×

খেলা

অনন্য কীর্তি গড়ে সবার উপরে বসুন্ধরা

Icon

প্রকাশ: ১২ মে ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

অনন্য কীর্তি গড়ে সবার উপরে বসুন্ধরা
কাগজ প্রতিবেদক : বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ ফুটবলে গতকাল মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের বিপক্ষে ২-১ গোলে জিতে তিন ম্যাচ হাতে রেখেই লিগ শিরোপা নিশ্চিত করেছে বসুন্ধরা কিংস। এ পর্যন্ত টুর্নামেন্টের ইতিহাসে টানা পাঁচটি ম্যাচ জিতে শ্রেষ্ঠত্বের অনন্য ইতিহাস গড়ে দ্য কিংসরা। গতকাল বসুন্ধরা কিংসের জয়সূচক দুটি গোলই এনে দিয়েছেন ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড দরিয়েলতন। এদিকে মোহামেডানের হয়ে একমাত্র গোলটি করেছেন দেশের তরুণ ফরোয়ার্ড মিনহাজুল আবেদিন বাল্লু। টুর্নামেন্টের ইতিহাসে গত ২০১৭-১৮ মৌসুম থেকে শুরু করে পাঁচ মৌসুমে শিরোপা অক্ষুণ্ন রাখল বসুন্ধরা। ময়মনসিংহের রফিক উদ্দিন ভূঁইয়া স্টেডিয়ামে গতকাল লিগ টেবিলের উপরের দুই দলের ম্যাচ হওয়া সত্ত্বেও লড়াইয়ের শুরুতে ছিল না তেমন উত্তাপ। রক্ষণের চাদরে নিজেদের মুড়িয়ে রাখল মোহামেডান। বসুন্ধরা কিংস খেলল বরাবরের মতোই আক্রমণাত্মক ফুটবল। গোলও পেয়ে গেল তারা। পিছিয়ে পড়ার পর তেড়েফুঁড়ে বেরিয়ে এসে ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করে মোহামেডান। কিন্তু পারেনি কিংসের শিরোপা উৎসব ঠেকিয়ে রাখতে। ১৫ ম্যাচে ৪০ পয়েন্ট নিয়ে সবার ধরাছোঁয়ার বাইরে চলে গেল কিংস। সমান ম্যাচে ২৮ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে থাকা মোহামেডানের সামনে খোলা থাকল লিগে রানার্সআপ হওয়ার পথ। প্রথম লেগে মোহামেডানের বিপক্ষে ১-০ গোলে হেরেছিল কিংস। চলতি লিগে সেটাই এখন পর্যন্ত তাদের একমাত্র হার। হারের মধুর প্রতিশোধও কিংস নিল শিরোপা উৎসব নিশ্চিত করার পথে। ২০১৮-১৯ মৌসুমে প্রথম লিগের মুকুট জয়ের পর থেকে এ নিয়ে টানা পাঁচবার সেরা হলো কিংস। মাঝে ২০১৯-২০ মৌসুমের লিগ করোনা ভাইরাস মহামারির কারণে ছয় রাউন্ড খেলার পর পরিত্যক্ত হয়েছিল। এবার কিংসকে যা একটু চাপে রেখেছিল মোহামেডানই। কিন্তু ফিরতি লেগের দেখায় দলটি রক্ষণে মনোযোগ দেয় শুরু থেকে। তাতে কিংস আরো উপরে উঠে খেলার সুযোগ পেয়ে যায়। পঞ্চম মিনিটে রিমনের ক্রসে বক্সে ডিফেন্ডারদের ফাঁক গলে বেরিয়ে গেলেও বলের নাগাল পাননি দোরিয়েলতন গোমেস নাসিমেন্তো। ত্রয়োদশ মিনিটে এই ব্রাজিলিয়ানের শট উড়ে যায় ক্রসবারের উপর দিয়ে। চাপ ধরে রেখে অষ্টাদশ মিনিটে মিলিত প্রচেষ্টায় এগিয়ে যায় কিংস। শেখ মোরসালিনের ছোট পাস ধরে মিগেল ফিগেইরা দামাশেনো বল বাড়ান বক্সে। দুই ডিফেন্ডারের ফাঁক গলে বেরিয়ে গিয়ে কোনাকুনি শটে লক্ষ্যভেদ করেন দোরিয়েলতন। একটু পরই মোজাফফর মোজাফফরভের দূরপাল্লার ফ্রি কিক উড়ে যায় কিংসের ক্রসবারের উপর দিয়ে। ৩৯তম মিনিটে উজবেকিস্তানের এই মিডফিল্ডারের শট বাঁক খেয়ে পোস্টে ঢোকার আগেই ফেরান মেহেদী হাসান শ্রাবণ। মোহামেডানেরও সমতায় ফেরা হয়নি। