×

খেলা

মেসির জোড়া গোলে জয়যাত্রা অব্যাহত মায়ামির

Icon

প্রকাশ: ২৯ এপ্রিল ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

মেসির জোড়া গোলে জয়যাত্রা অব্যাহত মায়ামির
কাগজ ডেস্ক : মেজর লিগ সকারে (এমএলএস) চোটকে একপাশে রেখে নিজেকে সমানভাবে প্রমাণ করে যাচ্ছেন আর্জেন্টাইন বিশ্বকাপজয়ী তারকা লিওনেল মেসি। গতকাল ঠিক আরো একবার মেসি-ঝলকে উদ্ভাসিত হলেন মায়ামির দর্শকরা। মেসির জোড়া গোলে প্রতিপক্ষ নিউ ইংল্যান্ড রেভল্যুশন ৪-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে মেসিবাহিনী। মায়ামির হয়ে অন্য দুই গোল করেন বেঞ্জামিন ক্রিমাশ্চি ও মেসির সতীর্থ সুয়ারেজ। তবে সেখানেও অ্যাসিস্ট করায় জড়িয়ে আছে মেসির নাম। অন্যদিকে ফ্রান্স লিগ ওয়ানে রাতের আরেক ম্যাচে পয়েন্ট টেবিলে ধুঁকতে থাকা লে হ্যাভরের সঙ্গে ৩-৩ গোলের ড্রয়ের মাধ্যমে কোনোমতে পরাজয়ের লজ্জা থেকে রেহাই পেয়েছে লিগ শিরোপা দখলের লড়াইয়ে এগিয়ে প্যারিস সেইন্ট জার্মেই (পিএসজি)। তাতে ফ্রান্স লিগ ওয়ানের ১২তম শিরোপা জয়ের অপেক্ষা বাড়ল লুইস এনরিকের শিষ্যদের। এদিকে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে ওয়েস্ট হ্যামের সঙ্গে ড্র করে আবারো পয়েন্ট হারিয়েছে লিভারপুল। তাতে ২-২ গোলে ড্র করে শিরোপা লড়াই থেকে প্রায় ছিটকে যাওয়ার দ্বারপ্রান্তে রয়েছে রেডসরা। রাতের আরেক ম্যাচে এদিকে নিউক্যাসেলের কাছে ৫-১ গোলে বিধ্বস্ত হয়ে রেলিগেটেড হয়ে গেছে শেফিল্ড ইউনাইটেড। মেজর লিগ সকারে গতকাল (এমএলএস) প্রতিপক্ষ নিউ ইংল্যান্ড রেভল্যুশনের ঘরের মাঠ জিলেট স্টেডিয়ামের কৃত্রিম টার্ফে খেলতে নেমে নিজের স্বভাবজাত খেলা দেখিয়েছেন মেসি। তাতে ৪-১ গোলের বড় ব্যবধানে এগিয়ে যায় মেসিরা। এলএমটেনের জোড়া গোলের পাশাপাশি দলের হয়ে বাকি দুটি গোল করেন বেঞ্জামিন ক্রেমাশ্চি ও লুইস সুয়ারেজ। নিউ ইংল্যান্ড রেভল্যুশনের হয়ে ব্যবধান কমানোর গোলটি করেন টমাস চ্যাঙ্কালে। শুরু থেকে দাপট দেখিয়ে খেললেও ম্যাচের ৪০ সেকেন্ড এক গোলে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা। তবে এরপর এক হালি গোল হজম করেছে নিউ ইংল্যান্ড। ম্যাচের ৩২ মিনিটে আর্জেন্টাইন অধিনায়কের গোলে সমতায় ফিরে মায়ামি। রবার্ট টেলরের অ্যাসিস্টে অসাধারণ এক গোলে মায়ামিকে সমতায় ফেরান তিনি। প্রথমার্ধে আর কোনো দলই জালের দেখা না পাওয়ায় তাতে ফ্লোরিডার ক্লাবটি প্রথমার্ধ শেষ করে ১-১ সমতায়। বিরতি থেকে ফিরে আরও আগ্রাসী হয়ে খেলতে থাকে মেসি-সার্জিও বুসকেটসরা। সাবেক বার্সেলোনা সতীর্থকে সঙ্গী বানিয়ে পরের গোলটিও আসে মেসির পা থেকে। বুসকেটসের রক্ষণচেরা পাস পেয়ে ৬৭ মিনিটে দলের এবং নিজের দ্বিতীয় গোল করলেন এই আর্জেন্টাইন। মায়ামির