×

খেলা

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনাল

হাইভোল্টেজ ম্যাচে মুখোমুখি রিয়াল ও বরুশিয়া

Icon

প্রকাশ: ০১ জুন ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

 হাইভোল্টেজ ম্যাচে মুখোমুখি রিয়াল ও বরুশিয়া

কাগজ ডেস্ক : বিশ্বের কোটি কোটি ফুটবলপ্রেমীরা যে বিশেষ ম্যাচটি দেখার অপেক্ষায় আছেন সেটি অনুষ্ঠিত হবে আজ রাতে। আজ রাত ১টায় লন্ডনের ঐতিহাসিক ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালে মুখোমুখি হবে রিয়াল মাদ্রিদ ও বরুশিয়া ডর্টমুন্ড। রিয়ালের জন্য চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয় যেন নেশা। ইউরোপীয় ক্লাব ফুটবলের শীর্ষ এই প্রতিযোগিতার অবিসংবাদিত রাজা তারা। স্প্যানিশ ক্লাবটি এবার ১৫তম বারের মতো ট্রফি উঁচিয়ে ধরার অপেক্ষায়। বিপরীতে ডর্টমুন্ড এখন পর্যন্ত একবারই চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপা জিতেছে। সেটিও সেই ১৯৯৭ সালে। এরপর জার্মান ক্লাবটি একবার ট্রফিছোঁয়া দূরত্ব থেকে ফিরে এসেছে, ২০১৩ সালে রানার্সআপ হয়েছিল তারা। এবারের মৌসুমে বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের ফাইনালে ওঠা সবচেয়ে বড় চমক হয়ে এসেছে। ফুটবলের পরিসংখ্যানভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ‘অপ্টা’ কোয়ার্টার ফাইনালের ড্রয়ের আগে ডর্টমুন্ডের চ্যাম্পিয়ন হওয়ার সম্ভাবনা দেখিয়েছিল মাত্র ৫.৭৪%। সেই দলই সবাইকে চমকে দিয়ে শিরোপার লড়াইয়ে পৌঁছে গেছে। ম্যাটস হুমেলস-মার্কো রয়েস-নিকলাস ফুলক্রুগরা আর একবার জ্বলে উঠতে পারলেই ২৭ বছর পর ইউরোপীয় শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট পেয়ে যাবে ডর্টমুন্ড।

