×

খেলা

প্যারিসে শেষটা রাঙাতে পারলেন না এমবাপ্পে

Icon

প্রকাশ: ১৪ মে ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

প্যারিসে শেষটা রাঙাতে পারলেন না এমবাপ্পে
কাগজ ডেস্ক : পিএসজির ঘরের মাঠ পার্ক ডি প্রিন্সেসে পিএসজি ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচ খেলতে গতকাল মাঠে নেমেছিলেন ফ্রান্সের তারকা ফুটবলার কিলিয়ান এমবাপ্পে। কিন্তু প্যারিসের বিদায়টা তার জন্য মোটেই সুখকর হয়নি। পিএসজির হয়ে এমবাপ্পের শেষ ম্যাচে গতকাল লিগ ওয়ানে তুলুজের কাছে বিস্ময়করভাবে ৩-১ ব্যবধানে হেরে গেছে লিগের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন প্যারিস জায়ান্ট পিএসজি। এবারের লিগ ওয়ানে এটি পিএসজির দ্বিতীয় হার। ইতোমধ্যেই লিগ শিরোপা নিশ্চিত হওয়া পিএসজির হয়ে একমাত্র গোলটিও করেছেন এমবাপ্পে। এদিকে প্রিমিয়ার লিগের পয়েন্ট টেবিল নিয়ে মিউজিক্যাল চেয়ারের লড়াই চলছেই। ম্যানচেস্টার সিটি, লিভারপুল এবং আর্সেনালের মধ্যে সীমাবদ্ধ এই লড়াই এখন এসে পৌঁছেছে ম্যানসিটি-আর্সেনালে। তাতে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে ১-০ গোলের ব্যবধানে হারিয়ে আরেকবার পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষস্থান দখল করেছে আর্সেনাল। গতকাল রাতে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচটি ১-০ গোলে জিতেছে মিকেল আর্তেতার দল। ব্যবধান গড়ে দেয়া গোলটি করেন লিয়ান্দ্রো ট্রোসার্ড। সর্বশেষ ১৭ বার ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে খেলতে এসে এ নিয়ে দ্বিতীয় জয়ের দেখা পেয়েছে গানাররা। এ জয়ে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে উঠে এসেছে মিকেল আর্তেতার দল। ৩৭ ম্যাচ শেষে আর্সেনালের পয়েন্ট এখন ৮৬। এক ম্যাচ কম খেলে সিটির পয়েন্ট ৮৫। ইউনাইটেডের বিপক্ষে জিতে আর্সেনালের চোখ এখন মঙ্গলবার রাতে ম্যানচেস্টার সিটি-টটেনহাম ম্যাচে। সেদিন টটেনহামের বিপক্ষে সিটি পয়েন্ট হারালেই শিরোপা রেসে জিতে যাবে আর্সেনাল। তবে সেই ম্যাচে ফল যাই হোক, এটুকু নিশ্চিত যে শেষ দিনেই নির্ধারিত হবে প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা। এদিকে বুন্দেসলিগায় বোচামকে উড়িয়ে দিয়ে অপরাজিত থাকার হাফসেঞ্চুরি করে ফেলল জাভি আলোনসোর দল বায়ার লেভারকুসেন। গতকাল লিগ ম্যাচে প্রতিপক্ষ বোচামকে ৫-০ গোলে বিধ্বস্ত করেছে লেভারকুসেন। লিগে তাদের বাকি আছে আর মাত্র ১ ম্যাচ। আগামী শনিবার মৌসুমে নিজেদের শেষ ম্যাচে হার এড়াতে পারলেই বুন্দেসলিগার ইতিহাসে প্রথম ক্লাব হিসেবে অপরাজিত থেকে মৌসুম শেষ করার রেকর্ড গড়বে তারা। এর আগে ১৯৮৬-৮৭ ও ২০১২-১৩ মৌসুমে শিরোপা জেতার পথে এক ম্যাচ করে হেরেছিল বায়ার্ন মিউনিখ। শুক্রবার