×

খেলা

টি-টোয়েন্টি সিরিজ

জিতলে সিরিজ কিউইদের হারলে সমতা

Icon

প্রকাশ: ২৭ এপ্রিল ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

জিতলে সিরিজ কিউইদের হারলে সমতা
কাগজ ডেস্ক : অনেকটা আশা জাগিয়েও পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের ৪র্থ ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের কাছে পরশু শেষ পর্যন্ত ৪ রানের ব্যবধানে হেরেছে পাকিস্তান। তাতে এক ম্যাচ হাতে রেখে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে আছে কিউরা। আজ সিরিজের পঞ্চম ও শেষ ম্যাচে সফরকারী নিউজিল্যান্ডের মুখোমুখি হবে স্বাগতিকরা। তাতে ম্যাচ জিতলে সিরিজ যাবে নিউজিল্যান্ডের পক্ষে আর হারলে সমতা দিয়ে সিরিজ শেষ করার আশা দেখবে পাকিস্তান। সিরিজে প্রথম টি-টোয়েন্টি ভেসে গিয়েছিল বৃষ্টিতে। দ্বিতীয় ম্যাচে পাকিস্তানের জয়ের পর তৃতীয় ম্যাচে লড়াইয়ে জিতে সমতায় ফেরে আইপিএলের কারণে দ্বিতীয় সারির দল নিয়ে খেলতে আসা অনভিজ্ঞ কিউই দল। গতকাল চতুর্থ ম্যাচে খেলতে নেমে সফরকারীরা প্রথমে ব্যাট করে ১৭৯ রানের লক্ষ্য দাঁড় করায়। সেই রানতাড়ায় পাকিস্তান থেমে যায় ১৭৪ রানে, অর্থাৎ ৪ রানে হেরে তারা সিরিজে পিছিয়ে গেল ২-১ ব্যবধানে। ফলে বাবরদের আর সিরিজটি জেতার সুযোগ নেই। কেবল সিরিজটি শেষ করতে পারবে সমতা নিয়ে, তাই পঞ্চম ও শেষ ম্যাচে জয়ের বিকল্প নেই বাবর আজমদের সামনে। গতকাল লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে পাকিস্তানের সামনে লক্ষ্য ছিল ১৭৯ রানের। তবে অধিনায়ক বাবর আজম ৪ বলে ৫ রান, উসমান খান ১১ বলে ১৬ রান, শাদাব খান ৮ বলে ৭ রান করে সাজঘরে ফিরলেও সিরিজে প্রথমবার খেলতে নামা ফখর জামানের ব্যাটে আশা দেখছিল পাকিস্তান। তিনিই ১৮তম ওভার পর্যন্ত ক্রিজে থেকে খেলা টেনে নিয়ে যান। কিন্তু ম্যাচের ৪৫তম বল খেলতে গিয়ে বেন সিয়ার্চের বলে ৪ বাউন্ডারি আর ৩ ছক্কায় ফখর ৬১ করে ফেরার পর নিউজিল্যান্ডের দিকে ম্যাচ হেলে পড়ে। এরই মাঝে ২০ বলে ২৩ রানের ধীর এক ইনিংস খেলে দলের বিপদ বাড়ান ইফতিখার আহমেদ। উইকেটে থিতু হওয়া ইফতিখার ও ফখর পরপর দুই ওভারে আউট হলে পাকিস্তানের জয়ের পথ কঠিন হয়ে যায়। দুজন বলও খেলে যান বেশ কিছু। শেষ তিন ওভারে পাকিস্তানের দরকার ছিল ৩৯ রান। ইমাদ ১১ বলের ইনিংসে চারটি চার মারলেও শেষ বলে ছয়ের প্রয়োজন মেটাতে পারেননি। জয়ের জন্য শেষ ওভারে পাকিস্তানের দরকার ছিল ১৮ রান। উসামা মীর প্রথম বলে চার মেরে পরের বলেই আউট। তবে ভরসা হয়ে একপ্রান্তে তখনো ইমাদ ওয়াসিম। চতুর্থ বলে দুই রান আর পঞ্চম বলে চার মেরে শেষ বলের জন্য সমীকরণ নামিয়ে আনেন ৬ রানে। তবে জিমি নিশামের অব স্টাম্পের বাইরে পড়া বল ইমাদ কাভার পয়েন্টে পাঠিয়ে এক রানের বেশি নিতে পারেননি। গতকাল পাকিস্তান টস জিতলেও ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্তে নেয়ায় আগে ব্যাট করতে গিয়ে নিউজিল্যান্ড ৭ উইকেটে ১৭৮ রানের সংগ্রহ গড়ে টিম রবিনসনের ৫১ ও ডিন ফক্সক্রফটের ৩৪ রানের সৌজন্যে। যেখানে পাকিস্তানের হয়ে আব্বাস আফ্রিদি নেন ২০ রানে ৩ উইকেট। নিজেদের মাটিতে ম্যাচ হারার পর পাকিস্তান কোচ মেহমুদ হারের পেছনে ডাবলস বের করতে না পারার ব্যর্থতার কথা তুলে ধরে বলেন, ‘অনেকগুলো ইতিবাচক দিক আছে আমাদের। আমরা ওদের তুলনায় বেশি বাউন্ডারি মেরেছি (১৮টির বিপরীতে ২১)। বোলিংয়ে ডট বলও বেশি করেছি। কিন্তু ওরা আমাদের চেয়ে বেশি ডাবলস নিয়েছে, যেটা আমরা পারিনি। এগুলো ভাবনার জায়গা। এসব নিয়ে কাজ চলছে।’ আর পাকিস্তান অধিনায়ক বাবর আজম অবশ্য মাঝের ওভারে রানের গতি কমে যাওয়াটা শুরুতে বেশি উইকেট হারানোর প্রভাব বলে মনে করছেন। ম্যাচ শেষে তিনি বলেন ‘আমরা পাওয়ার প্লেতে ৩-৪টা উইকেট হারিয়ে ফেলি। আমরা ইতিবাচকভাবেই রান তাড়া করতে চেয়েছিলাম, কিন্তু সেটা সম্ভব হয়নি। একের পর এক উইকেট হারিয়ে ফেললে কয়েকটা ওভার ধরে খেলতে হয়। আমরা ওই সময়টায় পিছিয়ে গেছি।’ এদিকে আজ সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে নিউজিল্যান্ড-পাকিস্তান।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App