×

খেলা

রেকর্ড় গড়ে বিশ্বকাপে শুভ সূচনা করল যুক্তরাষ্ট্র

Icon

প্রকাশ: ০৩ জুন ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

রেকর্ড় গড়ে বিশ্বকাপে শুভ সূচনা করল যুক্তরাষ্ট্র

কাগজ ডেস্ক : অনেকটা সাদামাটাভাবে শুরু হয়ে গেল টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের নবম আসর। আর উদ্বোধনী ম্যাচেই একের পর এক রেকর্ড়ের সাক্ষী হলো বিশ্ব। সহঅধিনায়ক অ্যারেন জোন্সের ছক্কা বৃষ্টিতে চিরপ্রতিদ্ব›দ্বী কানাডাকে ৭ উইকেটের বড় ব্যবধানে গুঁড়িয়ে দিয়ে বিশ্বকাপের শুরুটা দারুণভাবে করেছে স্বাগতিক যুক্তরাষ্ট্র। পাশাপাশি এ ম্যাচে নানা রেকর্ড় গড়ে আইসিসির রেকর্ড় খাতায় নিজেদের উপস্থিতির কথা ভালোভাবে জানান দিয়েছে সদ্য আইসিসির কোনো আন্তজার্তিক আসরে নাম লেখানো যুক্তরাষ্ট্র ক্রিকেট। দলের জয়ের নায়ক জোন্স খেলেছেন ৪০ বলে অপরাজিত ৯৪ এবং গাউস খেলেছেন ৪৬ বলে ৬৫ রানের ইনিংস। সবচেয়ে বেশি ছক্কা, তৃতীয় সর্বোচ্চ রান তাড়ার রেকর্ড় কি ছিল না এ ম্যাচে।

ডালাসের গ্র্যান্ড প্রেইরি স্টেডিয়ামে গতকাল টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নামে পাওয়ার প্লেতে ১ উইকেটে ৫০ রান তুলে প্রথমবারের মতো টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে খেলতে নামা কানাডা। ওপেনার অ্যারন জনসন ১৬ বলে ২৩ রান করে ফিরলেও, ৩৬ বলে টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারে প্রথম হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন আরেক ওপেনার নবনিত ধালিওয়াল।

দলীয় ১২৮ রানে যুক্তরাষ্ট্রের পেসার নিউজিল্যান্ডের সাবেক খেলোয়াড় কোরি এন্ডারসনের বলে আউট হন ধালিওয়াল। ৬টি চার ও ৩টি ছক্কায় ৪৪ বলে ৬১ রান করেন তিনি। তৃতীয় উইকেটে নিকোলস কার্টনের সঙ্গে ৩৭ বলে ৬২ রান করেন ধালিওয়াল। চার নম্বরে নেমে ২৮ বলে টি-টোয়েন্টিতে প্রথম হাফ সেঞ্চুরি করেন কার্টন। ৩টি চার ও ২টি ছক্কায় ৩১ বলে ৫১ রান তুলে কার্টন ফেরার পর শেষ দিকে শ্রেয়াস মোভার ২টি করে চার-ছক্কায় ১৬ বলে অনবদ্য ৩২ রানের ওপর ভর করে ২০ ওভারে ৫ উইকেটে ১৯৪ রানের বড় সংগ্রহ পায় কানাডা। যুক্তরাষ্ট্রের আলি খান-হারমিত সিং ও এন্ডারসন ১টি করে উইকেট নেন। প্রথমবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে খেলা কানাডা প্রথম ম্যাচেই ভেঙে দিয়েছিল নেদারল্যান্ডসের রেকর্ড। তাদের তোলা ১৯৪ রান টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সহযোগী দেশগুলোর মধ্যে সর্বোচ্চ ছিল। এর আগে ২০১৪ বিশ্বকাপে নেদারল্যান্ডসের ৪ উইকেটে ১৯৩ রান সর্বোচ্চ ছিল।

