও অন্য বোলারদের সামনে দাঁড়াতেই পারেনি আফ্রিকান দলটির ব্যাটাররা। আর তাতে বিশাল জয় দিয়ে আসর শুরু করল আফগানিস্তান। রশিদ খানের দল চেয়েছিল রানরেটের ব্যবধানটাও এগিয়ে রাখতে। আর সেই লক্ষ্যে অনেকটাই সফল হয়েছে তারা। ১২৫ রানের বিশাল জয় দিয়ে বিশ্বকাপ মিশন শুরু করেছে দলটি। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ইতিহাসে যা চতুর্থ বৃহত্তম জয়। বড় ব্যবধানে পাওয়া জয়ের ম্যাচে বেশ কয়েকটি রেকর্ড়ের হাতছানিও ছিল।

গায়ানার প্রভিডেন্স স্টেডিয়ামে গতকাল ‘সি’ গ্রুপের নিজেদের প্রথম ম্যাচে ১৮৪ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে অসাধারণ এক কাভার ড্রাইভে চার মেরে উগান্ডা ইনিংসের সূচনা করেন রোনাক প্যাটেল। কিন্তু সেই কাভার ড্রাইভের চেয়েও দৃষ্টিনন্দন ছিল আফগান পেসার ফারুকির পরের দুই বল। দুর্দান্ত দুই ইয়র্কার ডেলিভারিতে ফেরান উগান্ডার দুই ব্যাটারকে। হ্যাটট্রিকের সম্ভাবনা ছিল। তবে সেটা হয়নি। অবশ্য ফারুকির হ্যাটট্রিক না হলেও উইকেটের জন্য ভুগতেও হয়নি আফগানিস্তানকে। পরের ওভারে মুজিব উর রহমানের বলে ফেরেন আরেক ওপেনার সেজাইকে। ৮ রানে ৩য় উইকেটের পতন উগান্ডার। দলীয় ১৮ রানে আবার জোড়া আঘাত। এবার শিকারি নাভিন উল হক। তিন বলের ব্যবধানে নিয়েছেন ২ উইকেট। প্রথমে দীনেশ নাকরানি হয়েছেন বোল্ড। আর দুই বল পর আল্পেশ রামজানি সিøপে ক্যাচ দেন গুলবাদিন নাইবের হাতে। ১৮ রানেই পতন ঘটে ৫ম উইকেটের। তাতে খেলোয়াড়রা মাঠের বদলে সাজঘরে আর মাঠে নামার দৌড়ের মধ্যে ছিলেন কিছুক্ষণ। শঙ্কা ছিল টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ইতিহাসে সবচেয়ে কম রানে গুটিয়ে যাওয়ার। পঞ্চম উইকেট পতনের পর কিছুটা প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করে উগান্ডা। ক্রিজ কামড়ে পড়ে থাকেন রিয়াজাত আলী শাহ ও রবিনসন ওবুয়া। কিন্তু রান তুলতে পারছিলেন না তারা। যদিও দুজনেই কোনোমতে দুই অঙ্কে পৌঁছান। এর মধ্যে রিয়াজাত গড়েছেন টি-টোয়েন্টিতে সবচেয়ে কম স্ট্রাইক রেটের ইনিংস খেলার রেকর্ড। কমপক্ষে ২৫ বল খেলে সর্বনিম্ন স্ট্রাইক রেট এখন রিয়াজাতের। ৩৪ বল খেলে ১১ রান করায় তার স্ট্রাইক রেট এখন ৩২.৩৫। রিয়াজাত ও রবিনসনের প্রতিরোধ ভাঙে ১৩তম ওভারে। যেখানে প্রথম বলেই রিয়াজাত ও পরের বলে মাসাবাকে ফিরিয়ে ফের একবার হ্যাটট্রিকের সম্ভাবনা জাগিয়েছিলেন ফারুকি। তবে এবারো হয়নি। কিন্তু ওভারের শেষ বলে রবিনসনকে বিদায় করেন ফারুকি। শেষ পর্যন্ত ৪ ওভারে মাত্র ৯ রান দিয়ে ফাইপার নিশ্চিত করা ফারুকির টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে যা চতুর্থ সেরা বোলিং ফিগার। বল হাতে ২টি করে উইকেট নিয়েছেন আফগানিস্তানের নাভিন উল হক ও রশিদ খান। বাকি উইকেট গেছে মুজিব উর রহমানের ঝুলিতে। এর আগে টস হেরে ব্যাটিং করতে নেমে শুরু থেকেই উগান্ডার বোলারদের ওপর চড়াও হন দুই আফগান ওপেনার রহমানুল্লাহ গুরবাজ ও ইব্রাহিম জাদরান।

