×

খেলা

মেসির জোড়া গোলে শীর্ষে মায়ামি

Icon

প্রকাশ: ২২ এপ্রিল ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

মেসির জোড়া গোলে শীর্ষে মায়ামি
কাগজ ডেস্ক : চোটের কারণে বেশ কয়েক ম্যাচ খেলতে পারেননি মেসি আর তাতেই সতীর্থরা খেই হারিয়ে পরপর কয়েক ম্যাচ শেষ করল হার দিয়ে। তবে গত ১৪ এপ্রিল চোট কাটিয়ে দলে ফিরেই মায়ামিকে জয়ে ফিরিয়েছিলেন মেসি। আর এবার মেসির জোড়া গোলে ন্যাশভিল এসসির বিপক্ষের ৩-১ গোলের ব্যবধানে টানা দ্বিতীয় জয় পেল জেরার্ডো মার্টিনোর শিষ্যরা। আর এমন জয়ে মেজর লিগ সকারের ইস্টার্ন কনফারেন্সে শীর্ষে উঠে এসেছে মায়ামি। অন্যদিকে রাতের আরেক ম্যাচে বের্নার্দো সিলভার একমাত্র গোলে প্রতিপক্ষ চেলসিকে ১-০ ব্যবধানে হারিয়ে টানা দ্বিতীয়বারের মতো এফএ কাপের ফাইনালে উঠেছে ম্যানচেস্টার সিটি। জয়বহুল এমন দিনে থমাস মুলারের জোড়া গোলে বুন্দেসলিগায় অ্যাওয়ে ম্যাচে ইউনিয়ন বার্লিনকে ৫-১ গোলের বিশাল ব্যবধানে বিধ্বস্ত করেছে বায়ার্ন মিউনিখ। এদিন মুলারের পাশাপাশি বায়ার্নের জার্সিতে মৌসুমের ৩৩তম গোল করেন ইংলিশ অধিনায়ক হ্যারি কেইন। গতকাল ঘরের মাঠ চেজ স্টেডিয়ামে ম্যাচের শুরুটা অবশ্য সুখকর ছিল না মায়ামির জন্য। ২ মিনিটেই আত্মঘাতী গোল খেয়ে বসে তারা। ন্যাশভিলের ড্যানিয়েল লোভিৎসের কতরা কর্নার মায়ামি ডিফেন্ডার ফ্রাঙ্কো নেগ্রির গায়ে লেগে ঢুকে যায় নিজেদের জালে। তাতে পিছিয়ে পড়ে মেসিবাহিনী। এই নিয়ে টানা ১১ ম্যাচে নিজেদের জাল অক্ষত রাখতে ব্যর্থ হয়েছে জেরার্দো মার্তিনোর দল। দুই মিনিটে আত্মঘাতী গোলে পিছিয়ে পড়ার পর মায়ামি সমতায় ফেরে ১১ মিনিটে। বক্সে ঢুকে প্রথমে শট নেন মেসি, ন্যাশভিলের গোলরক্ষকের হাতে বল লেগে ফিরে এলে কয়েক পা ঘুরে আবারও আর্জেন্টাইন তারকা সুযোগ পেয়ে যান। তাতেই অনায়াসেই বলটি জালে জড়িয়ে দেন ‘এলএমটেন’। এরপর বিরতির আগমুহূর্তে ম্যাচের ৩৯ মিনিটে কর্নার পায় ফ্লোরিডার ক্লাবটি। মেসির নেয়া কর্নার কিকটি মাথার আলতো ছোঁয়ায় জালে জড়ান বুসকেটস। আর এর মধ্য দিয়ে সাবেক বার্সেলোনা কিংবদন্তি মায়ামির জার্সিতে নিজের প্রথম গোল পেয়ে যান। তবে বিরতির বাঁশি বাজার আগে চোটে পড়া গোমেজের বদলি হিসেবে নামা ব্রাজিলিয়ান তরুণ লিওনার্দো আফোনসোর গোল বাতিল হয়েছে অফসাইডের কারণে। তাতেই লিড নিয়ে বিরতিতে যান মেসিরা। এদিকে বিরতির পর ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করে ন্যাশভিল। দ্বিতীয়ার্ধের প্রথম ২০ মিনিট বলতে গেলে মায়ামিকে তারা হাঁপ ছাড়তেই দিচ্ছিল না। কিন্তু সেই সময়টা সামলে ৮১ মিনিটে মেসির পেনাল্টি গোলে ৩-১ ব্যবধানের জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে মায়ামি। এই জয়ে মেজর লিগ সকারে ১০ ম্যাচে ১৮ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে রযেছে ডেভিড ব্যাকহামের মালিকানাধীন মায়ামি। অন্যদিকে চলতি মৌসুমে মিয়ামির হয়ে দারুণ খেলছেন মেসি। সব ধরনের প্রতিযোগিতায় ৯ ম্যাচে এর মধ্যে মায়ামির জার্সিতে মেসির ঝুলিতে জমা হয়েছে ৯ গোল ও ৮ অ্যাসিস্ট। এদিকে ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে চেলসিকে ১-০ ব্যবধানে হারিয়ে টানা দ্বিতীয়বার এফএ কাপের ফাইনালে উঠেছে গত সপ্তাহে রিয়াল মাদ্রিদের কাছে টাইব্রেকারে হেরে চ্যাম্পিয়নস লিগ শিরোপা থেকে বাদ পড়া ম্যানচেস্টার সিটি। ম্যাচের শেষ দিকে সিটির হয়ে জয়সূচক একমাত্র গোলটি করেন বের্নার্দো সিলভা। ম্যাচজুড়ে সিটি কোনো গোলের সুযোগ না পেলেও চেলসির কাছে অনেক সুযোগ এসেছিল, তবে তা কাজে লাগাতে পারেননি তারা। ম্যাচের ৮ মিনিটে ফরোয়ার্ড নিকোলাস জ্যাকসনের একটি শট সহজেই হাতে নিয়ে নেন সিটির গোলরক্ষক স্টেফান অরটেগা। দ্বিতীয়ার্ধেও দুটি সুযোগ পান জ্যাকসন। তবে কাজে লাগাতে পারেননি। একই অবস্থা আগের ম্যাচে এভারটনের বিপক্ষে চেলসির হয়ে একাই ৪ গোল করা কোল পালমারেরও বারবার সুযোগ আসলেও কাজে লাগাতে পারেননি ২১ বছর বয়সি এই তরুণ। প্রথমার্ধে সিটিও অবশ্য সুযোগ পেয়েছিল। ১৪ মিনিটে সেটি নষ্ট করেন ফিল ফোডেন। সিটির আক্রমণ গতি পায় দ্বিতীয়ার্ধে জ্যাক গ্রিলিশকে উঠিয়ে জেরেমি ডকুকে নামানোর পর। ৮৪ মিনিটে সিলভার গোলটি আসে কেভিন ডি ব্রুইনা দারুণ ক্রসের সুবাদে। ডি ব্রুইনা চেলসি বক্সের ভেতর থেকে ক্রস বাড়ালে সেটি গোলকিপার পেত্রোভিচ পা রুখে দিলেও বিপদমুক্ত করতে পারেননি। বল চলে যায় সিলভার কাছে। জোরালো শটে বল জালে জড়িয়ে সিটি উচ্ছ¡াসে ভাসান তিনি। আর তাতে ১-০ গোলে জয় নিয়ে মাঠ গার্দিওলার শিষ্যরা। অন্যদিকে অভিজ্ঞ স্ট্রাইকার থমাস মুলারের জোড়া গোলের সঙ্গে ইংলিশ অধিনায়ক হ্যারি কেইনের মৌসুমের ৩৩তম গোলে ইউনিয়ন বার্লিনকে শনিবার বুন্দেসলিগার অ্যাওয়ে ম্যাচে ৫-১ ব্যবধানে হারিয়েছে বায়ার্ন মিউনিখ। ম্যাচে হ্যারি কেন প্রথমার্ধের ইনজুরি টাইমে নিখুঁত ফ্রি-কিকে এক গোল করার পর দ্বিতীয়ার্ধে মাথিস টেলকে দিয়ে আরো এক গোল করিয়েছেন। বায়ার্নের হয়ে ৪৭০তম বুন্দেসলিগা ম্যাচ খেলতে নামা মুলার তার দুটি গোলই করেছেন দ্বিতীয়ার্ধে। আর গতকালের এমন পারফরম্যান্সে রবার্ট লিওয়ানদোস্কির এক মৌসুমে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড ছাড়িয়ে যেতে হ্যারি কেইনের আর মাত্র আট গোল প্রয়োজন বিপরীতে হাতে রয়েছে চার ম্যাচ।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App