বড় লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুতেই হোঁচট খায় স্বাগতিক যুক্তরাষ্ট্র। রানের খাতা খোলার আগেই প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন স্টিভেন টেইলর। ইনিংসের দ্বিতীয় বলেই টেইলরকে লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলেন কলিম সানা। কানাডার জোরালো আবেদনে সাড়া দেন ফিল্ড আম্পায়ার রিচার্ড ইলিংওয়ার্থ। এরপর রিভিউ নিলেও তাতে লাভ হয়নি স্বাগতিকদের। এরপর মোনাককে সঙ্গে নিয়ে শুরুর ধাক্কা সামাল দেন আন্দ্রেস গাউস। তবে মোনাঙ্কও বেশিক্ষণ ক্রিজে থিতু হতে পারেননি। পাওয়ার প্লের পরই প্যাভিলিয়নে ফেরেন যুক্তরাষ্ট্রের এই দলপতি। দলীয় ৪২ রানে হেলিগারের শিকার হয়ে ফেরার আগে ২ বাউন্ডারিতে সাজান ১৬ রানের ইনিংস। তাদের আরেকটু চাপে ফেলে দেন সপ্তম ওভার করতে আসা দিলোন হেইলিগার। উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেয়ার আগে ১৬ বল খেলে ১৬ রান করেন যুক্তরাষ্ট্রের অধিনায়ক মোনাঙ্ক। কিন্তু তার বিদায়ের পরই বদলে যেতে থাকে ম্যাচের দৃশ্যপট। উইকেটে এসে গউসকে একপ্রান্তে রেখে রীতিমতো ঝড় তোলেন অ্যারন জোন্স। মাত্র ২২ বলে হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন তিনি। যুক্তরাষ্ট্রের হয়ে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে যেটি সবচেয়ে দ্রুততম। এরপর কানাডার ওপর রীতিমতো তাণ্ডব শুরু করেন আন্দ্রিস গউস ও অ্যারন জোন্স। চার-ছক্কার ফুলঝুরিতে গড়েন ১৩১ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি। তবে ইনিংসের ১৬তম ওভারের চতুর্থ বলে প্যাভিলিয়নে ফেরেন গউস। ফেরার আগে ৭ চার ও ৩ ছক্কায় বিশ্বমঞ্চে নিজের প্রথম ফিফটি তুলে নেন এই ব্যাটার।

শেষ দিকে জয়ের জন্য ৩ ওভারে ১৪ রান দরকার ছিল স্বাগতিকদের। তবে সেটি দীর্ঘায়িত হতে দেননি জোন্স। ইনিংসের ১৮তম ওভারের প্রথম চার বলে দুটি ছক্কা আর এক চারে ১৪ বল বাকি থাকতেই দলের জন্য নিশ্চিত করেন এই ব্যাটার। দলের ৭ উইকেটে জয়ের দিনে শেষ পর্যন্ত ১০ ছক্কা ও ৪ চারের মারে ৪০ বলে ৯৪ রানে অপরাজিত থাকেন জোন্স। ম্যাচ শেষে জোন্স বলেন, ‘ভাষায় প্রকাশ করা সহজ হবে না, দলকে জেতাতে পেরে খুশি। আমাদের যে ব্যাটিং লাইনআপ ছিল, আমরা জানতাম রান ২০০ এর নিচে থাকলে তাড়া করা সম্ভব। আমি আমার প্রক্রিয়া অনুসরণ করেছি, পাওয়ার হিটিং আমার পছন্দ। যখন দল চাপে থাকে, আমি ক্রিজে থাকতে চাই, এটা আমার সেরাটা বের করে আনে’। এদিকে এমন জয়ের পর ভারত-পাকিস্তান দুই দলকেই হুমকি দিয়ে রেখেছেন যুক্তরাষ্ট্রের অধিনায়ক মোনাঙ্ক প্যাটেল। সংবাদ সম্মেলনে মার্কিন দলপতি বলেছেন, যেভাবে খেলেছি, সেভাবে খেলে যেতে চাই।

পাকিস্তান বা ভারত, কোনো দলের বিপক্ষেই ভয়ডরহীন ক্রিকেট থেকে সরতে চাই না’। অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্র জয় পাওয়ায় বাংলাদেশকে খোঁচা দিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ‘এক্সে’ ভারতীয় ক্রিকেটার রবীচন্দ্রন অশ্বীন লেখেন, ‘অ্যারন জোন্স, যে সিয়াটল অরকাসের হয়ে খেলে, আজ বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচ রাঙাতে দারুণ ব্যাটিং প্রদর্শনী দেখিয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্র আমাদের দেখাচ্ছে, বিশ্বকাপের আগে বাংলাদেশের ওপর কেন তারা ছুরি ঘুরিয়েছে’।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App