×

খেলা

প্রথমবারের মতো জয়ের দেখা ব্রাদার্সের

Icon

প্রকাশ: ০৪ মে ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

প্রথমবারের মতো জয়ের দেখা ব্রাদার্সের
কাগজ প্রতিবেদক : বাংলাদেশ ফুটবল প্রিমিয়ার লিগে গতকাল শেখ জামালের বিপক্ষে ৩-২ গোলে জয় পেয়েছে ব্রাদার্স ইউনিয়ন। টুর্নামেন্টের দুই লেগের মোট ১৪ ম্যাচে ব্রাদার্সের এটিই প্রথম জয়। ব্রাদার্স ইউনিয়নের হয়ে গোল করেছেন এলিটা কিংসলি আহমেদ মোহসিন ও মোহাম্মদ রাব্বি হোসেন রাহুল। এদিকে ধানমন্ডির ক্লাবটির হয়ে গোল দুটি করেছেন ইগোর লেইতে ও উজবেকিস্তানের মিডফিল্ডার শাখজোদ শাইমানোভ। দিনের অপর ম্যাচে আবাহনী চট্টগ্রামের বিপক্ষে ১-১ গোলে সমতায় শেষ করেছে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব। মোহামেডানের একমাত্র গোলটি এসেছে দেশের তরুণ ফরোয়ার্ড আরিফ হোসাইনের পা থেকে। এদিকে আবাহনী চট্টগ্রামের হয়ে গোল করেছেন ডেভিড ইফেগু। এ পর্যন্ত মোট ১৪ ম্যাচে ২৮ পয়েন্ট নিয়ে মোহামেডান টেবিলের শীর্ষ দুয়ে অবস্থান করছে। সমান ম্যাচে ১৭ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষ পাঁচে অবস্থান করছে আবাহনী চট্টগ্রাম। সমান ম্যাচে ১৫ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের সাতে রয়েছে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব। এদিকে সমান ম্যাচে মাত্র ১টি জয়ে ৬ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের তলানিতে অবস্থান করছে ব্রাদার্স ইউনিয়ন। গোপালগঞ্জের শেখ ফজলুল হক মনি স্টেডিয়ামে গতকাল ব্যর্থতার বৃত্তে ঘুরপাক খাওয়া ব্রাদার্স ইউনিয়ন শুরুতেই আদায় করে নিল গোল। দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে এগিয়ে গেল শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব, কিন্তু পারল না তারা ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ মুঠোয় রাখতে। শেষ দিকে পাঁচ মিনিটের মধ্যে দুই গোল করে এবারের প্রিমিয়ার লিগে প্রথম জয় তুলে নিল ব্রাদার্স। টানা ১৩ ম্যাচ জয়হীন থাকার পর প্রথম জয়ের উচ্ছ¡াস সঙ্গী হলো ব্রাদার্সের। তারপরও ১৪ ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলে তারা আছে তলানিতেই। ব্রাদার্স শুরু থেকে চাপ দিতে থাকে শেখ জামালের রক্ষণে। প্রথম ভালো সুযোগটিও তৈরি করে তারা। তবে মাহামুদুল হাসান কিরণের ভুলে বল পেয়ে বক্সের বাইরে থেকে উসমান তোরের নেয়া শট পোস্টঘেঁষে যায় বাইরে। ২৫ মিনিটে সুবর্ণ সুযোগ আসে শেখ জামালের আল আমিনের সামনে। ইগোর লেইতের থ্রæ পাস অফসাইডের ফাঁদ ভেঙে নিয়ন্ত্রণে নেন আল আমিন। গোলরক্ষককে পেয়ে যান একা। কিন্তু দুরূহ কোণ থেকে তার নেয়া শট কাঁপায় বাইরের জাল। প্রথমার্ধের শেষ দিকে পাল্টা আক্রমণ থেকে এগিয়ে যায় ব্রাদার্স। মাঝমাঠে বল পেয়ে অনেকটা এগিয়ে রাব্বী হোসেন