উগান্ডার বোলারদের পাড়ার মানের বানিয়ে এনে স্রেফ তুলোধুনো করেন দুজন। তাতে পাওয়ারপ্লেতেই বিনা উইকেটে ৬৬ রান তুলে নেন দুজন। যা আফগানিস্তানের হয়ে ষষ্ঠবারের মতো দুজনের পঞ্চাশ ছাড়ানো জুটি। আক্রমণের ধারাবাহিকতা বজায় রেখে নবম ওভারের তৃতীয় বলে সিঙ্গেল নিয়ে মাত্র ২৮ বলে টি-টোয়েন্টিতে দেশের হয়ে অষ্টম ফিফটি তুলে নেন গুরবাজ। ১০ ওভারেই দলীয় ১০০ পেরিয়ে যায় আফগানিস্তান। এর খানিক বাদেই ১২তম ওভারের চতুর্থ বলে ৩ রান নিয়ে ফিফটির ঘর ছুঁয়ে ফেলেন ইব্রাহিম। চর্তুদশ ওভারে দলীয় রান দেড়শ পার করেন গুরবাজ ও ইব্রাহিম। পরের ওভারেই মাসাবাকে উড়িয়ে মারতে গিয়ে বোল্ড হন ইব্রাহিম। ৪৬ বলে ৭০ রানের ইনিংস খেলার পথে ৯টি চার ও ১টি ছক্কা হাঁকান এই ওপেনার। তাতে ভাঙে পুরুষদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ইতিহাসে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উদ্বোধনী জুটি (১৫৪)।

ইব্রাহিমের বিদায়ে ক্রিজে আসেন নজিবুল্লাহ জাদরান। তবে ৪৫ বলে ৭০ করে গুরবাজ আউট হয়ে যাওয়ায় জুটি বাঁধতে পারেননি। তার বিদায়ের পর ধস নামে আফগান ব্যাটিংয়ে। একে একে বিদায় নেন নজিবুল্লাহ (২), মোহাম্মদ নবী (১১) ও আজমতুল্লাহ ওমরজাই (৫)। তাতে সম্ভাবনা দেখিয়েও দুইশ পেরোতে পারেনি আফগানরা। এদিকে উগান্ডার এমন সংগ্রহ রেকর্ড গড়েছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের রেকর্ড় বইতে। বিশ্বকাপের চতুর্থ দল হিসেবে সর্বনিম্ন সংগ্রহ তাদের।

বিশ্বকাপে সর্বনিম্ন সংগ্রহ যাদের

দল প্রতিপক্ষ রান

নেদারল্যান্ডস শ্রীলঙ্কা ৩৯

নেদারল্যান্ডস শ্রীলঙ্কা ৪৪

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ইংল্যান্ড ৫৫

উগান্ডা আফগানিস্তান ৫৮

নেদারল্যান্ডস শ্রীলঙ্কা ৬০

স্কটল্যান্ড আফগানিস্তান ৬০

আয়ারল্যান্ড ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৬৮

হংকং নেপাল ৬৯

বাংলাদেশ নিউজিল্যান্ড ৭০

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App