×

খবর

পরিকল্পিত নগরায়ণে আরবান রেজিলেন্স প্রজেক্ট

Icon

প্রকাশ: ২৯ জুন ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

ভৌগলিক অবস্থানগত কারণে বাংলাদেশ একটি দুর্যোগপ্রবণ অঞ্চল হিসেবে পরিচিত। এখানকার উপকূলবর্তী অঞ্চলগুলো যেমন বিভিন্ন বন্যা, ঘূর্ণিঝড়, জলোচ্ছ¡াস, সুনামী, নদী-ভাঙনের স্বীকার হয়; তেমনই, নগরগুলোতেও বিভিন্ন প্রকার দুর্যোগ ভূমিকম্প, অগ্নিকাণ্ড, জলাবদ্ধতা পরিলক্ষিত হয়।

নগর কেন্দ্রীক এসব দুর্যোগ ও জরুরি পরিস্থিতি মোকাবিলায় বাংলাদেশ সরকার ২০১৩ সালে বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে ‘টৎনধহ জবংরষরবহপব চৎড়লবপঃ (টজচ)’ প্রকল্পটির পরিকল্পনা শুরু করে। বাংলাদেশে আরবান রেজিলিয়েন্স প্রজেক্টের লক্ষ্য হচ্ছে, দুর্যোগকালীন সময়ের মতো জরুরি পরিস্থিতিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে আধুনিক যন্ত্রপাতি ব্যবহার ও প্রশিক্ষিত ও দক্ষ মানবসম্পদ উন্নয়নের মাধ্যমে সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর সক্ষমতা বৃদ্ধি করা এবং ঢাকা ও সিলেট নগরীতে বিদ্যমান কাঠামো বা সিস্টেমগুলোকে শক্তিশালীকরণের মাধ্যমে ঝুঁকিপূর্ণ ভবন ও স্থাপনাসমূহের দুর্যোগ ঝুঁকি হ্রাস করা। প্রকল্পের বাস্তবায়ন শুরু হয় ২০১৫ সালের মাঝামাঝি সময়ে।

প্রকল্প বাস্তবায়নকারী সংস্থাসমূহ হচ্ছে, রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক) দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর, প্রকল্প সমন্বয় ও পর্যবেক্ষণ ইউনিট : পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় ও ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন। ইতোমধ্যে প্রকল্পের শতকরা ৯৫ ভাগ কাজ সম্পন্ন হয়েছে।

গত ৬ জুন বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী সম্মেলন কেন্দ্রে প্রকল্পটির সমাপনী কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালায় প্রধান অতিথি ছিলেন পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মো. শহীদুজ্জামান সরকার, এমপি। এতে সভাপতিত্ব করেন কৃষি, পানিসম্পদ ও পল্লী প্রতিষ্ঠান বিভাগের সদস্য (সচিব) আবদুল বাকী। কর্মশালায় উদ্ভোধনী বক্তব্য রাখেন, খন্দকার আহসান হোসেন, (অতিরিক্ত সচিব)। এছাড়া বিশেষ অতিথি ছিলেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের মহাপরিচারক মো. মিজানুর রহমান, রাজউক চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মো. সিদ্দিকুর রহমান সরকার (অব.), আরবান রেজিলিয়েন্স প্রজেক্ট, বিশ্বব্যাংক, বাংলাদেশের টাস্ক টিম লিডার স্বর্ণা কাজী।

কর্মশালার মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন, ড. নুরুন নাহার, অতিরিক্ত সচিব এবং প্রকল্প পরিচালক (আরবান রেজিলিয়েন্স প্রজেক্ট, প্রকল্প সমন্বয় ও পর্যবেক্ষণ ইউনিট : পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়)।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন ড. তারেক বিন ইউসুফ, সাবেক প্রকল্প পরিচালক, ডিএনসিসি এবং ড. রাকিব আহসান, অধ্যাপক, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় প্রমুখ। এছাড়া প্রকল্পের অন্যান্য অংশের পরিচালকদের মধ্যে ডা. এ টি এম মাহবুব-উল করিম, প্রকল্প পরিচালক (যুগ্ম সচিব), ইউআরপি-ডিডিএম; আরিফুর রহমান, প্রকল্প পরিচালক, ইউআরপি-ডিএনসিসি এবং ড. আব্দুল লতিফ হেলালী, প্রকল্প পরিচালক, ইউআরপি-রাজউক, উপস্থিত ছিলেন। বিজ্ঞপ্তি

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App