×

খেলা

মেসিকে ছাড়া কোনোমতে হার এড়াল মায়ামি

Icon

প্রকাশ: ১৭ মে ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

কাগজ ডেস্ক : দলে মেসির উপস্থিতি কতটা প্রভাব ফেলতে পারে তা হাড়ে হাড়ে বুঝতে পেরেছে মেজর লিগ সকারের অন্যতম প্রতিদ্ব›দ্বী ইন্টার মায়ামি। পরপর পাঁচ ম্যাচে অপরাজিত থাকলেও মেসিবিহীন ম্যাচে গতকাল অরল্যান্ডে সিটি এফসির বিপক্ষে গোলশূন্য ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে মার্তিনো শিষ্যদের। এদিকে কোপা ইতালিয়ার ফাইনালে শিরোপা জয়ের দৌড়ে এগিয়ে থাকা আটলান্টাকে ১-০ গোলে হারিয়ে তিন বছর পর কোপা ইতালিয়ার শিরোপা জিতেছে জুভেন্টাস। দারুণ এ জয়ের মধ্য দিয়ে ১৫তম লিগ শিরোপার মালিক হলো মাসিমিলিয়ানো অ্যালেগ্রির দল। অন্যদিকে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে গত বুধবার নিউক্যাসলকে ৩-২ গোলে হারিয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। এ জয়ে হতাশাজনক মৌসুমে কিছুটা হলেও আশার আলো দেখছে টেন হাগের শিষ্যরা। আগামী মৌসুমেও ইউরোপীয়ান আসরে খেলার আশা এখনো টিকে থাকল ম্যানইউর। রাতের আরেক ম্যাচে ব্রাইটনকে তাদের ঘরের মাঠে ২-১ গোলে হারিয়েছে চেলসি। এ জয়ে এক ম্যাচ হাতে থাকতে ৬০ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের ছয় নম্বরে আছে পালমাররা। মায়ামির হয়ে মনট্রিলের বিপক্ষে ম্যাচে ফাউলের শিকার হয়ে চোট পান লিওনেল মেসি তাতে গতকাল মাঠের বাইরে তিনি। তাতে টানা পাঁচ ম্যাচ পর জয়রথ থামল ইন্টার মিয়ামির। মেজর লিগ সকারে (এমএলএস) মেসিবিহীন গতকাল অরল্যান্ডো সিটির বিপক্ষে গোলশূন্য ড্র করেছে মায়ামি। যদিও অরল্যান্ডোর বিপক্ষে চলতি বছরের মার্চে নিজেদের ঘরের মাঠে ৫-০ গোলে জিতেছিল মেসি-সুয়ারেজরা। যেখানে দলের হয়ে জোড়া গোল করেছিলেন এলএমটেন। মেসি না থাকায় মায়ামির আক্রমণভাগকে নেতৃত্ব দেন মেসির সতীর্থ লুইস সুয়ারেজ। সুয়ারেজকে সঙ্গ দেন রবার্ট টেইলর ও মাতিয়াস রোজাস। কিন্তু তারা অরল্যান্ডোর বিপক্ষে গোল হওয়ার মতো উল্লেখযোগ্য কোনো আক্রমণ করতে পারেনি। পুরো ম্যাচে অন টার্গেটে শুধু তিনটি শট নেয় মায়ামি। বিপরীতে অরল্যান্ডোও অন টার্গেটে তিনটি শট নিয়েছিল। ম্যাচ শেষে গতকাল মেসি না খেলার প্রভাব নিয়ে মায়ামির কোচ টাটা মার্টিনো বলেন, ‘যখন মেসি খেলে না তখন তার অভাবটা আসলে পূরণ হয় না। বিশেষ করে ২৫ গজের মধ্যে তার খেলার যে সক্ষমতা সেটা অন্যদের পক্ষে প্রায় অসম্ভব। আজো আমরা সেটার অভাব বোধ করেছি। ১০ বছর আগে বার্সেলোনাও তার অভাব এভাবে বোধ করত। যখন প্রতিপক্ষ পেছনে থাকে, জমাট রক্ষণে খেলে তখন মেসি একটা সমাধান বের করে ফেলে।’ এর আগে গত শনিবার সিএফ মন্ট্রিলের বিপক্ষে দলের ৩-২ গোলে জয়ের ম্যাচে ৪০তম মিনিটে ফাউলের শিকার হওয়ার পর হাঁটু চেপে ধরে রাখতে দেখা যায় মেসিকে। যদিও ম্যাচের পুরোটা খেলেছিলেন মেসি। অরল্যান্ডের বিপক্ষের ম্যাচে ড্র করলেও, ২৮ পয়েন্ট নিয়ে এমএলএসের ইস্টার্ন কনফারেন্সের পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে মায়ামি। তাদের চেয়ে এক পয়েন্ট কম নিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে আছে সিনসিনাটির। এদিকে কোপা ইতালিয়ায় তিন বছরের আক্ষেপ কাটিয়ে লিগ শিরোপা ঘরে তুলল জুভেন্টাস। ফাইনালে আটালান্টাকে ১-০ গোলে হারিয়ে সর্বোচ্চ ১৫টি কোপা ইতালিয়া শিরোপার মালিক হলো ওল্ড লেডিরা। ইতালির অলিম্পিকোতে গতকাল জমজমাট ফাইনালের পুরোটাজুড়েই বল দখলে এগিয়ে ছিল আটালান্টা। তবে ভাগ্যের কাছে হেরে ৬১ বছর পর শিরোপা ঘরে তোলার সুযোগ হাতছাড়া করে জিয়ান পিয়েরো গ্যাস্পেরিনির শিষ্যরা। ম্যাচের ৪র্থ মিনিটে জুভেন্টাসকে লিড এনে দেন সার্বিয়ান স্ট্রাইকার দুসান ভলাহোভিচ। তার একমাত্র গোলে ভর করে শিরোপা উল্লাসে মাতে জুভেন্টাস। এ জয়ে প্রথম কোচ হিসেবে কোপা ইতালিয়া পাঁচবার জেতার রেকর্ড গড়েছেন অ্যালেগ্রি। ম্যাচের পর সংবাদ সম্মেলনে উচ্ছ¡সিত হয়ে তিনি বলেন, ‘আমি ছেলেদের নিয়ে খুব খুশি। তারা ক্লাব, সমর্থক এবং আমার জন্য আনন্দ বয়ে নিয়ে এসেছে। জয় কখনই সহজ নয়, তবে এটা আমাদের ডিএনএতে আছে।’ অন্যদিকে প্রিমিয়ার লিগে নিউক্যাসলকে ৩-২ গোলে পরাজিত করেছে লিগ টেবিলের অষ্টম স্থানে থাকা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে প্রথমার্ধে ইউনাইটেডের আধিপত্য ৩১ মিনিটে সফল হয়। ডিয়ালোর ডিফ্লেকটেড পাসে একেবারে ফাঁকায় দাঁড়িয়ে থাকা মেইনু বল জালে জড়ান। ১২ গজ দূর থেকে ১৯ বছর বয়সি মিডফিল্ডার মেইনু লো ফিনিশে ইউনাইটেডকে এগিয়ে দেন। ৪৯ মিনিটে জ্যাকব মার্ফির ক্রস থেকে পোস্টের খুব কাছে থেকে সমতা ফেরান এন্থনি গর্ডন। ৫৭ মিনিটে ব্রুনো ফার্নান্দেসের কর্নার থেকে ডিয়ালো নিউক্যাসল গোলরক্ষক মার্টিন ডুব্রাভাকাকে পরাস্ত করলে আবারো এগিয়ে যায় ইউনাইটড। বদলি বেঞ্চ থেকে ওঠে আসা দুই মিনিটের মধ্যে ৮৪ মিনিটে দলের হয়ে তৃতীয় গোলটি করেন হালান্ড। স্টপেজ টাইমে লুইস হলের কার্লিং শটের গোলে নিউক্যাসলকে স্বপ্ন দেখাতে থাকে। যদিও শেষ পর্যন্ত এই গোল সান্ত¡না হয়েই থেকেছে। নিউক্যাসলের এই পরাজয়ে পঞ্চম স্থানে থাকা টটেনহ্যামের আগামী মৌসুমে ইউরোপা লিগে খেলার নিশ্চিত হয়েছে।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App