বাকি দুই গোলেও ছিল মেসির অবদান। এরপর ৮৩ মিনিটে মায়ামির হয়ে বেঞ্জামিন ক্রিমাশ্চি যে গোলটি করেছেন, সেটিতেও জড়িয়ে আছে মেসির নাম। প্রথমে মেসির বাঁ-পায়ের দুর্দান্ত শট নিউ ইংল্যান্ডের গোলকিপার সামনে পাঞ্চ করে দেন। বল চলে যায় বক্সের মধ্যেই দাঁড়িয়ে থাকা ক্রিমাশ্চির কাছে। বল পেয়ে সহজেই সেটি জালে জড়ান তিনি। ম্যাচের ৮৮ মিনিটে নিউ ইংল্যান্ডের কফিনে সর্বশেষ পেরেকটি ঠুকে দেন সুয়ারেজ। মেসির দুর্দান্ত পাস থেকে পাওয়া বলে ইন্টার মায়ামিকে চতুর্থবার গোলের আনন্দে মাতান সুয়ারেজ। জোড়া গোল করার এ ম্যাচে রেকর্ড গড়েছেন মেসি, মায়ামির জার্সিতে চলতি মৌসুমে ৯ গোল করেন তিনি। তাতে রিয়েল সল্ট লেকের কলম্বিয়ান ফরোয়ার্ড ক্রিস্তিয়ান আরাঙ্গোকে (৮) ছাড়িয়ে এবারের এমএলএসের গোলদাতার তালিকার শীর্ষেও উঠে গেছেন মেসি। এ নিয়ে চলতি মৌসুমে তিন ম্যাচে জোড়া গোল করেছেন মেসি। এ জয়ে ১১ ম্যাচে ৬টি জয় ও ৩ ড্রয়ে ২১ পয়েন্ট নিয়ে ইস্টার্ন কনফারেন্সের শীর্ষস্থান শক্ত করল মায়ামি। দুই কনফারেন্স মিলিয়েও একই অবস্থানে মেসির দল। দ্বিতীয় স্থানে লস অ্যাঞ্জেলেস গ্যালাক্সির পয়েন্টও ১১ ম্যাচে সমান ২১। এই ম্যাচে জিততে পারলে ফ্রান্স লিগ ওয়ানে ১২ বারের মতো চ্যাম্পিয়নশিপ নিশ্চিত হয়ে যেত পিএসজির তবে সেই যাত্রায় বাধ সাধল টেবিলে ধুঁকতে থাকা লে হ্যাভরে। গতকাল রাতে পিএসজির ঘরের মাঠে গোল উৎসবের শুরুটা করে হ্যাভরে। ম্যাচের ১৯ মিনিটে ক্রিস্টফার ওপেরির গোলে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে যায় সফরকারীরা। তবে এর ঠিক ১০ মিনিট পর ব্রাডলি বারকোলার গোলে ১-১ সমতায় ফেরে পিএসজি। কিন্তু বিরতির ৭ মিনিট আগে লোয়িক নেগোর পাসে কেইলর নাভাসকে পরাস্ত করে আবারো লে হ্যাভরেকে এগিয়ে দেন আন্দ্রে আইয়ু। তাতে ২-১ ব্যবধান নিয়ে বিরতিতে যায় সফরকারীরা। বিরতি থেকে ফিরে ৬১ মিনিটে আবদৌলায়ে তৌরির পেনাল্টি থেকে করা গোলে ৩-১ ব্যবধান এগিয়ে যায় হ্যাভর। তবে এ ব্যবধান আর বাড়তে দেননি এমবাপ্পে সতীর্থরা। ৭৮ মিনিটে আশরাফ হাকিমির গোলে ব্যবধান কমিয়ে ৩-২ আনে পিএসজি। এরপর যোগ করা সময়ে ৯৫ মিনিটে রামোসের রক্ষাত্মক গোলে ৩-৩ সমতায় ফেরে স্বাগতিকরা। তাতে অবশেষে ১ পয়েন্ট নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয় পিএসজিকে। তাতে সবমিলিয়ে ৩১ ম্যাচে ৭০ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে আছে পিএসজি। এক ম্যাচ কম খেলে ৫৮ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে মোনাকো। বাকি চার ম্যাচ থেকে সর্বোচ্চ ১২ পয়েন্ট আদায় করতে পারবে তারা। তাই শিরোপায় এক হাত দিয়েই রেখেছে পিএসজি।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App