×
Icon এইমাত্র
কমপ্লিট শাটডাউন কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে কোটা আন্দোলনকারীরা বাংলাদেশ টেলিভিশনের মূল ভবনে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। বিটিভির সম্প্রচার বন্ধ। কোটা সংস্কার আন্দোলনে সারা দেশে এখন পর্যন্ত ১৯ জন নিহত কোটা ইস্যুতে আপিল বিভাগে শুনানি রবিবার: চেম্বার আদালতের আদেশ ছাত্রলীগের ওয়েবসাইট হ্যাক ‘লাশ-রক্ত মাড়িয়ে’ সংলাপে বসতে রাজি নন আন্দোলনকারীরা

খেলা

কোহলিদের কোচ হতে চান না পন্টিং

Icon

প্রকাশ: ২৪ মে ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

কাগজ ডেস্ক : ভারতের জাতীয় ক্রিকেট দলের বর্তমান কোচ রাহুল দ্রাবিড়ের মেয়াদ শেষ হতে যাচ্ছে আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পরেই। আর এ বিষয়টিকে সামনে রেখেই গত ১৩ মে নতুন কোচ নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি দিয়েছিল ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)। বিসিসিআইয়ের বিজ্ঞপ্তিতে সাড়া দিয়ে অনেক তারকা খেলোয়াড়ও আবেদন করেছিলেন বিশ্ব ক্রিকেটের পরাশক্তি দলটির কোচ হতে। অন্যদিকে গুঞ্জন ছিল ভারতীয় দলের কোচিং হওয়ার দৌড়ে আছে জাস্টিন ল্যাঙ্গার, রিকি পন্টিং, স্টিফেন ফ্লেমিং ও গৌতম গম্ভীরের নাম। তবে সে তালিকায় বেশ জোরেশোরেই শোনা গিয়েছিল আরেক ক্রিকেটীয় পরাশক্তি, অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক রিকি পন্টিং। অস্ট্রেলিয়ান কিংবদন্তি পন্টিংকে কোচ করে আনতে বিসিসিআই তার সঙ্গে সম্প্রতি সরাসরি যোগাযোগও করেছে। তবে গতকাল আইসিসিকে দেয়া এক বার্তায় রিকি পন্টিং জানিয়েছেন তিনি ভারতীয় ক্রিকেট দলের কোচ হতে চান না।

আইসিসিকে দেয়া বার্তায় গতকাল পন্টিং বলেছেন, ‘ভারতের কোচ হওয়া নিয়ে আমি অনেক প্রতিবেদন দেখেছি।

সাধারণত এ ধরনের বিষয় আপনি নিজে জানার আগেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে চলে আসে। তবে এটা ঠিক যে আইপিএলের সময় সরাসরি কিছু আলাপ আলোচনা হয়েছিল। তারা আমার কাছে শুধু এটা জানতে চেয়েছিল, আমি (ভারতের কোচ হতে) কতটা আগ্রহী।’

যেখানে এমন দলের কোচ হতে অন্যরা মুখিয়ে থাকেন সেখানে পন্টিংকে বিসিসিআই যোগাযোগ করার পরও কেন কোচ হতে চান না এ প্রশ্নের জবাবে পরিবারকে সময় দিতেই আগ্রহ দেখাননি বলে পন্টিং জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘একটি জাতীয় দলের সিনিয়র কোচ হতে পারলে ভালোই হতো। কিন্তু আমার জীবনে আরো অনেক জিনিস আছে। আমি বাড়িতে সময় কাটাতে চাই। সবাই জানে, ভারতীয় দলের কোচ হলে আইপিএলের দলের সঙ্গে থাকা যায় না। তাই আমাকে একটা ছেড়ে আরেকটি বেছে নিতে হবে। তাছাড়া জাতীয় দলের কোচকে বছরে ১০ থেকে ১১ মাস কাজ করতে হয়। তাই আমি যতই চাই না কেন, এটা ঠিক এই মুহূর্তে আমার জীবনধারার সঙ্গে খাপ খাবে না এবং যে কাজগুলো আমি করতে পছন্দ করি, তা উপভোগ করতে পারব না।’

ভারতের কোচ হওয়ার প্রস্তাব নিয়ে পরিবারের সঙ্গেও আলাপ করেছিলেন পন্টিং। তবে তাদের সায় থাকলেও অজি এই ক্রিকেটার নিজেকে বিরত রেখেছেন বড় দায়িত্ব থেকে। পন্টিং বলেন, ‘আমার পরিবার ও সন্তানরা আইপিএলের সময় পাঁচ সপ্তাহ আমার সঙ্গেই কাটিয়েছে। ওরা প্রতি বছরই ভারতে আসে। আমি আমার ছেলের কানে চুপিচুপি কথাটা বলেছি, তোমার বাবাকে ভারতের কোচ হওয়ার প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। আমার ছেলে বলল, ‘বাবা, তুমি চাকরিটা নিয়ে নাও। তাহলে আগামী কয়েক বছর আমরা ভারতেই থাকব।’ পন্টিং বলেন, ‘আমার সন্তানরা ভারতে থাকতে ও ভারতের ক্রিকেট সংস্কৃতিকে এতটাই পছন্দ করে। কিন্তু ওই যে বললাম, আমার জীবনধারার সঙ্গে এই মুহূর্তে চাকরিটা ঠিক যায় না।’

উল্লেখ্য ভারতের সঙ্গে পন্টিংয়ের সংযোগ বেশ পুরোনো। খেলোয়াড় কিংবা কোচ উভয় ভূমিকায় মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের হয়ে আইপিএল শিরোপা জিতেছেন। ২০১৮ সাল থেকে আরেক আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজি দিল্লি ক্যাপিটালসকে কোচিং করাচ্ছেন। যদিও এবারের আসরে দিল্লি জিতেছে ৭টি ম্যাচ, হেরেছেও ৭টিতে। কিন্তু ১৪ পয়েন্ট পেলেও নেট রানরেটে পিছিয়ে থাকায় লিগপর্ব থেকে ছিটকে পড়তে হয়েছে দিল্লিকে। এছাড়া মেজর লিগ ক্রিকেটে ওয়াশিংটন ফ্রিডমের প্রধান কোচের দায়িত্বও নিয়েছেন দুই বছরের চুক্তিতে। বিগ ব্যাশে হোবার্ট হারিকেন্সের ‘হেড অব স্ট্র্যাটেজি’ তিনি। এছাড়া অস্ট্রেলিয়ায় ধারাভাষ্যকার ও বিশ্লেষক হিসেবেও টিভি চুক্তি আছে সাবেক এই অজি অধিনায়কের। মূলত জীবনে ব্যস্ততা থাকায় জাতীয় দলের কোচ হিসেবে কাজ করার কথা ভাবছেন না পন্টিং।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App