×

খেলা

ছয় দশকের পুরনো রেকর্ড স্পর্শ লেভারকুসেনের

Icon

প্রকাশ: ০৭ মে ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

ছয় দশকের পুরনো রেকর্ড স্পর্শ লেভারকুসেনের
কাগজ ডেস্ক : জার্মানির বুন্দেসলিগায় গত রবিবার জাবি আলোনসোর দল বায়ার লেভারকুসেন ৫-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে আইনট্রাখট ফ্রাঙ্কফুর্টকে। গ্রানিথ জাকা, প্যাট্রিক শিক, জেরেমি ফ্রিমপং এবং পেনাল্টি থেকে এক্সেকুয়ের প্যালাকিওস ও ভিক্টর বোনিফেসের করা মোট ৫ গোলে দারুণ এক জয়ের দেখা পেয়েছে দলটি। এই জয়ের মধ্য দিয়ে পুরো ইউরোপে ফুটবলের ৫৯ বছরের পুরনো রেকর্ডে ভাগ বসালো জার্মান বুন্দেসলিগার ক্লাবটি। চলতি মৌসুমে সব ধরনের প্রতিযোগিতা মিলে ৪৮ ম্যাচ অপরাজিত থাকল জাবি অ্যালোনসোর শিষ্যরা। এর আগে বেনফিকা ১৯৬৩ থেকে ১৯৬৫ সাল পর্যন্ত সব ধরনের প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ইউরোপে ৪৮ ম্যাচ অপরাজিত ছিল। এদিকে প্রিমিয়ার লিগে ঘরের মাঠে টটেনহ্যামকে ৪-২ গোলে পরাজিত করে দুই ম্যাচ পরে জয়ের দেখা পেয়েছে ক্লপের দল লিভারপুল। এই ম্যাচে লিভারপুলের হয়ে গোল করেন মিসরের তারকা ফরোয়ার্ড মোহাম্মদ সালাহ, অ্যান্ডি রবার্টসন, কোডি গাকপো এবং হার্ভি এলিয়ট। নিজেদের ৩৬তম ম্যাচে জয় দিয়ে ৭৮ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের ৩য় স্থানে অবস্থান করছে অল-রেডরা। এদিকে দিনের আরেক ম্যাচে ব্রাইটনের কাছে ১-০ গোলে পরাজিত হলেও চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলার দ্বারপ্রান্তেই রয়েছে অ্যাস্টন ভিলা। ৬৭ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের চতুর্থ স্থানে রয়েছে ভিলা। একই দিনে ওয়েস্টহ্যাম ইউনাইটেডকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে মরিচিও পচেত্তিনোর দল চেলসি। আগামী মৌসুমের চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলার আশা আগেই শেষ হয়ে গেছে চেলসির। এখন শুধু ইউরোপা লিগ খেলার স্বপ্ন দেখতে হচ্ছে তাদের। তার জন্য প্রিমিয়ার লিগের টেবিলে পঞ্চমস্থানে থেকে মৌসুম শেষ করতে হয়েছে চেলসিকে। বুন্দেসলিগায় একের পর এক জয় দিয়ে বরাবরই টেবিলের শীর্ষে অবস্থান করছে লেভারকুসেন। আইনট্র্যাখট ফ্রাংকফুর্টের বিপক্ষে ম্যাচে নিষেধাজ্ঞার কারণে ম্যাচটি ডাগ আউটে নয় বরং স্ট্যান্ড থেকে দেখতে হয়েছে কোচ জাভি আলোনসোকে। কিন্তু আলোনসোকে ছাড়া লেভারকুসেনের এগিয়ে যেতে কোনো সমস্যাই হয়নি। গ্রানিথ জাকা, প্যাট্রিক শিক, জেরেমি ফ্রিমপং ছাড়াও পেনাল্টি থেকে স্কোরশিটে নাম লিখিয়েছেন এক্সেকুয়ের প্যালাকিওস ও ভিক্টর বোনিফেস। আগামী বৃহস্পতিবার ইউরোপা