×
Icon এইমাত্র
কমপ্লিট শাটডাউন কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে কোটা আন্দোলনকারীরা বাংলাদেশ টেলিভিশনের মূল ভবনে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। বিটিভির সম্প্রচার বন্ধ। কোটা সংস্কার আন্দোলনে সারা দেশে এখন পর্যন্ত ১৯ জন নিহত কোটা ইস্যুতে আপিল বিভাগে শুনানি রবিবার: চেম্বার আদালতের আদেশ ছাত্রলীগের ওয়েবসাইট হ্যাক ‘লাশ-রক্ত মাড়িয়ে’ সংলাপে বসতে রাজি নন আন্দোলনকারীরা

খেলা

খেলাঘরকে হারিয়ে আবাহনীর জয়যাত্রা অব্যাহত

Icon

প্রকাশ: ২৫ মে ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

খেলাঘরকে হারিয়ে আবাহনীর জয়যাত্রা অব্যাহত

কাগজ প্রতিবেদক : ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন নারী ক্রিকেট লিগে আবাহনীর জয়রথ যেন থামছেই না। লিগে একের পর এক জয় দিয়ে টানা তিন ম্যাচ নিজেদের করে নিয়েছে নাহিদারা। গতকাল খেলাঘর কল্যাণ সমিতিকে ৬ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে আবাহনী। তাতে লিগে তিন ম্যাচে টানা জয় পাওয়া দলের তালিকায় তিন নম্বরে জায়গায় করে নিল তারা। এর আগে লিগে টানা তিন ম্যাচে জয় পাওয়া দল দুটি হলো মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব ও রূপালী ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব। দিনের আরেক ম্যাচে কলাবাগান ক্রীড়া চক্রকে ৪ উইকেটে হারিয়েছে বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান (বিকেএসপি)। দিনের শেষ ম্যাচে জাভেদ আহসান সোহেল ক্রিকেট ক্লাবকে ৯ উইকেটে হারিয়েছে বাংলাদেশ আনসার।

বিকেএসপির ১ নম্বর মাঠে গতকাল মুখোমুখি হয় আবাহনী-খেলাঘর সমাজ কল্যাণ সমিতি। টস হেরে ব্যাটিং করতে নেমে নাহিদা আক্তারদের ঘূর্ণি জাদুতে মাত্র ১৪০ রানে অলআউট হয় খেলাঘর। রান তাড়া করতে নেমে মাত্র ২৫.৩ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় আবাহনী। সর্বোচ্চ ৪৬ রান করে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন শারমিন সুলতানা। ৫৭ বলে এই রান করেন তিনি। শারমিনের সঙ্গে ৫ রান করে অপরাজিত ছিলেন নাহিদা। এছাড়া ওপেনার দিলারা দোলা-আফিয়া আসিমা ইরা সমান ৩০ রান করে আউট হন। খেলাঘরের হয়ে সর্বোচ্চ ২ উইকেট নেন নুজহাত সাবাহ ফিরদাউস। এদিকে এর আগে খেলাঘরের ব্যাটাররা ব্যাট হাতে সুবিধা করতে পারেননি। তবে দলটির প্রথম উইকেট নিতে আবাহনীকে অপেক্ষা করতে হয় নবম ওভার পর্যন্ত। ততক্ষণে মাত্র ১৮ রান হয়। ২৮ বলে ২ রান করে ওপেনিংয়ে নামা অধিনায়ক সানজিদা ইসলাম মাঠ ছাড়লে ভাঙে জুটি। এরপর থেকে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে খেলাঘর। ব্যতিক্রম ছিলেন তাজ ও ওপেনার সুমি আক্তার। সর্বোচ্চ ৪৫ রান করেন তাজ। সুমি ৩০ রান করেন। আর কোনো ব্যাটার বিশের কাছে যেতে পারেননি। আবাহনীর হয়ে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট নেন নাহিদা। ২ উইকেট করে নেন জাহানারা আলম ও স্বর্ণা আক্তার। এ ম্যাচসহ টানা তিন জয়েও আবাহনী শীর্ষে উঠতে পারেনি। রানরেটে পিছিয়ে থেকে দলটির অবস্থান তৃতীয় স্থানে। শীর্ষে মোহামেডান আর দ্বিতীয় স্থানে রূপালী ব্যাংক। সমান ম্যাচ খেলে মাত্র ১ জয়ে খেলাঘরের অবস্থান সপ্তম স্থানে। এদিকে নিশিথা আক্তার নিশির ঘূর্ণি আর সুমাইয়া আক্তারের ফিফটিতে কলাবাগান ক্রীড়া চক্রের বিপক্ষে বড় জয় পেয়েছে বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান (বিকেএসপি)।

ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন নারী ক্রিকেট লিগে বিকেএসপির ৪ নম্বর মাঠে মুখোমুখি হয় বিকেএসপি-কলাবাগান। টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে ১৪৭ রানে অলআউট হয় কলাবগান। তাড়া করতে নেমে মাত্র ৩৪.৫ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় বিকেএসপি। ৬০ রানে অপরাজিত থেকে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন বিকেএসপির অধিনায়ক সুমাইয়া। ৯টি চারে ৬৫ বলে ইনিংসটি সাজিয়েছেন তিনি। এছাড়া ইভা ২১ ও ফারজানা ইয়াসমিন ২৩ রান করেন। কলাবাগানের হয়ে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট নেন তাহিন তাহেরা সুমনা। এর আগে নিশির ঘূর্ণিতে অসহায় হয়ে পড়েছিলেন কলাবাগানের ব্যাটাররা। কলাবাগানের হয়ে সর্বোচ্চ ৩৬ রান করেন জান্নাতুল ফেরদাউস তিথি। এছাড়া রচনা তৃপ্তি ৩০, লাতিকা মাধব ২৩ রান করেন। নিশিথা ১০ ওভারে ৩২ রান দিয়ে একাই নেন ৫ উইকেট। তার হাতে ওঠে ম্যাচসেরার পুরস্কার। ৩ ম্যাচে বিকেএসপির এটি দ্বিতীয় জয়। অন্যদিকে সমান ম্যাচ খেলে কলাবাগানের এটি দ্বিতীয় হার। পয়েন্ট টেবিলে বিকেএসপির অবস্থান চতুর্থ স্থানে আর কলাবাগানের অবস্থানে ষষ্ঠতে। আরেক ম্যাচে তিন নম্বর মাঠে জাভেদ আহসান সোহেল ক্রিকেট ক্লাবকে ৯ উইকেটে হারিয়েছে বাংলাদেশ আনসার ও ভিডিপি। শুরুতে ব্যাট করতে নেমে মাত্র ৭০ রানে অলআউট হয় জাভেদ আহসান সোহেল ক্রিকেট ক্লাব। ওই রান ১৮ ওভার খেলেই তাড়া করে ফেলে বাংলাদেশ আনসার। জাভেদ আহসানের হয়ে ৫৭ বল খেলে সর্বোচ্চ ১৭ রান করেন ভারতী দাইমান্তি মুকেশ মুলে।

আনসারের হয়ে দুই উইকেট করে নেন ফুয়ারা বেগম ও ফাহিমা খাতুন। রান তাড়ায় নেমে শারমিন আক্তার সুপ্তার ৫৯ বলে ২৭ রানের অপরাজিত ইনিংসে জয় পায় আনসার। এর আগে লিগের আগের দিনের ম্যাচে মোহামেডানের হয়ে ব্যক্তিগত ১৭৯ রানের ইনিংস খেলেন মুর্শিদা খাতুন হ্যাপি। রেকর্ড গড়া এ ইনিংসের মধ্য দিয়ে লিগের ইতিহাসের সবচেয়ে বেশি রান করা ব্যাটার হিসেবে মোহামেডানের সতীর্থ জাসিয়া আক্তারকে পেছনে ফেলে শীর্ষে স্থানে উঠে আসেন মুর্শিদা। ওই ম্যাচে দল হিসেবেও মোহামেডান রেকর্ড পরিমাণ ৩৯২ রান সংগ্রহ করে।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App