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে ব্যবধান হয় দ্বিগুণ। ডান দিক থেকে মোরসালিনের কর্নারে দূরের পোস্ট থেকে হেডে লক্ষ্যভেদ করেন দোরিয়েলতন। ব্রাজিলিয়ান এই ফরোয়ার্ড বক্সে ছিলেন বিনা পাহারায়। ৬০তম মিনিটে রবসন দি সিলভা রবিনিয়োর ফ্রি কিক আটকান মোহামেডান গোলরক্ষক সুজন হোসেন। পাঁচ মিনিট পর ম্যাচে ফেরে সাদাকালো জার্সিধারীরা। শাহরিয়ার ইমনকে বল বাড়িয়ে বক্সে ঢুকে পড়েন মিনহাজ রাকিব। ফিরতি পাস ধরে নিখুঁত শটে খুঁজে নেন জাল। এই গোলে আত্মবিশ্বাসে আরো উজ্জীবিত হয়ে ওঠে মোহামেডান। শাণাতে থাকে আক্রমণ। ৬৯তম মিনিটে সুলেমানে দিয়াবাতের পাস ধরে ইমনের কোনাকুনি শট কোনোমতে পা দিয়ে আটকান শ্রাবণ। এরপর ছোট বক্সের একটু উপর থেকে মোজাফফরভের জোরাল শট প্রতিহত করেন তপু বর্মন। দশ মিনিট পর আরিফ হোসেনের শট বেরিয়ে যায় দূরের পোস্ট দিয়ে। ৮২তম মিনিটে উত্তাপ ছড়ায় ভিন্ন কারণে। রবিনিয়োর ট্যাকলের পর বলের নিয়ন্ত্রণ নিতে বিশ্বনাথ ঘোষের সঙ্গে লড়াইয়ে পড়ে যান মোজাফফরভ। পড়ে থাকা উজবেক ফরোয়ার্ডের হাঁটু পা দিয়ে মাড়িয়ে দেন বিশ্বনাথ। মোজাফফরভ উঠে দাঁড়িয়ে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেন বিশ্বনাথকে। রেফারি মোজাফফরভকে হলুদ কার্ড দেন। দ্বিতীয়ার্ধের যোগ করা সময়ের দ্বিতীয় মিনিটে বক্সের ঠিক উপর থেকে ইমানুয়েল সানডের নিচু জোরাল শট শ্রাবণ ঝাঁপিয়ে ফেরালে হতাশায় মাথায় হাত ওঠে মোহামেডানের। একটু পরই বাজে শেষের বাঁশি। গ্যালারিতে থাকা কিংস সমর্থকরা লাল ধোঁয়ার কুণ্ডুলি উড়িয়ে মেতে ওঠে আনন্দে। এদিকে মুন্সীগঞ্জের শহীদ বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর রহমান স্টেডিয়ামে চট্টগ্রাম আবাহনী ও শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের ম্যাচটি হয়েছে গোলশূন্য ড্র। অন্যদিকে রাজশাহীর মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি স্টেডিয়ামে এগিয়ে গিয়েও ব্রাদার্স ইউনিয়নের বিপক্ষে ১-১ ড্র করেছে ফর্টিস একাডেমি। ৩৯তম মিনিটে ওমার সারের গোলে এগিয়ে যায় ফর্টিস। ৭৩তম মিনিটে ব্রাদার্সকে সমতায় ফেরান নয়ন হোসেন। ১৫ রাউন্ড শেষে ১৮ পয়েন্ট নিয়ে পঞ্চম স্থানে আছে চট্টগ্রাম আবাহনী। তাদের চেয়ে ১ পয়েন্ট কম নিয়ে ষষ্ঠ স্থানে ফর্টিস। ২ পয়েন্ট কম নিয়ে সপ্তম স্থানে শেখ জামাল। ৭ পয়েন্ট নিয়ে তলানিতে আছে ব্রাদার্স।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App