লিগের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে রোমার বিপক্ষে ম্যাচকে সামনে রেখে আলোনসো ২১ বছর বয়সি মিডফিল্ডার ফ্লোরিয়ান রিটজকে কাল বিশ্রামে রেখেছিলেন। কিন্তু এতে লেভারকুসেনের আক্রমণভাগে কোনো প্রভাব পড়েনি। দূরপাল্লার শটে জাকা গোলের সূচনা করেন। ১২ মিনিটে জাকার এই গোলে লিড নেয় লেভারকুসেন। ৩২ মিনিটে হুরো একিটিকের গোলে সমতায় ফিরে স্বাগতিক ফ্রাংকফুর্ট। একিটিকের এটি টানা তৃতীয় ম্যাচে তৃতীয় গোল। বিরতির ঠিক আগে শিকের হেডে লেভারকুসেন ব্যবধান দ্বিগুণ করে। বিশ্বকাপজয়ী আর্জেন্টাইন তারকা পালাকিওস ৫৮ মিনিটে পেনাল্টি স্পট থেকে দলের হয়ে তৃতীয় গোলটি করেন। ম্যাচের শেষভাগেও গোলের ধারা বজায় ছিল। বদলি বেঞ্চ থেকে উঠে আসার মাত্র পাঁচ মিনিটের মধ্যে গোল পান ফ্রিমপং। এরপর ম্যাচ শেষের তিন মিনিট আগে পেনাল্টি আদায় করে নেন। স্পট কিক থেকে দলের হয়ে পঞ্চম গোলটি করেন বোনিফেস। এর মাধ্যমে গত ছয় বছরে ফ্রাংকফুর্টের মাঠে প্রথম জয় তুলে নিল লেভারকুসেন। ম্যাচ শেষে জাকা বলেছেন, ‘পুরো ম্যাচটা আমাদের নিয়ন্ত্রণে ছিল। আমরা অপরাজিত থাকতে চেয়েছি এবং আবারো সেটা প্রমাণ করেছি। বিশেষ কিছু অর্জনে আমরা সত্যিকার অর্থেই খুব কাছাকাছি পৌঁছে গেছি।’ ওদিকে ওয়েস্টহ্যামের সঙ্গে ২-২ গোলে ড্র করা ম্যাচে সালাহকে বদলি হিসেবে মাঠে নামিয়েছিলেন ক্লপ। মাঠে নামার সময় ডাগআউটে ক্লপের সঙ্গে কথার লড়াইও হয়েছিল সালাহর। এ নিয়ে অনেকেই অনেক কথা বলেছেন। কিন্তু কাল টটেনহামের বিপক্ষে সালাহকে শুরুর একাদশেই রাখেন ক্লপ। শুরুর একাদশে ফিরেই নিজের ঝলক দেখান সালাহ। ১৬ মিনিটে দলকে এগিয়ে দেয়া গোলটি করেন তিনিই। ৫৯ মিনিটে হার্ভি এলিয়টের গোলটিতে ছিল তার অবদান। এলিয়টের গোলটি ছিল লিভারপুলের চতুর্থ। এর আগে ৪৫ ও ৫০ মিনিটে গোল করেন অ্যান্ডি রবার্টসন আর কোডি গাকপো। সব মিলিয়ে ৫৯ মিনিটের মধ্যে ৪ গোলে এগিয়ে যায় লিভারপুল। ম্যাচ মূলত সেখানেই শেষ হয়ে যায়। ৭২ ও ৭৭ মিনিটে রিচার্লিসন আর সন হিউংমিনের গোলে শুধু ব্যবধানই কমাতে পারে টটেনহাম। গতকালের হারে টটেনহামের আগামী মৌসুমের চ্যাম্পিয়নস লিগে খেলার স্বপ্নে লেগেছে বড় ধাক্কা। এই হারের পর ৩৫ ম্যাচে ৬০ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার পঞ্চম স্থানে টটেনহাম। এক ম্যাচ বেশি খেলে ৬৭ পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থ স্থানে আছে অ্যাস্টন ভিলা। ষষ্ঠ স্থানে থাকা নিউক্যাসলের পয়েন্ট ৩৫ ম্যাচে ৫৬। ইংল্যান্ড থেকে আগামী মৌসুমে সরাসরি চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলবে চারটি দল।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App