×
Icon এইমাত্র
কমপ্লিট শাটডাউন কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে কোটা আন্দোলনকারীরা বাংলাদেশ টেলিভিশনের মূল ভবনে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। বিটিভির সম্প্রচার বন্ধ। কোটা সংস্কার আন্দোলনে সারা দেশে এখন পর্যন্ত ১৯ জন নিহত কোটা ইস্যুতে আপিল বিভাগে শুনানি রবিবার: চেম্বার আদালতের আদেশ ছাত্রলীগের ওয়েবসাইট হ্যাক ‘লাশ-রক্ত মাড়িয়ে’ সংলাপে বসতে রাজি নন আন্দোলনকারীরা

খবর

জাবি শিক্ষক সমিতি

১ জুলাই থেকে সর্বাত্মক কর্মবিরতির ঘোষণা

Icon

প্রকাশ: ২৮ জুন ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

জাবি প্রতিনিধি : জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি) শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক মোতাহার হোসেন বলেন, ৩০ জুন থেকে আমরা পূর্ণদিবস কর্মবিরতিতে যাব। আর ১ জুলাই থেকে সর্বাত্মক কর্মবিরতি পালন ও আন্দোলন করব। অর্থ মন্ত্রণালয়ের জারিকৃত পেনশন সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপনকে ‘বৈষম্যমূলক’ আখ্যা দিয়ে তা প্রত্যাহার, প্রতিশ্রæত সুপারগ্রেডে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের অন্তর্ভুক্তি এবং শিক্ষকদের জন্য স্বতন্ত্র বেতন স্কেল প্রবর্তনের দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের আহ্বানে টানা তৃতীয় দিনের মতো অর্ধদিবস কর্মবিরতি পালন করেছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতি। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টা থেকে ১টা পর্যন্ত সমাজবিজ্ঞান অনুষদের নিচে শিক্ষকদের অর্ধদিবস কর্মবিরতির শেষ দিনে অবস্থান কর্মসূচিকালে এসব কথা বলেন তিনি।

অধ্যাপক মোতাহার আরো বলেন, আমরা যারা চাকরি শেষে পেনশনে যাব, আমরা আর কোনো পেনশন পাব না। কিন্তু আমরা এই অযৌক্তিক স্কিমের অন্তর্ভুক্ত হতে চাই না। তাই শিক্ষক সমিতির উদ্যোগে সর্বাত্মক আন্দোলন জারি রাখব। যৌক্তিক দাবির আদায় না হওয়া পর্যন্ত পিছপা হটবো না। আমাদের দাবি মেনে নিয়ে প্রত্যয় স্কিম প্রত্যাহার ও জারিকৃত প্রজ্ঞাপন তুলে না নেয়া পর্যন্ত ক্লাসে ফিরব না।

তিনি শিক্ষকদের উদ্দেশে বলেন, কোনো শিক্ষক তাদের দায়িত্ব পালন করবে না। একাডেমিক হোক বা গবেষণা হোক, আমরা কোথাও অংগ্রহণ করব না। প্রক্টর তার দায়িত্ব পালন করবে না, ডিনরা তাদের দায়িত্ব পালন করবেন না, বিভাগের সভাপতি ক্লাসে আসবে না। আন্দোলন আমরা সফল করেই ছাড়ব। এ সময় পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সঞ্চালনায় কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষকরা। দ্রুততম সময়ে এ পেনশন সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন প্রত্যাহারের দাবি জানান তারা। গাণিতিক ও পদার্থবিষয়ক অনুষদের ডিন অধ্যাপক মো. আবদুর রব বলেন, আমরা শিক্ষক সমিতির তত্ত্বাবধানে যৌক্তিক আন্দোলন করে যাব। আমরা আমাদের দাবিতে অটল থেকে আন্দোলন করে যাব। সমাজবিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক বশির আহমেদ বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির যে ফেডারেশন আছে তাদের বাইরে রেখে অত্যন্ত সুচতুরভাবে আমাদের পেনশন স্কিমের অন্তর্ভুক্ত করে ফেলেছে। কিন্তু শুধু বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদেরই এর অন্তর্ভুক্ত করে রেখেছে। কিন্তু আমলারা কেউ এর মধ্যে নেই।

তিনি আরো বলেন, আমরা যে সম্মানজকভাবে পেনশন পেতাম সেটি যেন আবার ফিরে আসে। আমাদের যে চাওয়া সম্মান সেটি আমরা ফিরে পেতে চাই। এই সরকার এবং রাষ্ট্র যেন আমাদের প্রতি অবিচার না করে। কারণ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের সম্মান না দিয়ে আধুনিক বাংলাদেশ গড়ার যে স্বপ্ন তা সম্ভব না। সরকারের যেন শুভবুদ্ধির উদয় হয়। কারণ শিক্ষকরা যদি রাস্তায় নামে তাহলে এর দায়ভার সরকারকেই নিতে হবে। আমরা প্রত্যয় স্কিম থেকে বেরিয়ে আসতে চাই।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App