রাহুল পাস বাড়ান বাম প্রান্তে থাকা কিংসলেকে। এই ফরোয়ার্ড বক্সে ঢুকে বাঁ-পায়ের নিখুঁত ফিনিশিংয়ে পরাস্ত করেন গোলরক্ষককে। বিরতির পর একটু একটু করে ছন্দে ফিরতে থাকে শেখ জামাল। এ অর্ধের শুরুতে লেইতের ফ্রি-কিক ঝাঁপিয়ে আটকান ব্রাদার্স গোলরক্ষক হেলাল মিয়া। ৭২তম মিনিটে বক্সের মধ্যে জায়েদ আহমেদকে ফাউল করে বসেন আজিজুল হক অনন্ত, পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। সফল স্পট কিকে সমতা ফেরান লেইতে। দুই মিনিট পরই এগিয়ে যায় শেখ জামাল। প্রায় ৩০ গজ দূর থেকে মোহাম্মদ আব্দুল্লাহর ফ্রি-কিকে হেডে জাল খুঁজে নেন উজবেকিস্তানের মিডফিল্ডার শাখজোদ শাইমানোভ। ৮৪তম মিনিটে ঘুরে দাঁড়ায় ব্রাদার্স। বদলি নামা ইনসানের সঙ্গে বল দেয়া-নেয়া করে ডান পায়ের শটে সমতায় ফেরান মোহসিন আহমেদ। পাঁচ মিনিট পর দারুণ এক গোলে ব্রাদার্সকে এগিয়ে নেন রাহুল। মিরাজুল ইসলামের থ্রæ পাস নিয়ন্ত্রণে নিয়ে বাম দিক দিয়ে আক্রমণে উঠে দুই ডিফেন্ডারের ফাঁক গলে বেরিয়ে কোনাকুনি শটে খুঁজে নেন জাল। হতাশার বলয় থেকে বেরিয়ে প্রথম জয়ের আনন্দে মাতে ব্রাদার্স। এদিকে মোহামেডানের আক্রমণভাগের অন্যতম প্রাণভোমরা সুলেমানে দিয়াবাতে। বলতে গেলে সাদা-কালো দলের হয়ে প্রতিপক্ষের মনে ত্রাস সৃষ্টি করে যাচ্ছেন। লিগে ১৩ গোল করে সর্বোচ্চ গোলদাতার তালিকায় উপরের দিকে আছেন। সেই মালির স্ট্রাইকার গতকাল খেলতে পারেননি। তিন হলুদ কার্ডের কারণে সাসপেন্ড হয়েছিলেন। তাকে ছাড়া মোহামেডান প্রিমিয়ার লিগে ফিরতি পর্বের ম্যাচ জিততে পারেনি। আগে গোল করেও চট্টগ্রাম আবাহনীর সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করেছে আলফাজ আহমেদের দল। যদিও এর আগে লিগ পর্বে দুই দলের খেলা গোলশূন্য ড্র ছিল। মুন্সীগঞ্জ শহীদ বীরশ্রেষ্ঠ ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট মতিউর রহমান স্টেডিয়ামে দুই দল গোলের একাধিক সুযোগ পেয়েছিল। সাদা-কালোদের সঙ্গে সমান দাপট দেখানোর চেষ্টা করেছে বন্দরনগরীর দল। তবে ম্যাচের ২৭ মিনিটে মোহামেডান প্রথম এগিয়ে যায় আরিফ হোসেনের গোলে। বক্সের বাইরে থেকে ডান পায়ের বুলেট গতির শটে এই ফরোয়ার্ড সাদা-কালোদের এগিয়ে নেন। গোলকিপার রানা চেষ্টা করেও পারেননি গোল আটকাতে। তবে পিছিয়ে থেকে চট্টগ্রামের দলটি সমতায় ফেরার সুযোগ খুঁজছিল। ৩৪ মিনিটে চট্টগ্রাম আবাহনী সফলও হয়। সমতায় ফেরে ইফেগু ডেভিডের গোলে। প্রায় ২৫ গজ দূর থেকে নেয়া ফ্রি-কিকে তিনি জোরালো শটে জাল কাঁপান। গোলকিপার সুজন হোসেন বলের লাইনে ঝাঁপালেও নাগাল পাননি। বিরতির পর দুদলের খেলোয়াড়রা কম চেষ্টা করেননি। তবে একে অন্যের গোলকিপারের বড় পরীক্ষা নিতে পারেনি। শেষ পর্যন্ত এক পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে ?দুদলকে।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App