এক ভিডিও পোস্টে এমবাপ্পে নিশ্চিত করেছেন এ মৌসুমের পরে তার সঙ্গে পিএসজির চুক্তি শেষ হয়ে গেলে তিনি ক্লাব ছেড়ে চলে যাচ্ছেন। এর মাধ্যমে পিএসজির সঙ্গে তার সাত বছরের সম্পর্কের অবসান হচ্ছে। গত এপ্রিলে শেষ ১১ বারের মধ্যে ১০তম লিগ শিরোপা জিতেছে পিএসজি। টানা তিন লিগ শিরোপা জেতা পিএসজির আরো দুই ম্যাচ বাকি আছে। বাকি আছে ফ্রেঞ্চ কাপের ফাইনালও। কিন্তু এই তিন ম্যাচের কোনোটিই পিএসজির ঘরের মাঠে নয়। ফলে এটিই বিদায় বলে দেয়া এমবাপ্পের জন্য পার্ক ডি প্রিন্সেসে তার শেষ ম্যাচ। লিগে পিএসজির পরের দুই ম্যাচ যথাক্রমে নিস (১৫ মে) ও মেৎসের (১৯ মে) বিপক্ষে। আর ২৫ মে লিওর বিপক্ষে হবে ফ্রেঞ্চ কাপের ফাইনাল। গতকাল ম্যাচের ৮ মিনিটে গোল করে পিএসজিকে এগিয়ে দেন অধিনায়কের আর্মব্যান্ড পরে মাঠে নামা এমবাপ্পে। সফরকারী তুলুজের ম্যাচে ফিরতে খুব একটা সময় লাগেনি। থিস ডালিঙ্গার ১৩ মিনিটের গোলে তুলুজে সমতায় ফিরে। ৬৮ মিনিটে ইয়ান গোহো দুর্দান্ত স্ট্রাইকে তুলুজেকে এগিয়ে দেন। স্টপেজ টাইমে ফ্র্যাং মাগরির গোলে পিএসজির লিগে দ্বিতীয় পরাজয় নিশ্চিত হয়। গত সেপ্টেম্বরে প্রথম লিগ ওয়ানে নিসের কাছে ৩-২ গোলে পরাজয়ের স্বাদ পেয়েছিল পিএসজি। এবারের প্রতিযোগিতায় সব মিলিয়ে ৪৪ গোল করেছেন এমবাপ্পে। সপ্তাহের মাঝামাঝিতে বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের বিপক্ষে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিফাইনাল থেকে বিদায় নেয়া দলটি থেকে ১০টি পরিবর্তন করে কাল মূল দল সাজিয়েছিলেন পিএসজি কোচ লুইস এনরিকে। শুধু এমবাপ্পে ওই দলটি থেকে কালকের ম্যাচে সুযোগ পেয়েছিলেন। এদিকে প্রতিপক্ষের মাঠে ম্যাচের শুরু থেকেই আত্মবিশ্বাসী হয়ে খেলতে থাকে আর্সেনাল। তবে ম্যাচের শুরুতে ভালো সুযোগ পেয়েছিল ইউনাইটেড। কিন্তু গাসমুস হয়লুন শট নেয়ার আগমুহূর্তে পিছলে যাওয়ায় সেটা কাজে লাগাতে পারেননি। আর্সেনাল এগিয়ে যায় ম্যাচের ২০তম মিনিটে। মাঝমাঠ থেকে সতীর্থের উঁচু করে বাড়ানো বল ধরে কিছুটা এগিয়ে বাইলাইন থেকে গোলমুখে পাস দেন কাই হাভার্টজ এবং ছুটে এসে ছোট্ট টোকায় বাকি কাজ সারেন বেলজিয়ান ফরোয়ার্ড। ৪৩তম মিনিটে বাঁ দিক থেকে ডি-বক্সে ঢুকে আলেসান্দ্রো গারনাচো বাইলাইন থেকে কাটব্যাক করেন। কিন্তু তার বল ঝাঁপিয়ে রুখে দেন ডেভিড রায়া। এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় আর্সেনাল। দ্বিতীয়ার্ধে প্রায় সমানতালে চলতে থাকে আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণ। কেউই অবশ্য প্রতিপক্ষকে খুব কঠিন পরীক্ষায় ফেলতে পারছিল না। তাতে আর গোলের দেখা পায়নি কোনো দল। ফলে তিন পয়েন্ট নিয়েই মাঠ ছাড়ে আর্সেনাল।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App