×

খেলা

সৈকতের অন্যরকম হাফসেঞ্চুরি

Icon

প্রকাশ: ০৩ জুন ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

সৈকতের অন্যরকম হাফসেঞ্চুরি

কাগজ প্রতিবেদক : চলতি বছরের মার্চে বাংলাদেশের প্রথম আম্পায়ার হিসেবে আইসিসির এলিট প্যানেলে জায়গা করে নিয়েছেন বাংলাদেশি আম্পায়ার শরফুদ্দৌলা ইবনে শহীদ সৈকত। আইসিসির বার্ষিক পর্যবেক্ষণ ও নির্বাচন প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে আম্পায়ারদের শীর্ষস্তরে সুযোগ পেলেন ৪৭ বছর বয়সি বাংলাদেশি সৈকত। তারই ধারাবাহিকতায় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচে আম্পায়ারিং করার সুযোগ পেয়েছিলেন সৈকত। আর তাতেই নিজের আম্পায়ারিং ক্যারিয়ারের হাফ-সেঞ্চুরি করলেন তিনি। তাতে সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটে বাংলাদেশের প্রথম কোনো ফিল্ড আম্পায়ার হিসেবে ‘হাফ-সেঞ্চুরি’ পূরণ করেছেন। বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচে এই রেকর্ডটি স্পর্শ করায় এই মাইলফলকটি আরো বিশেষ হয়ে থাকবে তার ক্যারিয়ারে। ছেলেদের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রথম বাংলাদেশি আম্পায়ার হিসেবে ১০০ ম্যাচ পরিচালনা করার কীর্তিও তার। এর বাইরে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে আম্পায়ারিং করা একমাত্র বাংলাদেশি আম্পায়ারও তিনিই।

৫০টি আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ফিল্ড আম্পায়ার হিসেবে দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি শরফুদ্দৌলা টি-টোয়েন্টিতে আরও ১৮ ম্যাচে ছিলেন টিভি আম্পায়ার। পুরুষদের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রথম বাংলাদেশি আম্পায়ার হিসেবে ১০০ ম্যাচ পরিচালনা করারও কীর্তিও আছে তার। গত বছর ভারতে অনুষ্ঠিত ওয়ানডে বিশ্বকাপে ৫ ম্যাচে আম্পায়ারিং করেছেন শরফুদ্দৌলা। এছাড়া মেয়েদের দুটি ওয়ানডে বিশ্বকাপ ও ২০১৮ সালে মেয়েদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও এই দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। তাছাড়া আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এখন পর্যন্ত ১৫ টেস্ট, ১০০ ওয়ানডে এবং ৬৮ টি-টোয়েন্টি ম্যাচ পরিচালনা করেছেন।

উল্লেখ্য, ২০০১ সালে প্রথম বিভাগ ক্রিকেটে মাত্র এক মৌসুম খেলার পর পিঠের ইনজুরিতে পড়েন সাবেক অফস্পিনার শরফুদ্দৌলা। যে কারণে তাকে খেলা ছেড়ে দিতে হয়েছে। এরপর বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের ক্রিকেট অপারেশন্স ম্যানেজার হিসেবে যোগ দিলেও আম্পায়ার হওয়ার নেশাতে সেই চাকরি বেশি দিন করেননি। তবে গত মার্চে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) এবারই প্রথম বিশ্বকাপ নয় সৈকতের। এর আগে নারীদের ওয়ানডে বিশ্বকাপে ২০১৭ এবং ২০২১ সালে ম্যাচ পরিচালনা করেছেন, ২০১৮ সালের নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও আম্পায়ার ছিলেন। ছেলেদের ক্রিকেটে ২০২৩ ওয়ানডে বিশ্বকাপে আম্পায়ার ছিলেন সৈকত।

মার্চে আইসিসির এলিট প্যানেলে ম্যাচ রেফারির সংখ্যা সাত থেকে কমিয়ে ছয় করা হয়েছে। ক্রিস ব্রডকে ২০২৪-২৫ মৌসুমে রাখা হয়নি। ২০০৩ সাল থেকে আইসিসির এলিট প্যানেলে থাকা ব্রড ১২৩ টেস্ট, ৩৬১ এবং ১৩৫টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ পরিচালনা করেছেন। নারীদের টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে পরিচালনা করেছেন ১৫ ম্যাচ। এছাড়া ছেলেদের চারটি করে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ এবং দুটি নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পরিচালনা করেছেন ব্রড।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App