×

খেলা

টি-টোয়েন্টি র‌্যাঙ্কিং

সাকিব-হাসারাঙ্গা পাশাপাশি

Icon

প্রকাশ: ১৬ মে ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

সাকিব-হাসারাঙ্গা পাশাপাশি
কাগজ প্রতিবেদক : আগামী ২ জুন মাঠে গড়াতে যাচ্ছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের এবারের আসর। বিশ্বকাপের বাজনা যখন বেজে উঠল, তখনই প্রখর হয়ে উঠল বিশ্বসেরা দুই অলরাউন্ডারের শীর্ষত্বের লড়াই। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে সর্বোচ্চ ২২৮ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে অবস্থান করছিলেন সাকিব আল হাসান। এবার এক ধাপ এগিয়ে সাকিবের পাশে বসলেন বিশ্বকাপে শ্রীলঙ্কাকে নেতৃত্ব দিতে যাওয়া ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা। গতকাল টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে অলরাউন্ডার র‌্যাঙ্কিং হালনাগাদ করেছে আইসিসি। র‌্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষ তিনে থাকা মোহাম্মদ নবি পয়েন্ট ২১৮। এদিকে ২১০ পয়েন্ট নিয়ে দুই ধাপ এগিয়ে চারে উঠে এসেছেন জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক অলরাউন্ডার সিকান্দার রাজা। এক ধাপ পিছিয়ে ২০৫ পয়েন্ট নিয়ে পাঁচে রয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকার অলরাউন্ডার কাইল মার্করাম। জিম্বাবুয়ে সিরিজের শেষ দুই ম্যাচে খেলেছেন সাকিব। সিরিজের শেষ দুই ম্যাচে ৫ উইকেট নেয়া সাকিব ব্যাট হাতে ততটা ভালো করতে পারেননি। চতুর্থ টি-টোয়েন্টিতে ১ রানের পর পঞ্চম ম্যাচে রান করেছেন ২১। তাতে তার রেটিং পয়েন্ট ২৩১ থেকে কমে হয়েছে ২২৮। সমান ২২৮ রেটিং পয়েন্ট হাসারাঙ্গারও। জিম্বাবুয়ে সিরিজ দিয়ে প্রায় ১০ মাস পর টি-টোয়েন্টিতে ফেরেন সাকিব। এর আগে সর্বশেষ ২০২৩ সালে জুলাই মাসে আফগানিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি খেলেন সাকিব। তখন তার রেটিং পয়েন্ট ছিল ২৮৮। অনেক দিন টি-টোয়েন্টির দলের বাইরে থাকায় তার রেটিং পয়েন্ট এমনিতেই কমছিল। অলরাউন্ডার র‌্যাঙ্কিংয়ের তিনে থাকা মোহাম্মদ নবীও খুব বেশি রেটিং পয়েন্টে পিছিয়ে নেই। সাকিব-হাসারাঙ্গার সঙ্গে তার পার্থক্য মাত্র ১০ রেটিং পয়েন্টের। বাংলাদেশ সিরিজে অলরাউন্ড পারফর্ম করে দুই ধাপ এগিয়ে চার নম্বরে আছেন সিকান্দার রাজা। এদিকে ডাবলিনে পাকিস্তানের বিপক্ষে ৩ ম্যাচের সিরিজে ১২৮ রান করে ৬ ধাপ এগিয়ে ব্যাটসম্যানদের র‌্যাঙ্কিংয়ে ৫৩ নম্বরে উঠে এসেছেন আয়ারল্যান্ডের অ্যান্ড্রæ বলবার্নি। হ্যারি টেক্টর এগিয়েছেন ১২ ধাপ, আছেন ৬৯ নম্বরে। পাকিস্তানের বিপক্ষে ৩ ম্যাচে তার রান ৬৯। পাকিস্তানের ফখর জামান দুই ইনিংসে রান করেছেন ৯৮, সেটা প্রায় ১৭০ স্ট্রাইকরেটে। তাতে ৪ ধাপ এগিয়ে ৫৭তম স্থানে উঠে এসেছেন ফখর। অবসর ভেঙে ফেরা ইমাদ ওয়াসিম ২৪ ধাপ এগিয়ে বোলারদের র‌্যাঙ্কিংয়ে ৫২তম স্থানে আছেন। সিরিজে ৭.