রিয়ালের হয়ে শিরোপা জিততে মরিয়া দলের সব খেলোয়াড়। ব্যক্তিগত অর্জনের চেয়ে দলের সাফল্যকেই এগিয়ে রাখছেন তারা। এবারের মৌসুমে রিয়ালের হয়ে দারুণ ছন্দে আছেন ভিনিসিয়ুস। এই ফরোয়ার্ড এখন পর্যন্ত ৩৮ ম্যাচ খেলে করেছেন ২৩ গোল, সতীর্থদের দিয়ে করিয়েছেন ১১টি। রিয়ালকে স্প্যানিশ সুপার কাপ ও লা লিগার চ্যাম্পিয়ন বানাতেও বড় ভূমিকা রেখেছেন। দলকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালে তুলতেও সাহায্য করেছেন। বরুশিয়ার বিপক্ষে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতে ব্রাজিলকে কোপা আমেরিকা শিরোপা জেতাতে পারলে এ বছর ব্যালন ডি’অর জয়ের দৌড়ে তিনিই এগিয়ে থাকবেন। তবে শিরোপা লড়াইয়ের আগে ভিনিসিয়ুস সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, তার কাছে ব্যক্তিগত অর্জনের চেয়ে দলীয় অর্জনই বড়, ‘ব্যালন ডি’অর জয় নিয়ে আমি কখনো ভাবিনি। এই মৌসুমে আমার জন্য সবচেয়ে ভালো ব্যাপার হবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতা।’ ফাইনালের আগে গতকাল স্কোয়াড ঘোষণা করেছে মাদ্রিদ। ২৫ সদস্যের স্কোয়াডে প্রত্যাশিত প্রায় সব তারকাই আছেন। গোলরক্ষক থিবো কর্তোয়ার চোট থাকলেও তিনি আছেন স্কোয়াডে। যদিও, নকআউটে দারুণ করেছেন আন্দ্রে লুনিন। রক্ষণে ভরসার প্রতীক হয়ে থাকা দানি কার্ভাহাল, নাচো ফার্নান্দেজ, রুদিগার, ফারল্যান্ড মেন্দিরাই আছেন। মাদ্রিদের মধ্যমাঠের দুই অতন্দ্র প্রহরী টনি ক্রুস ও লুকা মদ্রিচ জুটিতে শেষবারের মতো একসঙ্গে মাঠে দেখা যাবে। আগেই জানিয়েছিলেন, ফাইনাল দিয়ে ক্লাব ক্যারিয়ারের ইতি টানবেন ক্রুস। এটিই হতে যাচ্ছে মাদ্রিদের জার্সিতে তার শেষ ম্যাচ। এদের সঙ্গে আছেন মাদ্রিদের তরুণ তুর্কি জুড বেলিংহাম। পরীক্ষিত সৈনিক লুকাস ভাসকুসেজ, রদ্রিগো, ভিনিসিয়ুস জুনিয়রের পাশাপাশি আছেন সেমিফাইনালের নায়ক হোসেলু। কোচ কার্লো আনচেলত্তির অধীনে আরো একটি শিরোপার অপেক্ষায় লা রোজারা। রিয়াল মাদ্রিদের বর্তমান দলটিতে আছেন তিনজন ব্রাজিলিয়ান ফুটবলার ভিনিসিয়ুস জুনিয়র, রদ্রিগো ও এদের মিলিতাও। এই তিনজন ২০২২ সালে একসঙ্গে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপা জিতেছেনও। তবে ডর্টমুন্ডের ৩২ সদস্যের বর্তমান স্কোয়াডে ১৩টি দেশের খেলোয়াড় থাকলেও নেই কোনো ব্রাজিলিয়ান। ইতিহাস বলছে, ২০০৬ থেকে ২০২৩ সাল পর্যন্ত টানা ১৮ বছর যেসব ক্লাব চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপা জিতেছে, সেসব ক্লাবে অন্তত একজন ব্রাজিলিয়ান ফুটবলার ছিলেন। দেড় যুগের এই ধারাবাহিকতা বজায় থাকলে এবারো চ্যাম্পিয়ন হওয়ার কথা ব্রাজিলিয়ান ফুটবলারের ক্লাবের, মানে রিয়াল মাদ্রিদের! মৌসুমের সবচেয়ে বড় এই ম্যাচের আগে চাপ থাকাটাই হয়তো স্বাভাবিক। কিন্তু এমন এক ফাইনালের আগে কোনো প্রকার চাপ বা ভয় অনুভব করছেন না বলেই জানিয়েছেন রিয়াল মাদ্রিদের ডিফেন্ডার অ্যান্টোনি রুডিগার। এমনকি বড় ফাইনালের আগে রিয়ালকে ভাগ্যবান মানতেও নারাজ তিনি। জার্মান এই তারকার বক্তব্য, ১৪ বার শিরোপা জেতার পর এটাকে কেবল ভাগ্য বলা চলে না। ফাইনালের আগে এল মুন্ডোকে দেয়া সাক্ষাৎকারে নিজের এমন মনোভাবের কথা জানান রুডিগার, ‘কেউ যদি ১৪ বার জেতে (চ্যাম্পিয়ন্স লিগ) তাহলে আপনি ভাগ্য নিয়ে কথা বলতে পারেন না। রাস্তায় আপনি যেখানে যান, লোকে বলাবলি করে, ‘১৫ বার করে দেখানো যাক। এটাই ডিএনএ। জেতা। আমি এটা পছন্দ করি। আর এজন্যই এই ক্লাবে এসেছি।’

রিয়াল মাদ্রিদ ও বরুশিয়া ডর্টমুন্ড এখন পর্যন্ত ১৪ বার মুখোমুখি হয়েছে। সর্বশেষ ২০১৭-১৮ মৌসুমে গ্রুপ ‘এইচ’-এর প্রথম লেগে ৩-২ ও ফিরতি লেগে ৩-১ ব্যবধানে হেরেছে জার্মান ক্লাবটি। আর ১৪ বারের দেখায়ও জয়ের দিক থেকে এগিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সফলতম দল রিয়াল মাদ্রিদ।

তারা ছয়বার জয়ের বিপরীতে হেরেছে তিনবার। আর বাকি পাঁচটি ম্যাচ হয়েছিল ড্র। ওয়েম্বলিতে আজ ১৫ বারের মতো মুখোমুখি হবে রিয়াল ও ডর্টমুন্ড।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App