×

খেলা

বাবরের রেকর্ডে সিরিজ জয় পাকিস্তানের

Icon

প্রকাশ: ১৬ মে ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

কাগজ ডেস্ক : বিশ্বকাপের আগে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের শেষ ম্যাচে গতকাল আয়ারল্যান্ডকে ৬ উইকেটে হারিয়ে সিরিজ নিজেদের করে নেয় পাকিস্তান। শুরুতে ব্যাট করতে নেমে ৭ উইকেট হারিয়ে নির্ধারিত ওভারে ১৭৮ রান করে আয়ারল্যান্ড। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ৬ উইকেট হাতে রেখেই জয় ছিনিয়ে নেয় বাবর আজমরা। এদিন নিজের ক্যারিয়ারের অনন্য একটি রেকর্ড গড়েন। একমাত্র খেলোয়াড় হিসেবে পঞ্চাশোর্ধ ইনিংস খেলার রেকর্ড গড়েন তিনি। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে সর্বোচ্চ ৩৯টি পঞ্চাশোর্ধ ইনিংস খেলেন পাক অধিনায়ক। গতকাল পাকিস্তানের হয়ে ম্যাচসেরা হয়েছেন বল হাতে ৩ উইকেট নেয়া শাহিন শাহ আফ্রিদি। ডাবলিনে গতকাল আইরিশরা আগে ব্যাট করতে নেমে শাহিন আফ্রিদির বোলিংতোপের মুখেও ৭ উইকেটে ১৭৮ রান করে। জবাবে বাবর আজম ও মোহাম্মদ রিজওয়ানের অর্ধশততে ভর করে ১৭ ওভারেই লক্ষ্যে পৌঁছে যায় সফরকারীরা। রান তাড়া করতে নেমে ১৬ রানেই সিয়াম আইয়ুবের উইকেট হারায় পাকিস্তান। তিনি ১১ বলে ৩ চারে ১৪ রান করে সাজঘরে ফেরেন। এরপর অবশ্য রিজওয়ান ও বাবর ৭৪ বলে ১৩৯ রানের জুটি গড়ে দলের জয়ের ভিত গড়ে দেন। দলীয় ১৫৫ রানের মাথায় রিজওয়ান ফেরেন ৩৮ বলে ৪টি চার ও ৩ ছক্কায় ৫৬ রানের ইনিংস খেলে। বাবরও বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি এরপর। ১৫৮ রানের মাথায় তিনিও ফেরেন সাজঘরে। তবে যাওয়ার আগে ৪২ বলে ৬টি চার ও ৫ ছক্কায় ৭৫ রানের ইনিংস খেলে যান। ১৬৭ রানের মাথায় ইফতিখার আহমেদ ৫ রান করে ফিরলেও আজম খান ৬ বলে ১ চার ও ২ ছক্কায় অপরাজিত ১৮ রানের ইনিংস খেলে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন। বল হাতে আয়ারল্যান্ডের মার্ক অ্যাডায়ার ৪ ওভারে ২৮ রান দিয়ে ৩টি উইকেট নেন। ৪ ওভারে ৪৯ রান দিয়ে ১টি উইকেট নেন ক্রেইগ ইয়াং। তার আগে আয়ারল্যান্ডের ইনিংসের লাগাম টেনে ধরেন শাহিন ও আব্বাস আফ্রিদি। সঙ্গে মোহাম্মদ আমির ও ইমাদ ওয়াসিম চাপ তৈরি করেন। তাতে আইরিশদের তিনজন ব্যাটসম্যান শুধু দুই অঙ্কের কোটায় রান করতে পারেন। তার মধ্যে অধিনায়ক লরকান টাকার একপ্রান্ত আগলে ৪১ বলে ১৩টি চার ও ১ ছক্কায় সর্বোচ্চ ৭৩ রান করেন। অ্যান্ডি বালবিরনি ২ চার ও ৩ ছক্কায় করেন ৩৫ রান। আর হ্যারি টেক্টর ২ চার ও ১ ছক্কায় অপরাজিত ৩০ রানের ইনিংস খেলে দলীয় সংগ্রহকে ১৭৮ পর্যন্ত নিয়ে যান। বল হাতে শাহিন ৪ ওভারে মাত্র ১৪ রান দিয়ে ৩টি উইকেট নেন। আব্বাস আফ্রিদি অবশ্য ব্যয়বহুল ছিলেন। তিনি ৪ ওভারে ৪৩ রান দিয়ে নেন ২টি উইকেট। এছাড়া আমির ৪ ওভারে ৩২ রান দিয়ে ১টি ও ইমাদ ৩ ওভারে ২৩ রান দিয়ে ১টি উইকেট নেন।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App