×

খেলা

আর্চারিতে রৌপ্য জিতলেন বন্যা

Icon

প্রকাশ: ১৪ মে ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

কাগজ প্রতিবেদক : ভারতের ভুবনেশ্বরের ওড়িষ্যায় অনুষ্ঠিত অ্যাথলেটিক্স টুর্নামেন্টে গতকাল পোলভোল্টে জাতীয় রেকর্ড গড়েছেন বাংলাদেশি অ্যাথলেট সৌরভ মিয়া। ভারতের কলিঙ্গ স্টেডিয়ামে তিনি ৪.৪০ মিটার লাফিয়ে বাংলাদেশের নতুন জাতীয় রেকর্ড গড়েছেন। অ্যাথলেটিক্সে ভারতে রেকর্ড গড়ার দিনে ভুটানে আরচারিতে রৌপ্য পদক জিতেছে বাংলাদেশ। ভুটানের গ্র্যান্ড পিক্স দ্বিতীয় আসরে কম্পাউন্ড মহিলা বিভাগে বাংলাদেশের বন্যা আক্তার রৌপ্য জেতেন। সেমিফাইনালে বন্যা আক্তার ১৪৫-১৪২ স্কোরে ভুটানের দর্জি দোলমাকে পরাজিত করে ফাইনালে ওঠেন। ফাইনালে তিনি ভারতের সৃষ্টি সিংয়ের কাছে পরাজিত হয়ে রৌপ্য জেতেন। ভারতের জাতীয় সিনিয়র ফেডারেশন অ্যাথলেটিক্সে অংশ নিয়ে ১৮ বছরের রেকর্ড ভেঙে নতুন জাতীয় রেকর্ড গড়েছেন বাংলাদেশের পোলভোল্টার সেনাবাহিনীর সৌরভ মিয়া। রবিবার ওড়িষ্যার ভুবনেশ্বরে অনুষ্ঠিত টুর্নামেন্টের পোলভোল্টে ৪.৪০ মিটার উচ্চতায় লাফিয়ে এই রেকর্ড গড়েন তিনি। এর আগে ২০০৮ সালে ৪.৩৫ মিটারের রেকর্ডটি ছিল নৌবাহিনীর হুমায়ুন কবিরের। এছাড়া ৪০০ মিটার হার্ডেলসে লিবিয়া খাতুন সপ্তম হয়েছেন এক মিনিট ১৫.৭৩ সেকেন্ড সময় নিয়ে। প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের ৯ অ্যাথলেট অংশ নিচ্ছেন। বিদেশের আমন্ত্রিত টুর্নামেন্টের পারফরম্যান্সকে বাংলাদেশ অ্যাথলেটিক্স ফেডারেশনের জাতীয় রেকর্ড হিসেবে স্বীকৃতি নতুন নয়। গত বছর দ্রততম মানব ইমরানুর রহমান একটি আমন্ত্রিত টুর্নামেন্টের টাইমিং অ্যাথলেটিক্স ফেডারেশন জাতীয় রেকর্ড হিসেবে গণ্য করে। এবার ভারতের কলিঙ্গতে অনুষ্ঠিত টুর্নামেন্টে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর পোলভোল্টার সবুজ মিয়ার পারফরম্যান্সকেও জাতীয় রেকর্ডের স্বীকৃতি দিয়েছে। অ্যাথলেটিক্স ফেডারেশনের তথ্যমতে, দেশের বাইরে এবারই প্রথম পোলভোল্ট খেলোয়াড় অংশগ্রহণ করছে। পোলভোল্টের পাশাপাশি ৪০০ মিটার হার্ডলেসে নারী অ্যাথলেটের অংশগ্রহণও প্রথম। ভারতের এই টুর্নামেন্টে নয়জন অ্যাথলেটের সঙ্গে একজন ম্যানেজার রয়েছেন। খেলোয়াড়রা সবাই বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর। এদিকে একই দিনে ভুটানে অনুষ্ঠিত গ্র্যান্ড পিক্স দ্বিতীয় আসরে কম্পাউন্ড মহিলা বিভাগে বাংলাদেশের বন্যা আক্তার রৌপ্য জেতেন। সেমিফাইনালে বন্যা আক্তার ১৪৫-১৪২ স্কোরে ভুটানের দর্জি দোলমাকে পরাজিত করে ফাইনালে ওঠেন। ফাইনালে তিনি ভারতের সৃষ্টি সিংয়ের কাছে পরাজিত হয়ে রৌপ্য জেতেন। নারী ইভেন্টে বাংলাদেশ পদক জিতলেও পুরুষ ইভেন্টে ব্যর্থ হয়েছে। বাংলাদেশের মো. সোহেল রানা ১৪১-১৪০ স্কোরে নিজ দেশের মোহাম্মদ আশিকুজ্জামানকে এবং নেওয়াজ আহমেদ রাকিব ১৪৫-১৪০ স্কোরে ভুটানের ইউনটেন নরবুকে পরাজিত করে কোয়ার্টার ফাইনালে উন্নীত হন। কোয়ার্টার ফাইনালে মো. সোহেল রানা ১৩৮-১৩৭ স্কোরে ভারতের প্রথামেশ সমধান জকারকে পরাজিত করে সেমিফাইনালে উন্নীত হন এবং নেওয়াজ আহমেদ রাকিব ১৪২-১৪৭ স্কোরে ভারতের চিরাং ভিদ্যার্থীর কাছে হারেন। সেমিফাইনালে মো. সোহেল রানা ১৪২-১৪৬ স্কোরে ভারতের পান্ডেলা ত্রিনাথ চৌধুরীর কাছে পরাজিত হন। পদক নিষ্পত্তির ম্যাচে মো. সোহেল রানা ১৪২-১৪৮ স্কোরে ভারতের চিরাং ভিদ্যার্থীর কাছে পরাজিত হন।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App