২০ ইকোনমিতে ৩ ম্যাচে ২ উইকেট নিয়েছেন ইমাদ। এদিকে আইসিসির টি-টোয়েন্টি বোলারদের র‌্যাঙ্কিংয়ে তিন ধাপ এগিয়েছেন দেশের অন্যতম ফাস্ট বোলার তাসকিন আহমেদ। ৫৭৯ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে ২৩ নম্বরে উঠে এসেছেন তিনি। জিম্বাবুয়ে সিরিজের শেষ দুই ম্যাচ খেলে বোলারদের র‌্যাঙ্কিংয়ে পাঁচ ধাপ এগিয়েছেন বাঁহাতি পেসার মোস্তাফিজুর রহমানও। ৫৭২ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে ২৫ নম্বরে উঠে এসেছেন তিনি। তবে সবচেয়ে বড় লাফটা দিয়েছেন রিশাদ হোসেন। এই লেগ স্পিনার ২১ ধাপ এগিয়ে ঢুকে পড়েছেন সেরা ১০০ এর মধ্যে। ৮৯ নম্বরে আছেন রিশাদ। সিরিজে পাঁচ উইকেট শিকার করা সাকিব আল হাসানও এক ধাপ এগিয়ে ৩০ নম্বরে উঠেছেন। তবে তাসকিন-রিশাদরা উন্নতি করলেও অবনতি হয়েছে শেখ মেহেদী, নাসুম আহমেদ, শরিফুল ইসলাম ও হাসান মাহমুদের। এদিকে সাত ধাপ পিছিয়ে ২৯ নম্বরে নেমে গেছেন শেখ মেহেদী। অন্যদিকে বিশ্বকাপে স্ট্যান্ডবাই তালিকায় জায়গা পাওয়া হাসান মাহমুদ ছয় ধাপ পিছিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ওবেদ ম্যাকয়ের সঙ্গে ৫৭ নম্বরে আছেন। দলের বাইরে থাকা নাসুম আহমেদ ও জিম্বাবুয়ে সিরিজে খেলা শরিফুল ইসলাম পিছিয়েছেন দুই ধাপ করে। দক্ষিণ আফ্রিকার লুঙ্গি এনগিডির সঙ্গে যৌথভাবে ৪৫ নম্বরে নাসুম ও ৪২ নম্বরে আছেন শরিফুল। এদিকে বাংলাদেশের বিপক্ষে ভালো করায় ১৪ ধাপ এগিয়েছেন জিম্বাবুয়ের পেসার ব্লেসিং মুজারাবানী। ৫৫ নম্বরে জায়গা করে নিয়েছেন তিনি। পাঁচ ধাপ এগিয়ে সিকান্দার রাজা আছেন ৬৩ নম্বরে। এক ধাপ এগিয়ে ৪১ নম্বরে জায়গা করে নিয়েছেন রিচার্ড এনগারাভাও। বোলারদের র‌্যাঙ্কিংয়ে যথারীতি শীর্ষে আছেন ইংল্যান্ডের আদিল রশিদ। সেরা দশে নেই কোনো পরিবর্তন। এদিকে ব্যাটারদের র‌্যাঙ্কিংয়ে পতন অব্যাহত আছে লিটন দাসের। আরো ৪ ধাপ নেমে ৩৫ নম্বরে আছেন এই উইকেটকিপার-ব্যাটার। বাংলাদেশের অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্তও ছয় ধাপ পিছিয়েছেন। ৫২৬ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে ইংল্যান্ডের লিয়াম লিভিংস্টোনের সঙ্গে যৌথভাবে ৪০ নম্বরে আছেন শান্ত। পিছিয়েছেন সাকিব ও আফিফও। ১০ ধাপ পিছিয়ে ৭৯ নম্বরে নেমে গেছেন আফিফ। ৮ ধাপ পিছিয়ে সাকিব আছেন তার পরেই। লিটন-শান্তদের অবনতি হলেও দারুণ উন্নতি হয়েছে তাওহীদ হৃদয় ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের। ১৮ ধাপ এগিয়ে হৃদয় উঠেছেন ৭২ নম্বরে। আর ৬ ধাপ এগিয়ে রিয়াদ আছেন ৭৫ নম্বরে।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App